অক্টোবর ১৭, ২০২০ ১৬:৩৮ Asia/Dhaka
  • হামলার শিকার এক শিশু
    হামলার শিকার এক শিশু

আজারবাইজানের গ্যাঞ্জা শহরে আর্মেনিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। আজারবাইজানে অবস্থিত ইরানের দূতাবাস এক বিবৃতিতে বলেছে, বেসামরিক মানুষের ওপর হামলা আন্তর্জাতিক আইন ও রীতি-নীতির সরাসরি লঙ্ঘন এবং যুদ্ধাপরাধের শামিল। অবিলম্বে এ ধরণের তৎপরতা  বন্ধ করতে হবে।

হামলায় হতাহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করা হয়েছে এই বিবৃতিতে।

আজ (শনিবার) সকালে আজারবাইজানের গ্যাঞ্জা শহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে আর্মেনিয়া। এর ফলে অন্তত ১২ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত ও ৪০ জন আহত হয়েছে।

কারাবাখ আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের এলাকা হিসেবে স্বীকৃত কিন্তু ওই এলাকায় জাতিগত আর্মেনিয়ার লোকজনের বসবাস বেশি। ১৯৯২ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর আর্মেনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কারাবাখ অঞ্চলে হামলা চালিয়ে সেখান থেকে আজেরি জনগোষ্ঠীকে তাড়িয়ে দেয় এবং কারাবাখ অঞ্চলকে তারা দখল করে। এসব সন্ত্রাসীর প্রতি আর্মেনিয়ার সমর্থন ছিল। দখলীকৃত অঞ্চলটি এখন আর্মেনিয়াই নিয়ন্ত্রণ করছে।

 গত ২৭ সেপ্টেম্বর আজারবাইজানের সেনাদের ওপর আর্মেনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীরা হামলা চালালে দু পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলা সংঘর্ষে এ পর্যন্ত কয়েকশ’ সামরিক ও বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। ইরানসহ বিশ্বের বহু দেশ এ সংকট আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের আহ্বান জানিয়েছে।#

পার্সটুডে/এসএ/১৭

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য