জুলাই ০৯, ২০২০ ০৬:০৭ Asia/Dhaka
  • ইরানের কুদস বাহিনীর সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানি
    ইরানের কুদস বাহিনীর সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানি

ইরানের কুদস বাহিনীর সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করার ব্যাপারে সাবেক মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন যে দাম্ভিক উক্তি করেছেন তার জবাব দিয়েছে রাশিয়া। ভিয়েনায় জাতিসংঘের দপ্তরে নিযুক্ত রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি মিখাইল উলিয়ানোভ এক টুইটার বার্তায় বোল্টনকে উদ্দেশ করে লিখেছেন, “আমেরিকার সংবিধান কি একটি দেশের শীর্ষস্থানীয় সেনা কমান্ডারকে তৃতীয় কোনো দেশের মাটিতে হত্যা করার অনুমতি দেয়?”

মঙ্গলবার জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি অ্যাগনেস ক্যালামার্ড তার তদন্ত প্রতিবেদনে জানান, জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করে আমেরিকা আন্তর্জাতিক আইন ও জাতিসংঘ ঘোষণা লঙ্ঘন করেছে। এর প্রতিক্রিয়ায় মঙ্গলবারই বোল্টন দাম্ভিক উক্তি করে বলেছিলেন, আমেরিকার সংবিধানে প্রদত্ত অধিকারবলে সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে।

মিখাইল উলিয়ানোভ

গত ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার সময় তাকে বহনকারী গাড়ির বহরে ড্রোন হামলা চালায় ইরাকে মোতায়েন সন্ত্রাসী মার্কিন সেনাবাহিনী। হামলায় জেনারেল সোলাইমানি এবং ইরাকের জনপ্রিয় গণবাহিনী ‘হাশদ আশ-শাবি’র উপপ্রধান মাহদি আল মুহান্দিসসহ আরো কয়েকজন সেনা জওয়ান শহীদ হন।

জন বোল্টন

ওই হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে ক্যালামার্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “মেজর জেনারেল সোলায়মানি ইরাক ও সিরিয়ায় ইরানের সামরিক কৌশল ও পদক্ষেপের নীতি-নির্ধারণী ভূমিকা পালন করতেন। কিন্তু মার্কিন দাবির বিপরীতে তিনি (মানুষের) জীবনের জন্য অত্যাসন্ন কোনো হুমকি ছিলেন না। কাজেই আমেরিকা তাকে হত্যা করে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে।”#

পার্সটুডে/এমএমআই/৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য