২০১৯-১১-১৪ ১৮:০২ বাংলাদেশ সময়
  • পুতিন ও শি জিনপিং
    পুতিন ও শি জিনপিং

একাধিপত্যবাদী রাজনৈতিক বিশ্বে আন্তর্জাতিক আইন উচ্চে তুলে ধরার জন্য নিজেদের মৈত্রীকে শক্তিশালী করার পরিকল্পনা নিয়েছে চীন এবং রাশিয়া। গতকাল (বুধবার) ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাসিলিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের পর চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এ কথা ঘোষণা করেন।

ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর জোট ব্রিক্সের শীর্ষ সম্মেলনের অবকাশে দুই নেতা এ বৈঠক করেন। বৈঠকে রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে চীনের বর্তমান শক্তিশালী সম্পর্কের প্রশংসা করেন এবং উন্নয়নের জন্য এ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নেয়ার গতি বাড়ানোর আহ্বান জানান।

আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে মৌলিক গুরুত্বপূর্ণ নীতিমালা উচ্চে তুলে ধরা, একাধিপত্যবাদ ও বলদর্পিতার বিরোধিতা করার জন্য মস্কো এবং বেইজিংয়ের মধ্যে সহযোগিতামূলক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান চীনা প্রেসিডেন্ট। একইসঙ্গে তিনি অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করা, তাদের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা রক্ষা এবং যৌথভাবে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর আন্তর্জাতিক পরিবেশ তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ব্রিক্স শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেন ৫ দেশের নেতা

শি জিনপিং বলেন, “নতুন একটি অধ্যায়ের জন্য আমরা যৌথভাবে চীন ও রাশিয়ার মধ্যে সহযোগিতার ক্ষেত্রে পূর্ণাঙ্গ কৌশলগত অংশীদারিত্ব প্রতিষ্ঠা ও দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করব।”

বৈঠকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, চীন-রাশিয়ার বর্তমান সম্পর্ক এবং বাইরের কোনো শক্তি তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারবে না। তিনি বলেন দু'দেশের সম্পর্ক গভীর বন্ধুত্ব, পারস্পরিক আস্থা, ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহযোগিতা, পারস্পরিক লাভজনক অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতার উপর প্রতিষ্ঠিত। প্রেসিডেন্ট পুতিন জোর দিয়ে বলেন, বৈশ্বিক কৌশলগত নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষার ক্ষেত্রে চীন এবং রাশিয়া আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে অভিন্ন ও ঐকমত্য পোষণ করে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৪

ট্যাগ

মন্তব্য