আগস্ট ০৫, ২০২২ ১৯:০৪ Asia/Dhaka

চীনের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক পদক্ষেপের দায়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি ও তার পরিবারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে চীন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ (শুক্রবার) এক বিবৃতিতে বলেছে, ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ান সফরের মাধ্যমে চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মারাত্মক হস্তক্ষেপের পাশাপাশি চীনের সার্বভৌমত্ব ও ভূখণ্ডগত অখণ্ডতাকে গুরুতরভাবে ক্ষুণ্ণ করেছেন। ঐ বিবৃতিতেই পেলোসি ও তার পরিবারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানানো হয়েছে।

এশিয়া সফরের শেষ পর্যায়ে বর্তমানে জাপানে রয়েছেন পেলোসি। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে তাইওয়ানে পৌঁছান তিনি। পেলোসির এই সফর ঘিরে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। এ জন্য ‘কঠিন পরিণতি’ ভোগ করতে হবে বলে আগে থেকেই হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছিল চীন।

পেলোসির সফরের প্রতিক্রিয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে তাইওয়ানের চারপাশে সামরিক মহড়া শুরু করেছে চীন। আগামী রোববার দুপুর নাগাদ চীনের ছয়টি অঞ্চলে এই মহড়া চলবে। এতে দৃশ্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে তাইওয়ান। ১৯৯৬ সালে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পর সবচেয়ে বৃহত্তম এই মহড়ায় চীনের কয়েক ডজন যুদ্ধবিমান অংশ নিয়েছে এবং ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে। এতে তাইওয়ানের সঙ্গে অন্যান্য দেশের উড়োজাহাজ যোগাযোগও বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ ছাড়া পেলোসির সফরের জেরে তাইওয়ানের বিভিন্ন পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করেছে চীন। তাইওয়ানকে নিজের অবিচ্ছেদ্য ভূখণ্ড মনে করে চীন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মুখে একচীন নীতি অর্থাৎ তাইওয়ানকে চীনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে মেনে চলার কথা বললেও বাস্তবে তাইওয়ানকে নানা ধরণের সামরিক সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে চীন সব সময় গতানুগতিক উদ্বেগ প্রকাশ করলেও এবার পেলোসির সফরে নড়েচড়ে বসেছে।#  

পার্সটুডে/এসএ/৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ