আগস্ট ১৩, ২০২২ ০৯:৫৭ Asia/Dhaka
  • 'শোকের আবহ ও করুণ সুরের মূর্ছনায় এক অনন্য রংধনু শুনলাম'

আসসালামু আলাইকুম, আশা করি রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগের সকলে ভালো ও সুস্থ আছেন। রেডিও তেহরান বাংলা অনুষ্ঠানের ঝুলিতে নানা বৈচিত্র্যপূর্ণ অনুষ্ঠানের সমাহার আমাকে মুগ্ধ করে তোলে। সপ্তাহের বিভিন্ন দিন, নানা স্বাদের অনুষ্ঠানমালা আমাদের নানা বয়সী শ্রোতাদের মনঃপুত করে প্রস্তুত ও উপস্থাপন করা হয়ে থাকে।

গত ১১ আগস্ট, ২০২২ বৃহস্পতিবারের সাপ্তাহিক পরিবেশনা ‘রংধনু আসর’-এর আরও একটি অত্যন্ত সময় উপযোগী পর্ব শুনলাম।

আশরাফুর রহমান ভাইয়ের গ্রন্থনায় এবং গাজী আব্দুর রশিদ ভাই ও আক্তার জাহান আপার চমৎকার পরিবেশনায় অনুষ্ঠানটি শোকের অনন্ত গহীনে প্রতিধ্বনিত হয়ে ওঠে।

এই আসরে বেদনাবিধুর মহররম উপলক্ষে একটি বিশেষ অনুষ্ঠান শুনলাম। যেখানে ইমাম হুসেইন (আ.) এবং তার ভাতিজা অর্থাৎ হযরত ইমাম হাসানের (আ.)-এর পুত্র হযরত কাসেমের অনন্য ভালোবাসা ও আত্মত্যাগের কাহিনি চোখে পানি এনে দিল। আমরা জানি যে, মহররম মাসের ১০ তারিখে অর্থাৎ ৬১ হিজরীর পবিত্র আশুরার দিন ইরাকের কারবালার ময়দানে সংঘটিত হয়েছিল এক অসম যুদ্ধ।

ঐতিহাসিক এ যুদ্ধে রাসূল (সা.)-এর নাতি ইমাম হুসেইন (আ.) অবৈধ উমাইয়া শাসক ইয়াজিদের বিশাল বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে শহীদ হন। সবচেয়ে দুঃখের ব্যাপার হচ্ছে, এ যুদ্ধে মাত্র ১৩ বছর বয়সী কিশোর কাসেম এবং দুধের শিশু আলী আসগরও শহীদ হন।

জালিম ইয়াজিদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে ইমাম হুসাইন (আ.), তাঁর পরিবার ও সঙ্গীরা আমাদেরকে শিক্ষা দিয়ে গেছেন যে, কোনো শাসক ইসলামের নীতিমালা থেকে দূরে সরে গেলে কিংবা অন্যায়ভাবে ক্ষমতা দখল করলে তার বিরুদ্ধে নিজের সাধ্যনুযায়ী সংগ্রাম করতে হবে। ইমাম হুসাইন তাঁর নিজের, পরিবার পরিজনের এবং সঙ্গী সাথীদের জীবন উৎসর্গ করে ইসলামকে যেভাবে রক্ষা করে গেছেন, বিশ্বের সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে সে দৃষ্টান্ত অনুসরণ করতে হবে। তাহলে ইমাম হুসাইন (আ.) ও তাঁর সঙ্গী সাথীদের আত্মত্যাগ সার্থক হবে। 

পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে শোকের আবহ, যন্ত্র সংগীতের করুন সুরের মূর্ছনায় এক অনন্য পরিবেশ সৃষ্টি করেছিল। চাচা ভাতিজার এই করুণ ভালোবাসার আত্মত্যাগের কাহিনী শুনতে শুনতে আমরা যেন হারিয়ে গিয়েছিলাম।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ইরানের নাসিমে রাহমাত শিল্পীগোষ্ঠীর শিশু-কিশোরদের কণ্ঠে সুন্দর একটি গান শুনলাম যা উৎসর্গ করা হয়েছেন শহীদদের নেতা ইমাম হুসাইন (আ.)-কে। 

এই মহান পবিত্র ও আত্মত্যাগের মাসে রেডিও তেহরানের সময়োপযোগী ও তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা অনুষ্ঠান আমাদের জানার পরিধিকে সমৃদ্ধ করেছে। কারবালা বিপ্লবের এ মাসে প্রকৃত ইসলাম ও তার আদর্শকে অক্ষুন্ন রাখতে পবিত্র আহলে বাইত (আ.) এর আত্মত্যাগ মানুষের মধ্যে তুলে ধরতে এক অনন্য ভূমিকা পালন করে চলেছে রেডিও তেহরান। এই ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যাশা করি।

শোকাবহ মহররম উপলক্ষে রেডিও তেহরান বাংলা পরিবারের সকলকে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়ে শেষ করছি।

 

ধন্যবাদান্তে,

এস এম নাজিম উদ্দিন

মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম বঙ্গ, ভারত।

 

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/১৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ