জানুয়ারি ১৭, ২০২০ ১৬:১৩ Asia/Dhaka
  • ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বিধ্বস্ত আইন আল-আসাদের
    ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বিধ্বস্ত আইন আল-আসাদের

ইরাকে মার্কিন অন্যতম বৃহৎ ঘাঁটি আইন আল-আসাদে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ১১ সেনা আহত হয়েছে বলে আমেরিকার সেনা বাহিনী শেষপর্যন্ত স্বীকার করেছে। ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি'র কুদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে জানুয়ারি মাসের ৩ তারিখে বিমান হামলা চালিয়ে হত্যার জবাবে এ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করেছিল ইরান।

ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার ফাইল ছবি

ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কেউ হতাহত হয় নি বলে প্রথম থেকেই দাবি করেছিল পেন্টাগন। কিন্তু এবারে সে দাবি থেকে সরে এলে আমেরিকা। অবশ্য, মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল উরবান এবারে দাবি করেছেন, ইরানি হামলায় কোনও মার্কিন সেনা নিহত হয় নি। তবে আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে আহত সেনাদের চিকিৎসা এখন চলছে বলেও স্বীকার করেন তিনি। এর আগে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কেউ হতাহত হয় নি বলে পেন্টাগনের দাবির বিষয়ে কোনও কথা বলেন নি এ মুখপাত্র। এদিকে, ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পরই প্রকাশিত কোনও কোনও প্রচার মাধ্যমের খবরে অন্তত ৮০ মার্কিন সেনা নিহত এবং দুইশ' আহত হওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছিল।

ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি হরমুজ(বামে) এবং খালিজে ফার্স(ডানে) ক্ষেপণাস্ত্র

আইন আল-আসাদ এবং আরবিলের একটি মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ১৩টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করেছিল ইরান। আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে প্রায় দেড় হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে। ইরানের কোনও ক্ষেপণাস্ত্রকেই ঠেকাতে পারে নি আমেরিকা। এ ছাড়া, আইআরজিসির ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে আইন আল-আসাদ ঘাঁটির মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা পুরোপুরি বিধ্বস্ত হওয়ায় আমেরিকা সে দিন অন্ধ হয়ে গিয়েছিল বলে এর আগের খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।#  

পার্সটুডে/মূসা রেজা/১৭

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ

মন্তব্য