জানুয়ারি ১৭, ২০২০ ০৭:৪৯ Asia/Dhaka
  • এস-৪০০
    এস-৪০০

রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ব্যাপারে বাগদাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকির কথা নাকচ করেছেন ইরাকের জাতীয় সংসদের একজন সদস্য। তিনি বলেছেন, এই ধরনের চাপ বাস্তবতার ধারে কাছেও নেই।

ইরাকের নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য আলী আল-গানমি আরবি ভাষার পত্রিকা বাগদাদ টুডে-কে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ইরাকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে হলে আমেরিকার সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী সংস্থার অনুমোদন লাগবে। তিনি বলেন, রাশিয়া থেকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনলেন বাগদাদের ওপর বাহ্যত  নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হতে পারে কিন্তু বাস্তবে তা কার্যকর হবে না।

ইরাকের তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী আদিল আবদুল মাহদি

আলী আল গানমি বলেন, সংবিধান অনুসারে ইরাক অস্ত্রশস্ত্র কেনার ব্যাপারে স্বাধীন এবং প্রয়োজনের সময় যেকোনো ধরনের সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারে। তিনি জানান, রাশিয়া থেকে এস-ফোর হান্ড্রেড কিনলে রাশিয়ার তত্ত্বাবধান প্রয়োজন হবে এবং ইরাকি সেনা সদস্যদেরকে রাশিয়ার পক্ষ থেকে প্রশিক্ষণ দেয়ার প্রয়োজন থাকবে।

গত ১০ জানুয়ারি ইরাকের কয়েকজন সংসদ সদস্য জানান যে, ইরাক সরকার রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বাগদাদকে ওয়াশিংটন সামরিক সহায়তা দেয়া বন্ধ করতে পারে এমন উদ্বেগ থেকে ইরাক সরকার এ চিন্তা করছে।

এস-৪০০

ইরাকের একজন সংসদ সদস্য জানিয়েছেন, এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র কেনার বিষয়ে রাশিয়ার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চলছে তবে এখনো কোনো চুক্তি হয় নি। ইরাকের কোনো কোনো সংসদ সদস্য বলছেন যে, প্রয়োজনীয় অস্ত্র সরবরাহের ব্যাপারে আমেরিকা বাগদাদকে বারবার হতাশ করার কারণে তারা রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার চেষ্টা চালাচ্ছেন। ইরাকের নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটির আরেক সদস্য বলেন, "আমরা প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার বিষয়ে পূর্ণ কর্তৃত্ব দিয়েছি এবং বলেছি যে, রাশিয়া অথবা অন্য যে দেশ থেকে সম্ভব সেখান থেকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ব্যবস্থা করুন।"#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৭

ট্যাগ

মন্তব্য