মে ২৪, ২০২২ ০৬:১৩ Asia/Dhaka
  • আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের কর্মকর্তা কর্নেল হাসান সাইয়্যাদ খোদায়ী
    আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের কর্মকর্তা কর্নেল হাসান সাইয়্যাদ খোদায়ী

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের একজন কর্নেলকে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো। এই হত্যাকাণ্ডকে ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব ফাতহি শাকাকির হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তুলনা করেছে এসব সংগঠন।

আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের কর্মকর্তা কর্নেল হাসান সাইয়্যাদ খোদায়ীকে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা রোববার বিকেলে তার বাসভবনের সামনে গুলি করে হত্যা করে। দু’জন অজ্ঞাত মোটরসাইকেল আরোহী নিরস্ত্র ও বেসামরিক পোশাক পরিহিত কর্নেল খোদায়িকে পাঁচ রাউন্ড গুলি করে পালিয়ে যায়।

ইরান এ হত্যাকাণ্ডের জন্য ইহুদিবাদী ইসরাইলকে দায়ী করেছে এবং এর প্রতিশোধ নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে। এছাড়া, হত্যাকাণ্ডে সরাসরি জড়িত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে তাদেরকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হবে বলেও কর্মকর্তারা ঘোষণা দিয়েছেন।

কর্নেল খোদায়িকে তার গাড়ির ড্রাইভিং সিটে গুলি করে হত্যা করে ঘাতকরা

ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলন গতকাল (সোমবার) এক বিবৃতিতে বলেছে, কর্নেল খোদায়ির হত্যাকাণ্ড ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ নেতা ফাতহি শাকাকির হত্যাকাণ্ডকে স্মরণ করিয়ে দেয়।

শাকাকি ১৯৯৫ সালের ২৬ অক্টোবর মাল্টা সফরে গিয়ে ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের গুপ্তচরদের হামলায় নিহত হন। মাল্টার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় উপকূলীয় শহর স্লিমায় শাকাকিকে তার হোটেলের সামনে দুই অজ্ঞাত বন্দুকধারী ছয় রাউন্ড গুলি করে পালিয়ে গিয়েছিল।

ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব ফাতহি শাকাকি

ইসলামি জিহাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইহুদিবাদী শত্রুরা ভেবেছিল ফাতহি শাকাকিকে হত্যা করে তারা প্রতিরোধ আন্দোলনকে স্তব্ধ করে দিতে পারবে। কিন্তু বাস্তবে শাকাকিসহ আরো অসংখ্য শহীদের তাজা রক্তের বিনিময়ে ইসরাইল বিরোধী প্রতিরোধ আন্দোলনের চারাগাছ এখন বিশাল মহীরুহে পরিণত হয়েছে।

ইসলামি জিহাদের পাশাপাশি ফিলিস্তিনের মুজাহিদিন আন্দোলনও এক বিবৃতিতে কর্নেল খোদায়ির হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “আমরা ইহুদিবাদী গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হামলায় আইআরজিসি’র কর্মকর্তা হাসান সাইয়্যাদ খোদায়ির হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।”#

পার্সটুডে/এমএমআই/২৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ