জুলাই ১৯, ২০২১ ১৬:৪৯ Asia/Dhaka
  • খাতিবজাদে
    খাতিবজাদে

ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। তেহরান বলেছে, দখলদার ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের সামনে প্রতিরোধ সংগ্রাম ছাড়া ভিন্ন কোনো পথ খোলা রাখেনি।

আজ (সোমবার) তেহরানে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে আরও বলেন,ইসরাইলি বাহিনী পবিত্র ঈদুল আজহার আগে আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে যে আগ্রাসন চালিয়েছে ইরান তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে ও ঘৃণা প্রকাশ করছে।

তিনি আরও বলেন,ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান এ ধরণের সহিংসতা ও আগ্রাসন মোকাবেলায় সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে। মুসলিম বিশ্বের উচিৎ ঐক্যবদ্ধভাবে এ ধরণের তৎপরতার বিরুদ্ধে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো। এমন পদক্ষেপের প্রভাব রয়েছে। 

তেলআবিবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দূতাবাস উদ্বোধন প্রসঙ্গে খাতিবজাদে বলেন,দখলদার ইসরাইল ভাবছে এ ধরণের তৎপরতার মাধ্যমে তারা বৈধতা পাবে। কিন্তু  তাদের আশা পূর্ণ হবে না।

তিনি বলেন,গত কয়েক দশক ধরে ইসরাইল এই অঞ্চলে সহিংসতা ও সন্ত্রাসবাদ চালাচ্ছে। তারা কখনোই বৈধতা পেতে পারে না। সংযুক্ত আরব আমিরাতেরও জেনে রাখা উচিত ইসরাইলের কারণে এই অঞ্চলে যে অশান্তি সৃষ্টি হবে তার দায় আবু ধাবিকেও নিতে হবে।

গতকাল সকালে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় এক হাজার ৩৭০ জন অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপনকারী আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায়। এর ফলে বেশ কয়েকজন মুসল্লি আহত হন। ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের সঙ্গে ইসরাইলের কয়েকজন সংসদ সদস্যও ছিলেন। #

পার্সটুডে/এসএ/১৯  

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ