মে ২৭, ২০২২ ০৬:৫৬ Asia/Dhaka
  • ইরাকি পার্লামেন্টে আইন পাস: ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন নিষিদ্ধ

ইরাকের পার্লামেন্টে সর্বসম্মতিক্রমে এমন একটি আইন পাস করা হয়েছে যার ফলে দেশটির কোনো সরকার কোনোদিন ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবে না। ওই আইনে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনকে ‘অপরাধ’ হিসেবে গণ্য করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার স্পিকার মোহাম্মাদ আল-হালবুসির সভাপতিত্বে ইরাকি পার্লামেন্টের অধিবেশনে ‘ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন নিষিদ্ধ’ শিরোনামে একটি বিল উত্থাপন করা হয়। বিলটির উল্লেখযোগ্য একটি ধারা হচ্ছে, ইসরাইলের সঙ্গে রাজনৈতিক, নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক, প্রযুক্তিগত, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ও বিজ্ঞানগত সহযোগিতা নিষিদ্ধ। বিলটি পাস হওয়ার পর ইরাকি সংসদ সদস্যরা পার্লামেন্টের ভেতরে ইসরাইল বিরোধী স্লোগান দেন।

ইরাকের প্রখ্যাত শিয়া রাজনৈতিক নেতা মোক্তাদা সাদর

বিলটির ওপর ভোটাভুটির আগে ইরাকের প্রখ্যাত শিয়া রাজনৈতিক নেতা মোক্তাদা সাদরের একটি বাণী পড়ে শোনানো হয়।ওই বাণীতে তিনি বিলটির পক্ষে ভোট দেয়ার জন্য ইরাকি সংসদ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান। বিলটি প্রস্তুতের সঙ্গে জড়িত সকলকে তিনি ধন্যবাদ জানান।

মানবতার শত্রু ইসরাইলের সঙ্গে দুই বছর আগে চারটি আরব ও মুসলিম দেশ সম্পর্ক স্থাপন করার পর ইরাক সরকারও যাতে একই পথ অনুসরণ করতে না পারে সেজন্য ইরাকের পার্লামেন্ট এই ব্যবস্থা নিল।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে আমেরিকার মধ্যস্থতায় ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। এই দুই দেশকে অনুসরণ করে মরক্কো ও সুদানও দখলদার ইসরাইলকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ফিলিস্তিনি জনগণ চার মুসলিম দেশের এই আচরণকে তাদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা ও পিঠে ছুরি মারার সমতুল্য বলে অভিহিত করেছে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২৭

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ