মে ১৫, ২০২২ ১৯:২০ Asia/Dhaka
  • ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের সময় পবিত্র আল-আকসা মসজিদে হামলার আগে মসিজিদ কম্পাউন্ড পর্যবেক্ষণ করছে দখলদার ইহুদিবাদী সেনারা
    ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের সময় পবিত্র আল-আকসা মসজিদে হামলার আগে মসিজিদ কম্পাউন্ড পর্যবেক্ষণ করছে দখলদার ইহুদিবাদী সেনারা

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং মুসলিম মিত্র দেশগুলোর মধ্যে বিভক্তি সৃষ্টির জন্য ব্রিটিশ সরকার দীর্ঘদিন ধরে গোপন প্রচারণা চালিয়েছে। সম্প্রতি ফাঁস হওয়া ব্রিটিশ সরকারের গোপন নথি থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

ব্রিটেনের প্রভাবশালী দৈনিক গার্ডিয়ান পত্রিকার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ১৯৫০ এর দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে ১৯৭০ এর দশকের মাঝামঝি পর্যন্ত ব্রিটিশ সরকার ‘ব্ল্যাক প্রোপাগান্ডা' নামে একটি প্রচারণা কর্মসূচির আওতায় রাশিয়া এবং মুসলমানদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্য ভুয়া সংবাদ প্রচার করত। এই কর্মসূচি প্রধানত আফ্রিকার দেশগুলো, মধ্যপ্রাচ্য এবং এশিয়ার কিছু দেশকে লক্ষ্য করে পরিচালিত হয়। সে সময় সোভিয়েত ইউনিয়ন সম্পর্কে রেডিক্যাল ধ্যান-ধারণা প্রচার করত ব্রিটিশ এই সংস্থা।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ব্রিটেন এবং আমেরিকার সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের অবনতি হওয়ার হওয়ার পর রাশিয়ার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর লক্ষ্যে ব্রিটিশ সরকার ইনফরমেশন রিসার্চ ডিপার্টমেন্ট বা আইআরডি প্রতিষ্ঠা করে যা মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ'র সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করতে থাকে।

ব্রিটেনের এই প্রচারণার মূল উদ্দেশ্য ছিল স্নায়ু যুদ্ধের সময় ব্রিটিশ সরকারের শত্রুদেরকে অস্থিতিশীল করার জন্য সেই সব দেশে সহিংসতা উস্কে দেয়া, গোঁড়াবাদি ধ্যান-ধারণাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা সৃষ্টি এবং ইসরাইল বিরোধী বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেয়া।

দৈনিক গার্ডিয়ান বলছে, মস্কো-বিরোধী ব্যাপক প্রচারণার মাধ্যমে মুসলমানদেরকে রাশিয়া বিদ্বেষী করে তোলার বিষয়টিকে প্রামানিক ও সত্য প্রমাণের জন্য মাঝে মধ্যে আইআরডি ইসরাইল বিরোধী প্রচারণাও চালাত।

১৯৭৭ সালে ব্রিটিশ ইনফরমেশন রিসার্চ ডিপার্টমেন্ট বন্ধ হয়ে যায় তবে দেশটির সরকার একই ধরনের অপপ্রচার চালানোর কর্মসূচি পরবর্তী আরও এক দশক অব্যাহত রাখে। ১৯৬৭ সালের ছয়দিনের আরব-ইসরাইল যুদ্ধ নিয়েও রাশিয়ার বিরুদ্ধে তখন অপপ্রচার চালিয়েছে আইআরডি।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৫

ট্যাগ