এপ্রিল ১৮, ২০২০ ১৯:১৫ Asia/Dhaka

ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দেশটির সেনাবাহিনীর অধীনস্থ বিমান বাহিনী এবং বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীকে পাইলটবিহীন বিমান বা ড্রোনের গণ চালান হস্তান্তর করেছে। এসব ড্রোনের মধ্যে যুদ্ধ এবং গোয়েন্দা ড্রোনের পাশাপাশি জেট-চালিত বহুমুখী চালকহীন বিমানও রয়েছে।

হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামি (ডান থেকে দ্বিতীয়)

ইরানের সেনাবাহিনী দিবসের একদিন পরই এ চালান হস্তান্তর করা হলো। ইস্পাহানের ইরান বিমান শিল্প কারখানা বা আএআইও'তে হস্তান্তর অনুষ্ঠানে  প্রতিরক্ষামন্ত্রী বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামিসহ সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে দেয়া ভাষণে জেনারেল হাতামি বলেন,  জেট-চালিত পাইলটবিহীন বিমান ঘণ্টায় ৯০০  কিলোমিটার গতিতে চলতে এবং ১২ কিলোমিটার ঊর্ধ্বাকাশে তৎপরতা চালাতে পারে। টানা ১৮০ মিনিট তৎপরতার চালাতে সক্ষম এ ড্রোনের পাল্লা এক হাজার কিলোমিটার বলেও জানান তিনি।

ইরানের তৈরি চালকহীন বিমান কারার

এ অনুষ্ঠানে আবাবিল-৩ এবং কারার ড্রোনের বড় একটি চালান তুলে দেয়া হয় বিমানবাহিনীর হাতে। আবাবিল-৩ সম্পর্কে তিনি জানান, মাঝারি পাল্লার এই ড্রোন দেড়শ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে বিমান হামলা চালাতে সক্ষম। আর কারারকে কৌশলগত যুদ্ধ-ড্রোন হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাধারণ বিমানের মতই মালামাল বহন করতে সক্ষম এটি। সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যে হামলা চালানোর ক্ষমতাসম্পন্ন এ পাইলটবিহীন বিমান প্রয়োজনে আত্মঘাতী হামলা চালাতে পারে।#

পার্সটুডে/মূসা রেজা/১৮ 

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য