সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০ ১৭:২৯ Asia/Dhaka
  • ২০১৯ সালে রুশ যুদ্ধজাহাজ মহড়ায় অংশ নিতে গেলে স্বাগত জানান ইরানের নৌ সেনারা
    ২০১৯ সালে রুশ যুদ্ধজাহাজ মহড়ায় অংশ নিতে গেলে স্বাগত জানান ইরানের নৌ সেনারা

রাশিয়া বলেছে, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর তেহরানের সঙ্গে অস্ত্র বাণিজ্য করতে গেলে আমেরিকার যদি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে তবে তার ভয়ে মস্কো মোটেই ভীত নয়। রাশিয়া বলেছে, এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা মস্কো ও তেহরানের মধ্যকার ক্রমবর্ধমান সহযোগিতাকে ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না।

রাশিয়ার অন্যতম উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকভ রুশ বার্তা সংস্থা তাস-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমরা এ ধরনের নিষেধাজ্ঞার ভয়ে ভীত নই, আমরা এগুলো দেখে অভ্যস্ত।” তিনি বলেন, মস্কো-তেহরান প্রতিরক্ষা সহযোগিতা মার্কিন যেকোনো ধরনের সীমাবদ্ধতার ঊর্ধ্ব থাকবে।

রিয়াবকভ বলেন, “ইরানের ওপরে মার্কিন অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা কোনভাবেই আমাদের নীতির উপর প্রভাব ফেলতে পারবে না। ইরানের সঙ্গে আমাদের সহযোগিতা বহুমুখী, প্রতিরক্ষা সহযোগিতা নির্ভর করবে দুই দেশের প্রয়োজন এবং পারস্পরিক ইচ্ছার উপরে। অন্য কারো নির্বাহী আদেশ আমাদের দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে দিতে পারবে না।”

সের্গেই রিয়াবকভ

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে ব্যবহার করে ইরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করতে ব্যর্থ হওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক নির্বাহী আদেশে একতরফাভাবে তেহরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন।

ওই নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছেন ইরানের ২৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান যার মধ্যে ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং আণবিক শক্তি সংস্থার কর্মকর্তারা রয়েছেন। শুধু তাই নয়, ইরানের সঙ্গে যে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান প্রচলিত অস্ত্রের বাণিজ্য করবে তাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে বলে এ নির্বোহী আদেশে বলা হয়েছে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২২

ট্যাগ

মন্তব্য