মে ১১, ২০২১ ১৭:৪১ Asia/Dhaka
  • ৭ মার্কিন নৌযানের আচরণ ছিল বিপজ্জনক, সতর্ক করা হয়েছে: ইরান

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি'র নৌ ইউনিট বলেছে, হরমুজ প্রণালীতে সাত মার্কিন নৌযান অপেশাদার ও উসকানিমূলক আচরণ করছিল, এ কারণে সেগুলোকে সতর্ক করা হয়েছে। সেখানে কোনো আগ্রাসী তৎপরতা চালায়নি ইরানি বাহিনী।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কারবি'র এ সংক্রান্ত অভিযোগ সত্য নয় বলে আইআরজিসি'র নৌ ইউনিটের জনসংযোগ বিভাগ আজ (মঙ্গলবার) এক বিবৃতি প্রকাশ করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে।

এতে বলা হয়েছে, গতকাল (সোমবার) আমেরিকার সাতটি নৌযান ইরানের পানিসীমায় বিপজ্জনক ও উসকানিমূলক আচরণ করছিল। এ অবস্থায় ইরানের সামরিক টহল যানগুলো সামুদ্রিক যান চলাচল আইন মেনে পর্যাপ্ত দূরত্ব বজায় রেখে সেগুলোকে সতর্ক করেছে এবং সঠিক আচরণ করতে বলেছে। এরপর মার্কিন নৌযানগুলো তাদের আচরণ সংশোধন করে সামনের পথ ধরে চলে গেছে।

ইরান আরও বলেছে, আমেরিকা এই অঞ্চলে বিশেষকরে হরমুজ প্রণালী ও পারস্য উপসাগরে সামরিক উপস্থিতি অব্যাহত রেখেছে এবং এর মাধ্যমে তারা এই অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা ও অনিরাপত্তা সৃষ্টি করেছে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের মুখপাত্র দাবি করেছে, যুক্তরাষ্ট্রের মিসাইলবাহী সাবমেরিন ইউএসএস জর্জিয়া হরমুজ প্রণালী দিয়ে যাচ্ছিল। সাবমেরিনটির পাহারায় ছিল যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর ছয়টি জাহাজ। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর জাহাজগুলোর ১৪০ মিটারের মধ্যে চলে এসেছিল ইরানের দ্রুতগতির ১৩টি নৌযান। ইরানি নৌযানগুলো মার্কিন সামরিক বাহিনীর নৌযানের কাছে অত্যন্ত আগ্রাসীভাবে তৎপরতা চালাচ্ছিল দাবি করে আমেরিকা।

কিন্তু ইরান অপেশাদার আচরণের অভিযোগ সরাসরি নাকচ করেছে।#

পার্সটুডে/এসএ/১১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ