মে ১১, ২০২১ ২২:৫৩ Asia/Dhaka
  • ‘আরবরা ইরানের মতো ফিলিস্তিনিদের পাশে থাকলে ইসরাইল এত সাহস পেত না’

আসসালামু আলাইকুম। রেডিও তেহরান, বাংলা বিভাগের সকল শ্রোতা ও কলাকুশলীকে পবিত্র ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে জানাই আমার আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা ।

আমি রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগের নিয়মিত শ্রোতা। পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে গোটা রমজান মাসব্যাপী রেডিও তেহরানও একটি বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করেছে। রমজান: খোদাপ্রেমের অনন্য উৎসব শীর্ষক এ বিশেষ অনুষ্ঠানটি থেকে আমরা জানতে পেরেছি রমজানের অনেক ফজিলত সম্পর্কে। অশেষ রহমতের এ গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র মাসের নানা বিষয় ও তৎসংক্রান্ত সুন্দর সুন্দর বিষয় আলোচনা করার জন্যে ধন্যবাদ জানাই। এই পবিত্র রমজান মাসের সবটুকু ফজিলত আল্লাহতায়ালা আমাদের দান করবেন এই কামনা করি।

রেডিও তেহরান বিশেষ বিশেষ দিনের অনুষ্ঠানের পাশাপাশি পবিত্র রমজান উপলক্ষে প্রত্যেক বছর এমন গুরুত্বপূর্ণ ও সময়োপযোগী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ইসলাম ও দ্বীন প্রচারের এক অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে। সারা মাসব্যাপী এ অনুষ্ঠানমালা আমাদের দৈনন্দিন জীবনের বাইরে এক নতুন জগতে বিরাজ করার রসদ যুগিয়েছে নিঃসন্দেহে। পরম করুণাময় আল্লাহ্ তায়ালার সাথে তার বান্দার যে বিনি সুতোর যোগাযোগ নির্মাণে এ মাসের তাৎপর্য ও দর্শন আমাদের হৃদয়ে প্রস্ফুটিত হোক।

বিশেষ বিশেষ দিনের এমন পরিবেশনাগুলো মন ছুয়ে যায়। আশা করব পরবর্তী কোনো আসরে এমনই মন ছুঁয়ে যাওয়া ইসলামী দর্শন ও আদর্শে উজ্জীবিত বর্ণনাময় অসাধারণ পরিবেশনা উপহার পাব।

এমন বরকতময় মাসের মধ্যে আমরা তথা গোটা মানব জাতির কাছে অতিমারী করোনা ভাইরাসের ভয়াল থাবা গ্রাস করে চলেছে। আমরা ভারতীয়রা বর্তমানে চরম ও দুর্বিষহ জীবন অতিবাহিত করছি। এ বরকতময় মাসের শেষ প্রান্তে এসে করুণাময় আল্লাহ্ পাকের নিকট এই মহামারী থেকে উদ্ধারের জন্যে প্রার্থনা করি।

গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলা

অন্যদিকে, এই রমজানের শেষ সপ্তাহে এসে যেখানে সবাই ঈদ উল ফিতর এর আনন্দে উৎফুল্ল হওয়ার কথা, সেখানে অসহায় ফিলিস্তিনিরা আবারও যায়নবাদী সন্ত্রাসের শিকার। আল আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে রোযাদার মুসল্লিদের ওপর যায়নবাদী ইসরাইল নির্মমভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ার ছবি আমরা বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখেছি। সন্ত্রাসী ও দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর এই নির্মম নির্যাতনের ছবি দেখে আমাদের হৃদয়ে নাড়া দিয়ে গেছে। আজ ফিলিস্তিনের মুসলমানরা নিজের দেশে পরবাসী জীবন অতিবাহিত করছে অথচ দখলদার ইসরাইল দিনের পর দিন ফিলিস্তিনের ভূমি দখল করে চলেছে। এক্ষেত্রে আজও কোনো আরব দেশকে সদর্থক ভূমিকা গ্রহণ করতে দেখলাম না। একমাত্র ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান সব সময় ফিলিস্তিনের পাশে থেকেছে। এমনটা যদি অন্যান্য আরব দেশগুলো অবস্থান নিত, তাহলে ইসরাইলের মত দখলদার সন্ত্রাসীরা এত সাহস দেখতে পারতো না।

এ প্রসঙ্গে তাই ইরানের সর্বোচ্চ নেতার একটা বিবৃতি দিয়ে ইতি টানছি। তিনি বলেছেন, "ইহুদিবাদীরা ফিলিস্তিন দখলের প্রথম দিন থেকেই এটাকে সন্ত্রাসবাদের ঘাঁটিতে পরিণত করেছে। ইসরাইল কোনো দেশ নয়, এটি ফিলিস্তিনি জনগণ এবং অন্যান্য মুসলিম জাতির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের একটি ঘাঁটি। এই জঘন্য অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই মানেই জুলুম-নিপীড়নের বিরুদ্ধে লড়াই এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই। এটা সব মানুষের দায়িত্ব।" 

মহান আল্লাহ সবাইকে নিরাপদে রাখুন; সবাই ভালো ও সুস্থ থাকুন এই কামনা করি। ধন্যবাদান্তে,

এস এম নাজিম উদ্দিন 
ইন্টারন্যাশনাল ডি এক্স রেডিও শ্রোতা সংঘ
মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম বঙ্গ, ভারত।

 

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/১১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন। 

 

ট্যাগ