মে ১৪, ২০২২ ০৬:৪০ Asia/Dhaka
  • সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ
    সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ

ইহুদিবাদী সেনাদের গুলিতে ফিলিস্তিনি সাংবাদিক শিরিন আবু-আকলেহ’র নিহত হওয়ার ঘটনায় ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনকারী আরব দেশগুলোর লজ্জিত হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ।

তিনি শুক্রবার লেবাননের একটি নির্বাচনি সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন। সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণ যে নির্যাতিত এবং ইহুদিবাদী ইসরাইল যে দাগী অপরাধী এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তা আরেকবার প্রমাণিত হয়েছে।

গত ১১ মে সকালে অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেনিন শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি সেনাদের আগ্রাসনের খবর প্রচার করতে গিয়ে ইহুদিবাদী সেনাদের গুলিতে নিহত হন কাতারভিত্তিক নিউজ চ্যানেল আল-জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু-আকলেহ। তাকে কাছে থেকে মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়।

তিনি বলেন, আবু-আকলেহ’র শাহাদাতের ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে ফিলিস্তিন থেকে লেবানন ও মিশর পর্যন্ত ইসরাইলি শত্রুদের পাশবিকতা, শত্রুতা ও গণহত্যা সমান তালে চলছে।

পশ্চিম তীরে ইসরাইলিদের অপরাধযজ্ঞ তুলে ধরতেন শিরিন আবু-আকলেহ

হিজবুল্লাহ নেতা বলেন, যেসব আরব ও মুসলিম দেশ ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছে এ ঘটনায় তাদের লজ্জা পাওয়া উচিত। তিনি বলেন, ইহুদিবাদীদের পাশবিকতার কোনো সীমারেখা নেই এবং এই জঘন্য শত্রুদের এখনই প্রতিহত করতে না পারলে তার সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনকারীরাও একদিন ইহুদিবাদীদেরই হাতে ধ্বংস হবে।

সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, হিজবুল্লাহ না থাকলে এতদিন লেবাননের বিস্তীর্ণ এলাকা ইসরাইলিরা দখল করে নিত। তিনি হিজবুল্লাহর প্রতিরোধ সংগ্রামে সহযোগিতা করার জন্য ইরান ও সিরিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ