ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১ ১৯:৫০ Asia/Dhaka
  • দায়েশ সন্ত্রাসীদের ফাইল ফটো
    দায়েশ সন্ত্রাসীদের ফাইল ফটো

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান ইবরাহিম রায়িসি বলেছেন, যখন ইরান, ইরাক এবং সিরিয়াসহ অন্য প্রতিবেশী দেশ মিলে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে নির্মূল অভিযান চালাচ্ছে তখন সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী লড়াইয়ের নামে আমেরিকা উগ্র এ তাকফিরি গোষ্ঠীকে ইরাক এবং সিরিয়ার ঘাঁটিগুলো থেকে অন্য স্থানে পুনর্বাসিত করছে।

রায়িসি বলেন, “আমেরিকা দায়েশের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের দাবি করছে এবং এজন্য তারা একটি জোট গঠনের কথাও জানিয়েছে কিন্তু আমরা শুধুমাত্র দেখছি যে, তারা অস্ত্র, রসদ, গোয়েন্দা তথ্য এবং অন্যান্য সরঞ্জাম যোগান দিয়ে দায়েশকে শক্তিশালী করছে।”

ইরাকের প্রেসিডেন্ট বাহরাম সালিহর সঙ্গে গতকাল (বুধবার) রাজধানী বাগদাদে এক বৈঠকে এসব কথা বলেছেন ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান। উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর দায়েশের বিরুদ্ধে ইরাক এবং ইরানের যৌথ লড়াইয়ের প্রশংসা করে ইবরাহিম রায়িসি বলেন, দুই ভ্রাতৃপ্রতিম প্রতিবেশীর মধ্যে সংহতি এবং সহযোগিতার প্রকৃত উদাহরণ হচ্ছে এই লড়াই।

ইরাকের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ইবরাহিম রায়িসির বৈঠক

ইরাকি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকে ইবরাহিম রায়িসি ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও ইরাকের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাশদ আশ-শাবির সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহদি আল-মুহান্দিসের হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তদন্ত জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

বৈঠকে ইরাকের প্রেসিডেন্ট বাহরাম সালিহ বলেন, ইরানের বিচার বিভাগের প্রধানের বাগদাদ সফর  ইরাকের জনগণ এবং পুরো অঞ্চলের জন্য নানা আঙ্গিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ বার্তা বহন করছে।

তিনি বলেন, দুই ভ্রাতৃপ্রতিম প্রতিবেশী দেশ ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা জোরদার করছে এবং এ ব্যাপারে বড় ধরনের সাফল্য অর্জন করেছে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১১

ট্যাগ