জুলাই ১৩, ২০২০ ০৬:২২ Asia/Dhaka
  • বিধ্বস্ত বিমানটির ধ্বংসাবশেষ (ফাইল ছবি)
    বিধ্বস্ত বিমানটির ধ্বংসাবশেষ (ফাইল ছবি)

ইরানের আকাশে ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ব্যাপারে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ইরানে বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

গত ৮ জানুয়ারি ইরানের রাজধানী তেহরানের উপকণ্ঠে ইউক্রেনের ওই যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়ে এর ১৬৭ যাত্রী ও নয় ক্রু নিহত হন। ইরানের একটি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে ভুল করে নিক্ষিপ্ত ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

এ সম্পর্কিত তদন্ত প্রতিবেদনে দেশের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ বলেছে, বিমানটিতে গুলিবর্ষণের ঘটনায় মানবীয় ভুলের অনেকগুলো কারণ ছিল।তবে বিমানটি তার নির্ধারিত গতিপথ ধরেই এগিয়ে যাচ্ছিল বলে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এতে বলা হয়, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাটি চালু করার সময় এটির উত্তর দিক পুনর্নিধারণ করতে ভুলে যান এটির চালক। সেখান থেকে যে ভুলের সূচনা হয় পরবর্তীতে আরো কিছু কারণ যুক্ত হওয়ার ফলে ওই ব্যবস্থা যাত্রীবাহী বিমানকে সঠিকভাবে নির্ণয় করতে ব্যর্থ হয়।

আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিমানটিকে শত্রুর পক্ষ থেকে আসা কোনো লক্ষ্যবস্তু হিসেবে চিহ্নিত করে যার ফলে সেটিতে গুলি চালান এটির চালক। বিমানটির ব্ল্যাক বক্সে থাকা তথ্য উদঘাটন করা সম্ভব হলে এই তদন্ত পূর্ণাঙ্গ হবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

ব্ল্যাক বক্সের তথ্য উদঘাটনের জন্য এটিকে ফ্রান্সে পাঠানো হবে এবং আগামী ২০ জুলাই এটির তথ্য বের করার কাজ শুরু হবে। যেসব দেশ এই বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সবাইকে ব্ল্যাক বক্সের তথ্য উদঘাটন প্রক্রিয়ায় উপস্থিত থাকার জন্য তেহরানের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। বিধ্বস্ত বিমানটির বেশিরভাগ যাত্রী ছিলেন ইরানি এবং অবশিষ্ট ৩২ যাত্রী কানাডা, আফগানিস্তান, ইউক্রেন, ব্রিটেন ও সুইডেনের পাসপোর্ট বহন করছিলেন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য