২০১৯-০৯-১৪ ২১:০৮ বাংলাদেশ সময়
  • এমপি আহমদ আল-আসাদি
    এমপি আহমদ আল-আসাদি

ইরাকের একজন প্রভাবশালী সংসদ সদস্য বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের সাম্প্রতিক ড্রোন হামলার জবাব দেয়ার জন্য বাগদাদের সামনের সব পথ খোলা রয়েছে।

সম্প্রতি ইরাকের পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিট বা হাশ্‌দ আশ-শাবির ওপর ইসরাইল হামলা চালায় যাতে বেশকিছু হতাহতের ঘটনা ঘটে। লেবাননের আল-মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেলকে আজ (শনিবার) দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সংসদ সদস্য ও ইরাকের ফাতাহ জোটের মুখপাত্র আহমদ আল-আসাদি বলেন, ইসরাইলের হামলা ছিল অবশ্যই ইরাকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা।

তিনি বলেন, বাগদাদ ইসরাইলকে একটি দখলদার শক্তি হিসেবে দেখে এবং শত্রু মনে করে। কোন চুক্তি দিয়ে অবৈধ এ শক্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধ থামানো যাবে না। সংসদ সদস্য আল-আসাদি বলেন, সরকারপন্থী পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিট ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর অংশ এবং ইসরাইলের বিরুদ্ধে যে জবাব আমরা দেবো তাতে অবশ্যই তাদের অংশগ্রহণ থাকবে।

ইসরাইলের এফ-১৬ বিমান

আল-আসাদি আরো জানান, পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটকে উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে এবং ইরাকের আকাশকে নিরাপদ রাখার জন্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা কিনতে তারা রাশিয়া, চীন এবং ইরানের সাথে আলোচনা চালাচ্ছে। সম্প্রতি পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের উপরে ইহুদিবাদী ইসরাইল বেশ কয়েকবার হামলা চালিয়েছে। হামলার কথা ইসরাইল আকারে ইঙ্গিতে স্বীকার করেছে আর আমেরিকা এবং ইউরোপের কর্মকর্তারা ইসরাইলের হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আল-আসাদি বলেন, ড্রোন হামলার ব্যাপারে যে তদন্ত হয়েছে তাতে পরিষ্কার হয়ে গেছে যে, আমেরিকার চোখের সামনে দিয়ে ইসরাইলি হামলা চালিয়েছে। এ অবস্থায় ইরাকে বিদেশি সেনা অবস্থানের বিষয়টি নিয়ে জাতীয় সংসদ আলোচনা করছে। তিনি জানান, ইরাকে যে আমেরিকার সেনা উপদেষ্টার কাজ করছেন তাদের পরিবর্তে রাশিয়া, চীন অথবা ইউরোপ কিংবা লাতিন আমেরিকার দেশ থেকে সেনা মোতায়েন করা হতে পারে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৪

ট্যাগ

মন্তব্য