ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯ ০৮:০০ Asia/Dhaka
  • আমেরিকার একটি এমকিউ-৯ ড্রোন (ফাইল ছবি)
    আমেরিকার একটি এমকিউ-৯ ড্রোন (ফাইল ছবি)

আমেরিকার সেনাবাহিনী দাবি করেছে, গতমাসে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির আকাশে একটি মার্কিন ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করেছে রাশিয়া। মার্কিন সেনাবাহিনী তাদের ড্রোনটির ধ্বংসাবশেষ ফেরত দেয়ারও দাবি জানিয়েছে।

গত ২২ নভেম্বর আমেরিকার আফ্রিকা কমান্ড এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, ত্রিপোলির আকাশ থেকে তাদের একটি ড্রোন নিখোঁজ হয়েছে। ত্রিপোলির নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং সেখানকার উগ্র গোষ্ঠীগুলোর তৎপরতা নজরদারি করতে ড্রোনটি ত্রিপোলির আকাশে পাঠানো হয়েছিল বিবৃতিতে দাবি করা হয়।তবে সে সময় ওই বিবৃতিতে ড্রোনটির ভাগ্যে কি ঘটেছে তা না জানিয়ে শুধু বলা হয়, এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু হয়েছে।

গতকাল (শনিবার) মার্কিন সেনাবাহিনীর আফ্রিকা কমান্ডের প্রধান জনোরেল স্টিফেন টাউনসেন্ড বলেন, ত্রিপোলিতে মোতায়েন রুশ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে নিক্ষিপ্ত গুলির আঘাতে ড্রোনটি বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে গুলি করার ময় এটি যে মার্কিন ড্রোন তা ওই ব্যবস্থা বুঝতে পারেনি বলে তিনি নিজের অনুমানের কথা জানান।

জেনারেল টাউনসেন্ড বলেন, কিন্তু ভূপাতিত হওয়ার পর তারা নিশ্চয়ই জেনে গেছে ড্রোনটি কাদের ছিল। তিনি এটির ধ্বংসাবশেষ ফেরত দেয়ার জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানান।

ওই মার্কিন জেনারেল লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলিতে চলমান সহিংসতার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করেন।

২০১১ সালে ন্যাটো জোটের উসকানিতে লিবিয়ায় যে সশস্ত্র গণ-অভ্যুত্থান হয় তাতে ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত হন দেশটির সাবেক একনায়ক মুয়াম্মার গাদ্দাফি। তখন থেকে দেশটিতে সহিংসতা ও নিরাপত্তাহীনতা লেগে আছে। গত এপ্রিলে বিদ্রোহী জেনারেল খালিফা হাফতার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি ত্রিপোলি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য রাজধানী অভিমুখে সামরিক অভিযান শুরু করেন। তিনি এখন পর্যন্ত ত্রিপোলি দখল করতে না পারলেও দু’পক্ষের মধ্যে মাঝেমধ্যেই ব্যাপক সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়।#

পার্সটুডে/এমএমআই/৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য