মার্চ ২৩, ২০২০ ১৫:২৯ Asia/Dhaka

ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর বিমান প্রতিরক্ষা বিভাগের হুমকির মুখে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের আকাশসীমা লঙ্ঘনের হঠকারিতা না দেখিয়ে দ্রুত সরে গেছে যুদ্ধবিমান এফ-১৮।

ফার্সি নওরোজের প্রথম দিন অর্থাৎ ২০ মার্চ এ ঘটনা ঘটেছে ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় আকাশসীমায়। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সম্প্রতি প্রকাশ করেছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সম্প্রচার সংস্থা আইআরআইবি। অবশ্য, আমেরিকার তৈরি এফ-১৮ যুদ্ধবিমানটি কোন দেশের ছিল সে তথ্য প্রকাশ করা হয় নি।

ইরানের বিমান বিধ্বংসী মেরসাদ ক্ষেপণাস্ত্র

প্রকাশিত ভিডিও'তে দেখা যায় যে, ইরানি সশস্ত্র বাহিনীর বিমান প্রতিরক্ষা বিভাগের সদস্যরা একাধিকবার এফ-১৮ যুদ্ধবিমানের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করছেন। কিন্তু তাতে বিমানটির গতিপথ বদলাচ্ছে না। কিন্তু সতর্কবার্তা না শুনলে এফ-১৮'কে লক্ষ্য করে হামলা করা হবে বলে ইরানের বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা পরিষ্কার ভাষায় চূড়ান্ত হুঁশিয়ারি দেয়ার পরই এফ-১৮'এর চালকের হুঁশ হয়। যুদ্ধবিমানটি ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘনের হঠকারিতা না দেখিয়ে গতিপথ পরিবর্তন করে দ্রুত সরে যায়।

ইরানের বিমান বাহিনীর যুদ্ধবিমান

মার্কিন ম্যাকডোনেল ডগলাসের (বর্তমানে বোয়িং) তৈরি দুই ইঞ্জিনের এফ-১৮ সব আবহাওয়ায় ব্যবহার করা যায়। যুদ্ধে নানামুখী ব্যবহারে সক্ষম এ বিমানকে আক্রমণ এবং যুদ্ধ উভয় ভূমিকায় নামানো যায়। সাধারণভাবে মার্কিন নৌ এবং মেরিন বাহিনী এ বিমান ব্যবহার করে। পাশাপাশি,  ১৯৮৬ সাল থেকে এ বিমান আরও অনেক দেশ ব্যবহার করছে।#      

পার্সটুডে/মূসা রেজা/২৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য