সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২ ১১:০৪ Asia/Dhaka
  • চলমান যুদ্ধে লুহানস্ক ও দোনেস্কেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে
    চলমান যুদ্ধে লুহানস্ক ও দোনেস্কেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দুই প্রজাতন্ত্র লুহানস্ক ও দোনেস্ক রুশ ফেডারেশনে যুক্ত হবে কিনা তা নিয়ে ওই দুই প্রজাতন্ত্রে চলতি মাসেই গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২৩ থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই গণভোট অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা করেছে ওই দুই প্রজাতন্ত্র। লুহানস্ক ও দোনেস্ককে নিয়ে বৃহত্তর দোনবাস অঞ্চল গঠিত হয়েছে।

রাশিয়া গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করার আগে লুহানস্ক ও দোনেস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।তবে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ এখনও ওই দুই প্রজাতন্ত্রকে ইউক্রেনের অংশ বলে মনে করে; যদিও ওই দুই অঞ্চলের ওপর ২০১৪ সাল থেকেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে কিয়েভ। বিগত প্রায় আট বছর ধরে রুশপন্থি অস্ত্রধারীরা দোনেস্ক ও লুহানস্ক নিয়ন্ত্রণ করছে। গতকাল (মঙ্গলবার) ওই দুই প্রজাতন্ত্র নিয়ন্ত্রণকারীরা গণভোটের তারিখ ঘোষণা করেন।

সম্প্রতি লুহানস্ক অঞ্চলের প্রেসিডেন্ট লিওনিদ পাস্কনিক এমন একটি আইনে সই করেন যার ফলে রুশ ফেডারেশনে যুক্ত হওয়ার জন্য তার প্রজাতন্ত্রে গণভোটের আয়োজন করতে বলা হয়।

এরপর দোনেস্ক অঞ্চলের প্রেসিডেন্ট ডেনিস পোশিলিনও একই রকম আইনে স্বাক্ষর করেন। তিনি একইসঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে আনুষ্ঠানিক চিঠি লিখে জানান, দোনেস্ক অঞ্চলের জনগণ যদি রুশ ফেডারেশনে যুক্ত হওয়ার পক্ষে রায় দেয় তাহলে পুতিন যেন এই অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত করে নেন।

এর আগে ২০১৪ সালে ইউক্রেনের ক্রিমিয়া উপদ্বীপের জনগণ এক গণভোটে রুশ ফেডারেশনে যুক্ত হওয়ার পক্ষে ভোট দেয়। ওই ভোটাভুটির জের ধরে ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার অংশ হিসেবে যুক্ত করে নেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ