মে ২৩, ২০২০ ০২:৩৬ Asia/Dhaka
  • কুদস দিবসে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার ভাষণ শুনছেন দুই নারী
    কুদস দিবসে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার ভাষণ শুনছেন দুই নারী

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিধিবিধান পালন করার স্বার্থে এবার ইরানে বিশ্ব কুদস দিবসের মিছিল অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে ব্যক্তিগতভাবে কুদস দিবস পালন করেছেন অনেকেই।

রাজধানী তেহরানের বিভিন্ন এলাকায় ইরানিরা বাই-সাইকেল, মোটর সাইকেল ও ব্যক্তিগত গাড়িতে ফিলিস্তিনের পতাকা হাতে নিয়ে সড়ক পদক্ষিণ করেছেন। কেউবা রাস্তায় দাঁড়িয়ে ফিলিস্তিনের পতাকা ও ফেস্টুন বহন করেন। ফেস্টুনে লেখা ছিল ‘আল কুদস আমাদের’।

এছাড়া, কুদস দিবসে মুসলিম উম্মাহ'র উদ্দেশে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা যে ভাষণ দেন তা মনোযোগ দিয়ে শোনেন ইরানিরা।

রাস্তায় অঙ্কিত ইসরাইলি পতাকার উপর দিয়ে হেঁটে যান জনগণ

এর আগে, ইরানের বিভিন্ন রাস্তার পাশে বোর্ড ও ভবনে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা আন্দোলনের সমর্থনে দেওয়াল লিখন ও পোস্টার ও ছবি আঁকা হয়।   

আল-কুদসু লানা অর্থাৎ 'আল-কুদস আমাদের' লেখা ফেস্টুন হাতে এক ইরানি

ইহুদিবাদীদের কবল থেকে মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল-কুদসকে মুক্ত করার প্রত্যয় নিয়ে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের স্থপতি ইমাম খোমেনী (রহ.) ১৯৭৯ সালে প্রথম এ দিবস পালন করার কথা ঘোষণা করেন। তাঁর আহ্বানে সাড়া দিয়ে তখন থেকে প্রতি বছর রমজান মাসের শেষ শুক্রবার বিশ্ব কুদস দিবস হিসেবে পালিত হয়ে এসেছে।

বিভিন্ন চত্বরে ফিলিস্তিনি পতাকা হাতে ইরানিরা

এ দিবসে বিশ্বের মুসলমানরা ইসরাইল বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন এবং আমেরিকা ও ইসরাইলের পতাকায় অগ্নিসংযোগ করেন। তারা ইহুদিবাদী ইসরাইলের দখলদারিত্ব থেকে আল-কুদসকে মুক্ত করার শপথ নেন। কিন্তু এ বছর প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে রাষ্ট্রীয়ভাবে কোনো কর্মসূচি না থাকায় ইরানিরা ব্যক্তিগতভাবে পতাকা উত্তোলন কর্মসূচি পালন করেন। তবে আইআরজিসি মোটর শোভাযাত্রা করেছে।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য