মে ২৫, ২০২০ ১৮:১৭ Asia/Dhaka

গতকাল (রোববার) ইরানের একটি তেল ট্যাংকার ভেনিজুয়েলার পানিসীমায় প্রবেশ করার পর দেশটির নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ও বিমান বাহিনীর জঙ্গিবিমান সেটাকে স্কর্ট করে ভূভাগের দিকে নিয়ে যায়।

ভেনিজুয়েলা তেলসমৃদ্ধ দেশ হলেও সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির তেল শোধানাগারগুলো অচল হয়ে পড়ার কারণে পরিশোধিত তেলের অভাবে পড়ে দেশটি। এ অবস্থায় সম্প্রতি দু’দেশের ওপর আমেরিকার অবৈধ ও একতরফা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইরানের পাঁচটি তেল ট্যাংকার ভেনিজুয়েলার জন্য পরিশোধিত তেল ও তেলজাত পণ্য নিয়ে দেশটির উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।

 এ খবর পাওয়ার পর মার্কিন সরকার গত ১৪ মে হুমকি দেয়, ইরানের তেল ভেনিজুয়েলায় সরবরাহের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছে ওয়াশিংটন। পরবর্তীতে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভেনিজুয়েলার স্থায়ী প্রতিনিধি জানান, আমেরিকা ইরানি তেল ট্যাংকারকে বলপূর্বক বাধা দেয়ার হুমকি দিয়েছে। কোনো কোনো পশ্চিমা গণমাধ্যমে এ খবরও প্রকাশিত হয়, ইরানি তেল ট্যাংকারকে বাধা দিতে আমেরিকা ক্যারিবীয় সাগরে নৌবাহিনী পাঠিয়েছে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত কয়েকদিনে ইরানের প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সেনাপ্রধান আমেরিকাকে কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, মার্কিন সন্ত্রাসী সেনাবাহিনী দ্বারা ইরানি তেল ট্যাংকার আক্রান্ত হলে তেহরান আমেরিকার বিরুদ্ধে একই ধরনের পাল্টা ব্যবস্থা নেবে। ভেনিজুয়েলার সেনাবাহিনীও দু’দিন আগে সাগর উপকূলে ক্ষেপণাস্ত্রের মহড়া চালায়।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/২৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য