অক্টোবর ০৪, ২০২২ ১৮:০০ Asia/Dhaka
  • উইলিয়াম ব্রোঞ্জ
    উইলিয়াম ব্রোঞ্জ

মার্কিন কেন্দ্রিয় গোয়েন্দা সংস্থা-সিআইএ-র প্রধান ইরানে সংঘটিত নৈরাজ্যে প্রকাশ্য সমর্থন দেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

মার্কিন টিভি চ্যানেল সিবিএস নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে উইলিয়াম ব্রোঞ্জ প্রকাশ্যে ওই সমর্থন দেওয়ার কথা স্বীকার করলেন। তিনি বলেছেন: একটি সরকার হিসেবে তথ্য প্রবাহের অবাধ স্বাধীনতার প্রতি আমাদের জোরালো সমর্থন অব্যাহত থাকবে।

ইরানের সাম্প্রতিক গোলযোগে সমর্থন দেওয়ার কথা আমেরিকার এই গুরুত্বপূর্ণ সংস্থাটি এমন এক পরিস্থিতিতে প্রকাশ করলো যখন মার্কিন সরকার এবং তাদের গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ'র অন্য দেশের অভ্যন্তরে হস্তক্ষেপ করার ইতিহাস বেশ দীর্ঘ। ১৯৫৩ সালে ইরানে যে অভ্যুত্থান ঘটিয়েছিল সিআইএ সেটাই তাদের অন্য দেশের অভ্যন্তরে হস্তক্ষেপ করার উৎকৃষ্ট প্রমাণ।

গতকাল ইউনিভার্সিটি অব অফিসার অ্যান্ড পুলিশ ট্রেনিং-এ যৌথ শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠানে ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক ও সর্বোচ্চ নেতা হযরত আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী এ বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য রাখার পর সিআইএ প্রধানের স্বীকারোক্তি এলো। সর্বোচ্চ নেতা বলেছিলেন: আমি স্পষ্ট ভাষায় বলছি, এই নৈরাজ্য আমেরিকা, ইহুদিবাদী ইসরাইল এবং তাদের দোসরদের পরিকল্পনাতেই হয়েছে। স্বাধীন ও শক্তিশালী ইরানই তাদের প্রধান সমস্যা। তারা ইরানের অগ্রগতি কিছুতেই সহ্য করতে পারে না। এই নৈরাজ্যের ঘটনায় প্রমাণ হয়েছে ইরানি জাতি খুবই শক্তিশালী। ভবিষ্যতেও যেখানেই প্রয়োজন হবে সেখানেই তারা সাহসিকতা ও বীরত্বের সঙ্গে মাঠে নেমে পড়বে।#

পার্সটুডে/এনএম/৪

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ