মে ১৬, ২০২০ ১৬:৫৬ Asia/Dhaka
  • আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি (বামে) ও সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান
    আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি (বামে) ও সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান

করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে দীর্ঘ লকডাউনের কারণে সৌদি আরব মারাত্মকভাবে অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। এ অবস্থায় দেশটিতে আশ্রয় নেয়া ইয়েমেনের পলাতক সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মানুসর হাদি সরকারের কর্মকর্তাদেরকে দেশে ফিরে যাওয়ার কথা বলেছে রিয়াদ। এসমস্ত কর্মকর্তাকে সৌদি আরব এতদিন যে অর্থনৈতিক সমর্থন দিয়ে আসছিল তাও বন্ধ করে দেবে বলে জানিয়েছে।

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকট এবং তেলের দাম মারাত্মকভাবে পড়ে যাওয়ায় সৌদি আরব এই অবস্থান নিয়েছে। হাদি সরকারের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে আরাবি-২১ নিউজ ওয়েবসাইট গতকাল (শুক্রবার) জানিয়েছে, সৌদি সরকার এরইমধ্যে প্রেসিডেন্ট মানসুর হাদি ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়কে তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই সূত্র জানিয়েছে, সৌদি আরবের এই সিদ্ধান্তের আওতায় প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের কর্মকর্তারা এবং উপপ্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা পড়বেন। সূত্রটি দাবি করছে, হাদি সরকারের সমস্ত কর্মকর্তা সৌদি অর্থের উপর নির্ভরশীল নয় বরং অনেকেই নিজেদের খরচ সৌদি আরবে থাকেন।

গত ১৩ মে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ডকুমেন্ট থেকে জানা গেছে, সৌদি আরব মানসুর হাদি সরকারের কর্মকর্তাদেরকে জানিয়ে দিয়েছে যে, মে মাস পর্যন্ত তারা অর্থ পাবেন। এরপর যারা সৌদি আরব থাকতে চাইবেন তাদেরকে নিজেদের খরচে থাকতে হবে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৬

ট্যাগ