ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১ ০৬:৫৩ Asia/Dhaka

আমেরিকা ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করায় আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র সঙ্গে ইরানের সহযোগিতার ক্ষেত্রে যে অচলাবস্থা দেখা দিতে যাচ্ছিল সর্বোচ্চ তিনমাসের জন্য তার সমাধান হয়েছে। আইএইএ’র মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসির তেহরান সফরে দু’পক্ষের আলোচনা শেষে এ সংক্রান্ত সমঝোতার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার শেষ বেলায় ইরান ও আইএইএ’র পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই আন্তর্জাতিক সংস্থার পরিদর্শকরা আগামী তিন মাস ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে ‘জরুরি’ পরিদর্শন কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের ২৬ আগস্ট গ্রোসির আগেরবারের তেহরান সফরের সময় আইএইএ’র সঙ্গে ইরানের যে সমঝোতা হয়েছে তার বাস্তবায়ন কাজ চালিয়ে যাবে দু’পক্ষ।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান আলী আকবর সালেহির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তার দপ্তরে যাচ্ছেন গ্রোসি

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইরানের সংসদে পাস হওয়া আইনের ভিত্তিতে ইরান আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি (আগামীকাল) থেকে এনপিটির সম্পূরক প্রটোকল বাস্তবায়ন স্থগিত রাখবে। এর অর্থ হচ্ছে, আইএইএ’র পরিদর্শকরা পূর্ব ঘোষণা ছাড়া আর ইরানের পরমাণু স্থাপনা পরিদর্শন করতে পারবেন না। তবে ইরান আগের মতো দু’পক্ষের মধ্যে স্বাক্ষরিত ‘সেফগার্ড এগ্রিমেন্ট’  পুরোপুরি মেনে চলবে। যৌথ বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, আগামী তিনমাস আইএইএ’র পরিদর্শকরা পূর্বঘোষিত সময়সীমা অনুযায়ী ইরানে তাদের পরিদর্শন কাজ চালাতে পারবেন। কোন কোন তারিখ তারা তেহরান সফরে আসবেন তার তালিকাও চূড়ান্ত হয়েছে।

ইরানের সংসদ গত ডিসেম্বরে এমন একটি আইন পাস করে যার ফলে পরবর্তী দু’মাসের মধ্যে আমেরিকা ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করলে প্রেসিডেন্ট রুহানির সরকার সম্পূরক প্রটোকল বাস্তবায়ন স্থগিত করে দিতে বাধ্য থাকবেন। ওই আইনের ভিত্তিতে ইরান গত সপ্তাহে আইএইএ’কে জানিয়ে দেয়, ২১ ফেব্রুয়ারি মধ্যে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না হলে ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে তেহরান পূর্বঘোষণা ছাড়া আর কোনো পরিদর্শক গ্রহণ করবে না। ইরানের ওই আল্টিমেটাম হাতে পাওয়ার পর আইএইএ’র মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসি শনিবার তড়িঘড়ি করে তেহরানে ছুটে আসেন। শেষ পর্যন্ত তার ইরান সফর ফলপ্রসু হয় বলে দু’পক্ষ ঘোষণা করেছে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।  

 

ট্যাগ