মার্চ ০৫, ২০২১ ১৫:২৭ Asia/Dhaka
  • খালেদ আবু আরাফা (বামে) এবং শেখ রায়েদ সালাহ’
    খালেদ আবু আরাফা (বামে) এবং শেখ রায়েদ সালাহ’

ইহুদিবাদী ইসরাইল বিনা বিচারে দু’জন ফিলিস্তিনি কর্মকর্তার আটকাদেশ বাড়িয়েছে। কথিত প্রশাসনিক আটকাদেশ আইনের আওতায় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে যে আইনে ফিলিস্তিনি বন্দিদেরকে বিনা বিচারে অনির্দিষ্টকালের জন্য আটক রাখা যায়।

ফিলিস্তিনি তথ্য কেন্দ্র জানিয়েছে, ইসরাইলের একটি আদালত ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা শেখ রায়েদ সালাহ’র আটকাদেশ ছয় মাসের জন্য বাড়িয়েছে। তার আইনজীবী খালেদ জাবারকা জানিয়েছেন, রায়েদ সালাহকে গত ছয় মাস ধরে নির্জন সেলে রাখা হয়েছে এবং নতুন করে আরো ছয় মাসের আটকাদেশ দেয়ায় তাকে টানা এক বছর নির্জন সেলে কাটাতে হবে।

জাবারকা বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল সালাহকে নিছক তার ধর্মীয় বিশ্বাস ও মতাদর্শের কারণে আটক করেছে। তার বিরুদ্ধে কোনো ধরনের ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগ আনা সম্ভব হয়নি।

ইসরাইলের আরেকটি আদালত ফিলিস্তিনের সাবেক কুদস বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আবু আরাফার আটকাদেশও চার মাসের জন্য বাড়িয়েছে।  ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা শিন বেত ৫৯ বছর বয়সি আবু আরাফাকে গত বছরের নভেম্বরে পশ্চিম তীরের রামাল্লা থেকে আটক করা হয়। এরপর তাকে বিনা বিচারে চার মাসের আটকাদেশ দেয়া হয় যা শিগগিরই শেষ হতে যাচ্ছে। তবে সে আটকাদেশ শেষ হওয়ার পর তার আটকের মেয়াদ আরো চারমাসের জন্য বাড়ানো হলো। #

পার্সটুডে/এমএমআই/৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।  

 

ট্যাগ