জুলাই ১১, ২০২০ ০৯:৪২ Asia/Dhaka
  • বস মাইক পম্পেওর (ডানে) সঙ্গে ব্রায়ান হুক (বামে)
    বস মাইক পম্পেওর (ডানে) সঙ্গে ব্রায়ান হুক (বামে)

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইরান অ্যাকশন গ্রুপের প্রধান ব্রায়ান হুক দাবি করেছেন, ইরান আমেরিকার সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় না বসে মূল্যবান সুযোগ হাতছাড়া করছে। আল-মনিটরকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে হুক ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকার চিরাচরিত অভিযোগগুলির পুনরাবৃত্তি করেন।

তিনি বলেন, ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে বারবার সরাসরি আলোচনায় বসার যে প্রস্তাব দেয়া হচ্ছে তা ইরান প্রত্যাখ্যান করছে। হুক আবারো তেহরানকে আলোচনায় বসার আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেন, সংলাপে বসলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানকে আরো বড় সমঝোতার যে প্রস্তাব দিয়েছিলেন তা অর্জিত হতে পার।

ব্রায়ান হুক বলেন, ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে ওয়াশিংটন তাড়াহুড়ো করছে না কারণ দেশটির ওপর ট্রাম্প প্রশাসন সর্বোচ্চ চাপ প্রয়েগের যে নীতি গ্রহণ করেছে তাতে দৃশ্যত  কাজ হয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইরান অ্যাকশন গ্রুপের প্রধান আরো দাবি করেন, সম্ভাব্য আলোচনা শেষে যে চুক্তি সই হবে তাতে কোনো অবস্থাতেই ইরানকে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধেকরণ করতে দেয়া হবে না।

আমেরিকার আলোচনার প্রস্তাব সম্পর্কে ইরানের নীতি জানিয়ে দিয়েছেন সর্বোচ্চ নেতা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ সেদেশের শীর্ষস্থানীয় নেতারা গত বছর থেকে অসংখ্যবার ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তারা এমন সময় এ আগ্রহ প্রকাশ করছেন যখন ট্রাম্প প্রশাসন ২০১৮ সালে ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নিয়ে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করেছে।

আমেরিকার সঙ্গে কথিত আলোচনা প্রসঙ্গে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী তার দেশের নীতি ঘোষণা করেছেন। তিনি ওয়াশিংটনের সঙ্গে যেকোনো আলোচনা নাকচ করে বলেছেন, ইরানের সামরিক শক্তি খর্ব করার লক্ষ্যে আমেরিকা তেহরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়। তিনি বলেন, ইরানের সামরিক শক্তিমত্তায় ভীত হয়ে হামলা করতে না পেরে তারা এখন এই শক্তিমত্তা খর্ব করতে চায় যাতে পরবর্তীতে শক্তিহীন ইরানের সঙ্গে যেমন খুশি তেমন আচরণ করতে পারে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১১

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য