মে ১৮, ২০২২ ১৮:০১ Asia/Dhaka
  • খালেদ মাশয়াল
    খালেদ মাশয়াল

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের শীর্ষ নেতা খালেদ মাশয়াল বলেছেন, দখলদার ইসরাইলের অস্তিত্ব ধ্বংসের কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে। তাদের অস্তিত্বের শেষ পর্বটি এখন চলছে। গাজার আল-আকসা টিভি চ্যানেলকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি আরও বলেছেন, দখলদার ইহুদিবাদীরা এই বার্তা দিতে চায় যে আল-আকসা হচ্ছে তাদের রাজধানী, সেখানে ফিলিস্তিনি কোনো প্রতীকের অস্তিত্ব সহ্য করা হবে না। এ কারণে তারা জানাযা অনুষ্ঠানেও হামলা চালাচ্ছে, ফিলিস্তিনি পতাকা উড়ালে তাতে বাধা দিচ্ছে।

আল-জাজিরা টিভি চ্যানেলের সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, এই প্রখ্যাত সাংবাদিক হত্যার ঘটনায় আমরা অত্যন্ত মর্মাহত। গত কয়েক বছরে ইসরাইল আরও ৫৫ জন সাংবাদিককে হত্যা করেছে, এখনও ১৫ সাংবাদিককে জেলে রেখে দিয়েছে।

হামাসের পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান খালেদ মাশয়াল আরও বলেন, আল-আকসা মসজিদের ওপর কর্তৃত্ব করতে ইহুদিবাদী ইসরাইল এখন নানা ব্যাখ্যা দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে। তারা প্রার্থনাস্থল সবার জন্য উন্মুক্ত করার কথা বলছে। ইউরোপের কোনো কোনো রাজনীতিবিদও তাদের কথার পুনরাবৃত্তি করছেন। কিন্তু এসব বক্তব্য বিভ্রান্তিকর। কারণ আল-আকসা মসজিদ হচ্ছে কেবলি ইসলাম ধর্মের এবাদতের স্থান। এখানে ইহুদিবাদীদের কোনো অধিকার নেই।

 হামাসের এই প্রভাবশালী নেতা বলেন, এবার রমজানের মধ্যে যখনি ইহুদিদের উৎসবের সময় এসেছে তখনি তারা আল-আকসা মসজিদ নিয়ে একটা যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি করেছে। তারা ইহুদিদের উৎসব উপলক্ষে আল-আকসা মসজিদের প্রাঙ্গণে পশু জবাইয়ের মাধ্যমে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার অপচেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু ফিলিস্তিনি সংগ্রামীরা সাহসিকতা ও দৃঢ়তার সঙ্গে তাদেরকে পিছু হটতে বাধ্য করেছে। তবে দখলদার ইসরাইলের ষড়যন্ত্রের ইতি ঘটেনি। আগামী উৎসবগুলোতেও তারা একই চেষ্টা চালাবে। এই ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকতে হবে।

শত্রুদের পরাস্ত করতে সব ফিলিস্তিনিকে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান খালেদ মাশয়াল।#

পার্সটুডে/এসএ/১৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ