মে ১৬, ২০২১ ০৪:৩৮ Asia/Dhaka
  • হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ও সাবেক ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া
    হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ও সাবেক ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস বলেছে, গাজা উপত্যকার আশ-শাতি শরণার্থী শিবিরে ইহুদিবাদী ইসরাইল যে গণহত্যা চালিয়েছে তার ফলে ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের মোকাবিলায় তেল আবিবের পরাজয় ও অক্ষমতা ফুটে উঠেছে। হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ও সাবেক ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া শনিবার বিকেলে গাজায় এক বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের বীরোচিত ও বিস্ময়কর প্রতিরোধের মোকাবিলায় ইহুদিবাদী ইসরাইল যে কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েছে শরণার্থী শিবিরের নিরীহ মানুষের উপর হামলা চালিয়ে সেকথা জানান দিয়েছে দখলদাররা।  

হানিয়া বলেন, “বেসামরিক নাগরিকদের উপর হামলার সব দায়দায়িত্ব বর্বর ইসরাইলকে নিতে হবে। আমরা ঘোষণা করছি, ফিলিস্তিনি জাতির প্রতিরোধ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে এবং আমরা বিজয়ী হবোই।”

ইসরাইলের দিকে তাক করা হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র

শনিবার ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার শাতি শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি জঙ্গিবিমানের হামলায় আট শিশুসহ ১০ জন শাহাদাৎবরণ করেন।  হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, এই বর্বর হামলায় অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

গাজার আশ-শিফা হাসপাতালের চিকিৎসক নাবিল আবু আর-রিশ বলেছেন, আহতদের মধ্যে একটি নবজাতকও রয়েছে। তিনি বলেন, এটা শতভাগ গণহত্যা।  ইসরাইলি হামলা প্রসঙ্গে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, কোনো ধরণের পূর্ব সতর্কতা ছাড়াই সেখানে বোমাবর্ষণ করা হয়েছে। ভবনটিকে পুরোপুরি মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে।  গাজায় গত কয়েক দিনের ইসরাইলি হামলায় এ পর্যন্ত ১৩৯ জন শহীদ হয়েছেন।  এর মধ্যে ২২ নারী ও ৩৯ শিশু রয়েছে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ