২০১৯-০৯-১৮ ১৪:২৪ বাংলাদেশ সময়
  • তুলসি গাব্বার্ড
    তুলসি গাব্বার্ড

মার্কিন কংগ্রেসের নারী সদস্য এবং ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী তুলসি গাব্বার্ড বলেছেন, সৌদি আরবের স্বার্থ রক্ষার ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সাংবিধানিকভাবেই মার্কিন সেনাবাহিনী ব্যবহার করার ক্ষমতা রাখেন না।

সৌদি আরবের আরামকো তেল স্থাপনায় ইয়েমেনি সেনাদের ড্রোন হামলার পর সৌদি স্বার্থ রক্ষার জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে বক্তব্য দিয়েছেন তার জবাবে তুলসি গাব্বার্ড একথা বললেন। তিনি বলেন, সংবিধান সৌদি আরবের স্বার্থ রক্ষার জন্য প্রেসিডেন্টকে এককভাবে সামরিক বাহিনী ব্যবহারের ক্ষমতা দেয় নি। এজন্য তাকে মার্কিন কংগ্রেসের মতামত নিতে হবে।

হাওয়াই থেকে নির্বাচিত মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের ৩৮ বছর বয়সী এই সদস্য দ্যা হিল পত্রিকাকে গতকাল (মঙ্গলবার) এসব কথা বলেছেন। তুলসি গাব্বার্ড সুস্পষ্ট করে বলেন, “আমি যদি এই মুহূর্তে প্রেসিডেন্ট থাকতাম তাহলে আমি পরিষ্কার করে বলতাম যে, সৌদি আরব বা অন্য কোন দেশের স্বার্থ রক্ষার জন্য আমরা আমাদের সামরিক শক্তি ব্যবহার করব না।”

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

 

তুলসি গাব্বার্ড আরো বলেন, ইরান কিংবা অন্য যেকোনো দেশের বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা নেয়ার আগে অবশ্যই সে ব্যাপারে সুস্পষ্ট এবং পরিষ্কার তথ্য হাতে পাওয়া দরকার। এর একদিন আগে তুলসি গাব্বার্ড প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিযুক্ত করে বলেন, মার্কিন সেনাদেরকে তিনি ভাড়াটে সোনায় পরিণত করার চেষ্টা করছেন।

এদিকে, গতকাল রিপাবলিকান সিনেটর জোশ হাউলী ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, সৌদি আরবের উপর যে হামলা হয়েছে তারপর দেশটির স্বার্থ রক্ষার ব্যাপারে যেকোনো পদক্ষেপ নিতে হলে বিচক্ষণতার সাথে নিতে হবে এবং এক্ষেত্রে ধৈর্য ধরার প্রয়োজন রয়েছে। তিনি বলেন সৌদি আরবের পক্ষে আমাদের উচিত হবে না কোন দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করা। জোশ হাউলি বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উচিত এসবের পরিবর্তে বরং আমেরিকার জনগণের বিশেষ করে মধ্যবিত্ত শ্রেণীর জীবনমানের উন্নতির দিকে মনোনিবেশ করা।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৮

ট্যাগ

মন্তব্য