অক্টোবর ০৫, ২০২২ ২১:২২ Asia/Dhaka
  • অক্টোবরের যুদ্ধে আমাদের ২ হাজার ৬৮৮ সেনা প্রাণ হারায়: ইসরাইল

১৯৭৩ সালের অক্টোবর মাসের যুদ্ধে ইহুদিবাদী ইসরাইলের দুই হাজার ৬৮৮ সেনা নিহত এবং দেড়শ' ট্যাংক ধ্বংস হয়। এ তথ্য প্রকাশ করেছে ইহুদিবাদী ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে অক্টোবরের যুদ্ধের বার্ষিকী উপলক্ষে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য তুলে ধরার পর বলা হয়েছে, ১৯৭৩ সালের যুদ্ধটি ছিল অতর্কিত। সেই যুদ্ধে বড় ক্ষতির শিকার হয় ইসরাইল। রিজার্ভ সেনাদেরকে প্রস্তুত করার জন্য যথেষ্ট সময় পাওয়া যায়নি।

এই বিবৃতিতে আরও বলা হয়- মিশর ও সিরিয়া প্রথমে সুয়েজ খাল অতিক্রম এবং পূর্ব অংশজুড়ে সেনা মোতায়েন করার মতো কিছু সাফল্য পেলেও ইসরাইলি বাহিনী দ্রুতই পরিস্থিতি পাল্টে দিতে সক্ষম হয়।

এছাড়া, ইহুদিবাদী ইসরাইলের দৈনিক হারেৎজ তাদের সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অব স্টাফের দপ্তরের কিছু সনদের বরাত দিয়ে ১৯৭৩ সালের যুদ্ধের বিষয়ে কিছু তথ্য প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি জানিয়েছে, ঐ যুদ্ধের সময় ইসরাইলি সেনারা হতাশ হয়ে পড়েছিল।

১৯৭৩ সালের অক্টোবরে মিশর ও সিরিয়ার সেনাবাহিনী আরও কয়েকটি আরব দেশের সহযোগিতায় সুয়েজ খালের পূর্বাঞ্চলে এবং গোলান মালভূমিতে ইসরাইলি অবস্থানগুলোতে ব্যাপক আক্রমণ শুরু করে।

১৮ দিন ধরে যুদ্ধ চলার পর জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ৩৩৮ নম্বর ইশতেহার পাশের মধ্যদিয়ে এর ইতি ঘটে। এর ছয় বছর আগে ছয় দিনের যুদ্ধে ইসরাইল যেসব এলাকা দখল করেছিল সেসব এলাকায় ইসরাইলি অবস্থানে আঘাত হানা হয়। এই যুদ্ধের মাধ্যমে গোলান মালভূমির মোট এক হাজার ৮৬০ বর্গকিলোমিটার এলাকার মধ্যে ৬০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছিল।

এই যুদ্ধটি ইয়াউম কিপুর যুদ্ধ এবং রমজানের যুদ্ধ নামেও পরিচিত।#  

পার্সটুডে/এসএ/৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ