আগস্ট ০৬, ২০২২ ১৮:০২ Asia/Dhaka
  • 'তেল ব্যবসায়ীরা এক রাতেই কোটিপতি হয়ে গেল'

সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা: রেডিও তেহরানের প্রাত্যহিক আয়োজন কথাবার্তার আসরে স্বাগত জানাচ্ছি আমি বাবুল আখতার। আশা করছি আপনারা প্রত্যেকে ভালো আছেন। আজ ৬ আগস্ট শনিবারের কথাবার্তার আসরের শুরুতে ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম তুলে ধরছি।

বাংলাদেশের শিরোনাম:

  • কিলোমিটারে বাসভাড়া বাড়তে পারে ২৯ আর লঞ্চে ৪২ পয়সা’-দৈনিক প্রথম আলো
  • জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীতে জামায়াতের বিক্ষোভ-মানবজমিন
  • একের পর এক মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণ দিশাহারা : মির্জা ফখরুল- দৈনিক নয়া দিগন্ত
  • তেল ব্যবসায়ীরা এক রাতেই কোটিপতি হয়ে গেল'-যুগান্তর
  • জ্বালানি সাশ্রয় ও যানজট রোধে পৃথক সাইকেল লেন বাস্তবায়নের দাবি-কালের কণ্ঠ

ভারতের শিরোনাম:

  • সংশোধনাগারে ঢোকার সময় ‘কয়েদি’ পার্থ মুখ নামিয়ে বললেন, এ জীবনে আর কী আছে!-আনন্দবাজার
  • সন্ত্রাসবাদ বরদাস্ত নয়’, এসসিও বৈঠকে স্পষ্ট বার্তা ভারতের-দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন
  • SSC নিয়োগ: জট খোলার চেষ্টায় অভিষেক, কেন পরিস্থিতি জটিল করছেন? বিরোধীদের প্রশ্ন কুণালের- দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন

এবারে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি খবরের বিস্তারিত

কিলোমিটারে বাসভাড়া বাড়তে পারে ২৯ আর লঞ্চে ৪২ পয়সা’-দৈনিক প্রথম আলো

রেকর্ড হারে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর বাস ও লঞ্চে ভাড়ার পরিমাণ কত বাড়তে পারে, তার একটি ধারণা দিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়। আজ শনিবার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, প্রতি কিলোমিটারে বাসভাড়া সর্বোচ্চ ২৯ পয়সা আর লঞ্চে ৪২ পয়সা বাড়তে পারে।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বর্তমানে দূরপাল্লার বাসে (৫২ আসনের) প্রতি কিলোমিটারে প্রত্যেক যাত্রীর ভাড়া ১ টাকা ৮০ পয়সা। ডিজেলে দাম লিটারপ্রতি ৩৪ টাকা বাড়ানোয় প্রতি কিলোমিটারে ২৯ পয়সা বেড়ে এই ভাড়া হবে ২ টাকার মতো। প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বাড়ছে ১৬ দশমিক ২২ শতাংশ।

জ্বালানি সাশ্রয় ও যানজট রোধে পৃথক সাইকেল লেন বাস্তবায়নের দাবি-কালের কণ্ঠ

পর্বতারোহী সাইক্লিস্ট রেশমা নাহার রত্নার ঘাতকের বিচার দাবি ও সাইকেলের জন্য রাস্তায় আলাদা লেন নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও সমমনা ছয়টি সংগঠন।  

আজ শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় রাজধানীর শাহবাগে ‌জাতীয় জাদুঘরের সামনে ‘পর্বতারোহী ও সাইক্লিস্ট রেশমা নাহার রত্না হত্যাকাণ্ডের বিচার এবং জ্বালানি সাশ্রয় ও যানজট রোধে পৃথক সাইকেল লেন বাস্তবায়ন চাই’ শীর্ষক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।  

মানববন্ধনে রত্না হত্যাকাণ্ডের বিচার, অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতসহ সাইক্লিস্টদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৯টি সুপারিশ জানায় তারা। তাদের সুপারিশগুলো হলো―সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দ্রুত রত্না হত্যার বিচারকাজ সম্পন্ন করে অপরাধীর কঠোরতম শাস্তির ব্যবস্থা করা; সম্পূর্ণ সাইকেল নেটওয়ার্ক তৈরি করা, যেমন―বাসা থেকে কর্মস্থল বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যন্ত করতে হবে; সাইকেলবান্ধব অবকাঠামো তৈরি করা; সাইকেল আরোহীদের আরো সচেতনভাবে সাইকেল চালানোর জন্য সতর্ক করা এবং নিয়ম মেনে সাইকেল চালাতে উৎসাহিত করা

একের পর এক মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণ দিশাহারা : মির্জা ফখরুল- দৈনিক নয়া দিগন্ত

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বার বার জ্বালানি তেল, ভোজ্য তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ পানির মূল্য বাড়ানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মানুষের প্রতি অত্যাচার শুরু করেছে। একের পর এক মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণ আজ দিশাহারা।তিনি বলেন, এই সরকার আজ দানবে পরিণত হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারকে হটানো আজ সবার জন্য দায়িত্ব হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো: নূরে আলম হত্যার প্রতিবাদে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ আয়োজিত ছাত্রসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তেল ব্যবসায়ীরা এক রাতেই কোটিপতি হয়ে গেল'-যুগান্তর: 

জ্বালানি তেলের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়া নিয়ে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষ।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর বসুন্ধরা গেট এলাকায় রাজিব নামের একজন পাঠাও রাইডার বলেন, জ্বালানি তেলের দামের কারণে এখন সবকিছুরই দাম বেড়ে যাবে। একটা গণতান্ত্রিক দেশে এভাবে হুট করে বেড়ে যাবে এটা মেনে নেয়া যায় না। তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, আপনি আমার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইছেন। কি প্রতিক্রিয়া দেব বলেন? খুশিতে তো আত্মহত্যা করতে ইচ্ছে করছে। তিনি বলেন, সবকিছুর দাম দিনে দিনে বাড়বে এটা স্বাভাবিক। কিন্তু রাতারাতি জ্বালানি তেলের দাম এভাবে বেড়ে যাওয়ায় তেল ব্যবসায়ীরা তো এক রাতেই কোটিপতি হয়ে গেল। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক বাইকার বলেন, একটা গণতান্ত্রিক দেশে এভাবে সবকিছু হয়ে যাচ্ছে। আমরা মেনে নিচ্ছি, মেনে নিতে বাধ্য হচ্ছি। এভাবে দেশ চলতে পারে না।

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীতে জামায়াতের বিক্ষোভ​​​​​​​-মানবজমিন

জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ও অবিলম্বে বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগর উত্তর। শনিবার দুপুরে এ বিক্ষোভ মিছিল করে তারা। বিক্ষোভ মিছিলটি শ্যামলী বাস স্টেশন থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিশু মেলার সামনে এসে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। 

সমাবেশে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, সরকার দেশের অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্যেই নিজেদের লাগামহীন দুর্নীতি ও লুটপাট অব্যাহত রাখার জন্যই অস্বাভাবিকভাবে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি করেছে। সরকার অতীতে দেশের বিদ্যুৎ ঘাটতি পূরণের কথা বলে কুইক রেন্টালের নামে ৭০ হাজার কোটি টাকা গচ্ছা প্রদান করলেও দেশে এখন লোডশেডিং-এর মহোৎসব চলছে। তিনি অবিলম্বে সরকারকে কাণ্ডজ্ঞানহীন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে জ্বালানির দাম স্থিতিশীল রাখার আহবান জানান। 

সংশোধনাগারে ঢোকার সময় ‘কয়েদি’ পার্থ মুখ নামিয়ে বললেন, এ জীবনে আর কী আছে!-আনন্দবাজার

ঠিকানা প্রেসিডেন্সি জেল। তাতে সম্বল কম্বল আর টেবিল ফ্যানের হাওয়া। আগামী ১৪ দিন এখানেই থাকতে হবে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। জানার পর কোনও অভিযোগই করেননি এককালের দুঁদে নেতা। বরং ভাবলেশহীন ভাবে মেনে নিয়েছেন।

শুক্রবার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর বিশেষ আদালত ১৪ দিনের জন্য জেল হেফাজতে পাঠিয়েছে পার্থকে। এজলাস থেকে বেরিয়ে আর মাথা তোলেননি তিনি। বরং মাথা নামিয়েই এগিয়ে গিয়েছেন আদালতের লিফটের দিকে। এক তৃণমূল কর্মী এসে বলেছিলেন, ‘‘পাশে রয়েছি দাদা। জগন্নাথ রক্ষা করবেন।’’ তৃণমূলের প্রাক্তন মহাসচিব বলে ওঠেন, ‘‘জগন্নাথ প্রভু তো কিছুই করছেন না!’’এর পরেই যেন উত্তরোত্তর বেড়েছে হতাশা। আদালত থেকে প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাওয়া হয় পার্থকে। সেখানে সমস্ত সরকারি প্রক্রিয়া শেষ করেন জেলকর্মীরা। পুরোদস্তুর তল্লাশির পর মেটাল ডিটেক্টরের ভিতর দিয়ে তাঁকে জেলের ভিতর ঢুকতে বলা হয়। তখনই একটা ‘টিং’ করে শব্দ। দাঁড়িয়ে পড়েন হতচকিত পার্থ। জেলের কর্মী জিজ্ঞেস করেন, ‘‘আপনার কাছে কি কিছু রয়েছে?’’ তাঁর দিকে তাকিয়ে নিচু গলায় পার্থের জবাব, ‘‘এ জীবনে আর কী আছে!’’

 বিক্রি হয়ে যাচ্ছে রবীন্দ্রনাথের লন্ডন আবাস! - দৈনিক আজকাল

বিক্রি হয়ে যেতে চলছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিধন্য বাড়ি।

লন্ডনের এই বাড়িতে বসেই তিনি গীতাঞ্জলি’র ইংরেজি অনুবাদ পাঠিয়েছিলেন বন্ধু রদেনস্টাইনের কাছে। বাকিটা ইতিহাস। এশিয়ার প্রথম নোবেল পুরস্কারের আঁতুড়ঘর বলা যায় হ্যাম্পস্টেডের এই বাড়িটিকে।২০১৫ সালে লন্ডনে এসে বাড়িটি দেখে সরকারিভাবে তা কিনে নেওয়ার জন্য ভারত সরকারকে চিঠি লিখেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। কিন্তু নানা আইনগত কারণে তা সম্ভব হয়নি। সম্পত্তিটি ব্যক্তিগত হাতে থাকায় বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বর্তমান মালিক।সাহিত্যপ্রেমী বাঙালি পর্যটকেরা কেউ কেউ লন্ডন গেলে এই বাড়িটি দেখতে যান। কলকাতার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সত্যম রায়চৌধুরী কয়েক বছর আগে ওই বাড়িটির সামনে এক শ্রদ্ধার্ঘ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। নামী শিল্পীরা গানে, কবিতায় ভরিয়ে তুলেছিলেন হ্যাম্পস্টেডের আকাশ বাতাস।

 স্ত্রীদের জিজ্ঞেস করুন কীভাবে সংসার চলছে, মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে BJP বিধায়কদের তোপ বদরুদ্দিনের-দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন

রান্নার তেল থেকে জ্বালানি, নিত্যপ্রয়োজনীয় সব জিনিসেরই দাম আকাশছোঁয়া। এই পরিস্থিতিতে মূল্যবৃদ্ধি ইস্যুতে বিরোধীদের আক্রমণে বেকায়দায় বিজেপি। এবার অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট তথা AIUDF-এর প্রধান বদরুদ্দিন আজমল মোদি সরকারকে কটাক্ষ করে জানালেন, বিজেপি (BJP) নেতাদের পক্ষে আমজনতার সমস্যা বোঝা সম্ভব নয়।

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকেও আক্রমণ করেছেন প্রবীণ সাংসদ। তাঁর কথায়, ”ভারতের অর্থ রয়েছে অর্থমন্ত্রীর কাছে। তিনি কী করে বুঝবেন একজন মানুষকে কেনাকাটা করতে কত খরচ করতে হচ্ছে? মন্ত্রীদের জানা নেই মুদ্রাস্ফীতি (Inflation) কী। বিজেপি সাংসদদের উচিত তাঁদের স্ত্রীদের জিজ্ঞেস করা কীভাবে তাঁরা রান্নাঘর সামলাচ্ছেন। সরকারের উচিত সতর্ক হওয়া। অন্যথায় ২০২৪ সালে মুদ্রাস্ফীতি সরকারকেও গিলে নেবে।”মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে রীতিমতো কোণঠাসা বিজেপি সরকার। এই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাইছে বিরোধীরাও। শুক্রবারই রাজপথে নেমে এসে কংগ্রেস নেতারা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন এই ইস্যুতে। এবার বদরুদ্দিনও খোঁচা দিলেন গেরুয়া শিবিরকে। 

পার্সটুডে/বাবুল আখতার/৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ