জানুয়ারি ১০, ২০২১ ০৬:২৭ Asia/Dhaka
  • ‘আমেরিকা ৪ বছর লেবাননে ক্যাপিটল ভবনের মতো ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করেছে’

আমেরিকার ক্যাপিটল ভবনে গত বুধবার যে নজিরবিহীন হামলার ঘটনা ঘটেছে সেরকম ঘটনা লেবাননে ঘটানোর জন্য মার্কিন সরকার গত চার বছর ধরে চেষ্টা চালিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ।

তিনি লেবাননের আল-মানার টিভি চ্যানেলে সম্প্রচারিত এক ভাষণে এ মন্তব্য করেন। সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, আমেরিকায় গণতন্ত্রের নামে প্রকৃতপক্ষে কি হয় তা বিশ্ববাসীর সামনে প্রকাশিত হয়ে পড়ার প্রয়োজন ছিল। ক্যাপিটল ভবনে ট্রাম্প সমর্থকদের নগ্ন হামলায় তাদের কথিত গণতন্ত্রের স্বরূপ উন্মোচিত হয়ে পড়েছে।

বুধবার ক্যাপিটল ভবনে মার্কিন সিনেট এবং প্রতিনিধি পরিষদের যৌথ অধিবেশন বসে যেখানে জো বাইডেনের বিজয় নিশ্চিত করার জন্য ইলেক্টোরাল ভোটের আনুষ্ঠানিক গণনা করা হয়। সে সময় বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা মার্কিন কংগ্রেসে হামলা চালায় এবং তাতে অন্তত পাঁচজন নিহত হয়। এছাড়া ট্রাম্প সমর্থকরা ক্যাপিটাল ভবনে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটতরাজ চালায়। এ ঘটনাকে সমর্থন করে ট্রাম্প নিজেই টুইটার ও ফেইসবুকে পোস্ট দেন। তিনি দাঙ্গাকারীদেরকে ‘দেশপ্রেমিক’ বলে অভিহিত করেন।

লেবাননের হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, “আমরা ট্রাম্পের নীতির ব্যাপারে বহুবার সতর্ক করে দিয়েছি কিন্তু মার্কিন কর্মকর্তারা আমাদের কথায় কান দেননি। তারা এখন বুঝতে পেরেছেন। কিন্তু আমরা আগে থেকেই ট্রাম্পের কাছ থেকে এই ধরনের আচরণ দেখতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছি। ইয়েমেন, সিরিয়া, ইরাক ও ফিলিস্তিনে এবং ইরান ও ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘটনায় ট্রাম্পের যে চরিত্র ধরা পড়েছে ক্যাপিটল ভবনে হামলায় তার উসকানি একই চরিত্রের ফসল।”

সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, আমেরিকার পরমাণু অস্ত্রের বোতাম এখন এমন এক ব্যক্তির হাতে রয়েছে যে অহংকারী ও পাগল। তিনি এ বিষয়ে সতর্ক থাকার জন্য আমেরিকার নীতি নির্ধারকদের প্রতি আহ্বান জানান। #

পার্সটুডে/এমএমআই/১০

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ