অক্টোবর ২২, ২০২০ ০৬:০৪ Asia/Dhaka
  • ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন (ফাইল ছবি)
    ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন (ফাইল ছবি)

রাশিয়াকে নিজের অন্যতম প্রধান সামরিক ও প্রতিরক্ষা অংশীদার বলে ঘোষণা করেছে ইরান। তেহরান বলেছে, ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার ফলে এখন তেহরান ও মস্কোর মধ্যে এসব ক্ষেত্রে সহযোগিতা আরো শক্তিশালী হবে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে রুশ বার্তা সংস্থা স্পুৎনিককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, তেহরান ও মস্কোর মধ্যে প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতার ব্যাপারে আলোচনা চলছে।

বন্ধুপ্রতীম দেশগুলোর কাছ থেকে যেকোনো ধরনের সমরাস্ত্র ক্রয়ের বিষয়টি ইরানের প্রয়োজনের ওপর নির্ভর করে জানিয়ে খাতিবজাদে বলেন, জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার ফলে ইরান এখন কোনো ধরনের আইনি বাধা ছাড়াই সমরাস্ত্র আমদানি-রপ্তানি করতে পারবে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে ইরানের এই মুখপাত্র বলেন, তার দেশ আমেরিকার আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সেদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মনে করে এবং এই নির্বাচনের কোনো প্রার্থীর প্রতিই তেহরানের কোনো দুর্বলতা নেই।

রুশ বার্তা সংস্থার পক্ষ থেকে মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে খাতিবজাদে বলেন, এ অঞ্চলে উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ার পেছনে সৌদি আরব বড় ভূমিকা পালন করছে। রিয়াদ তার প্রাকৃতিক সম্পদের ভাণ্ডার আমেরিকার জন্য খুলে দিয়েছে উল্লেখ করে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, সৌদি আরব যদি মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা প্রশমনের সিদ্ধান্ত নেয় এবং নিজের নীতিতে পরিবর্তন আনে তাহলে তেহরান তাকে খোলা মনে স্বাগত জানাবে।#
পার্সটুডে/এমএমআই/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য