অক্টোবর ০৫, ২০২২ ১১:৩৫ Asia/Dhaka
  • 'পাশ্চাত্যের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে রেডিও তেহরান শক্তিশালী ভূমিকা পালন করছে'

মহাশয়, বিশ্বের অধিকাংশ প্রচার মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করে আসছে পাশ্চাত্য সাম্রাজ্যবাদ। তাই স্বাভাবিকভাবেই এসব সংবাদ মাধ্যমে ইরানের প্রকৃত সংবাদগুলো ইতিবাচক কভারেজ পায় না। ইসলামী বিপ্লবের পর থেকেই ইরান এ সংকটে নিমজ্জিত।

ইরানের জাতীয় সম্প্রচার সংস্থা আইআরআইবি’র বহির্বিশ্ব কার্যক্রমে বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় রেডিও সম্প্রচার সে অভাব কিছুটা পূরণ করেছে বটে, কিন্তু তা প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটাই অপ্রতুল। তা সত্ত্বেও আইআরআইবি’র বহির্বিশ্ব সম্প্রচার কার্যক্রমের বাংলা বিভাগের দক্ষ সাংবাদিক ও প্রতিবেদকদের যথার্থ কর্মপ্রচেষ্টায় পাশ্চাত্যের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে শক্তিশালী ভূমিকা পালন করছে। 

সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোর প্রবল বাধার মুখে ইরান তার নিজস্ব প্রচার মাধ্যম ও তার শ্রোতা পাঠকদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ইসলামী ইরান সম্পর্কে বর্ণিত অপপ্রচারগুলো যে মিথ্যা তা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। দিন দিন বিশ্বব্যাপী ইসলামী ইরানের সম্মান বাড়ছে। মুসলমানগণ ইসলামী ইরানকে তাদের সহযোদ্ধা ও সত্যের পথে নিশান বরদার হিসেবে ভাবতে শুরু করেছে। ফলে বিশ্বের বিভিন্ন জনপদে ইসলামিক জাগরণ জোরদার হচ্ছে। সাম্রাজ্যবাদীদের কাছে এ অবস্থাটা সহ্য করা কঠিন হয়ে পড়ছে। তাই তারা ইরান সম্পর্কে বিশ্ববাসীর মনে বিরূপ মনোভাব তৈরিতে সদা তৎপর। মাহসা আমিনীর মৃত্যু নিয়ে পাশ্চাত্য মিডিয়ার প্রচার তার প্রকৃষ্ট প্রমাণ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে যেসব গুজব ও অপপ্রচার চলছে তার যথাযথ জবাব হিসেবে ইরানি প্রচার মাধ্যমকে আরো সক্রিয় ভূমিকায় অবতীর্ণ হবার আহ্বান জানাই।

 

ধন্যবাদান্তে

বিধান চন্দ্র সান্যাল
ঢাকা কলোনী, বালুরঘাট
দক্ষিণ দিনাজপুর, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত।

 

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ