মে ০৯, ২০২১ ১৪:৫৯ Asia/Dhaka
  • চীনা রকেট উৎক্ষেপণের সময়ের দৃশ্য
    চীনা রকেট উৎক্ষেপণের সময়ের দৃশ্য

মহাকাশে পাঠানো চীনের একটি রকেটের ধ্বংসাবশেষ আজ (রোববার) খুব ভোরে ভারত মহাসাগরে পড়েছে। চীনা মহাকাশ সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছেন। চীনা মহাকাশ সংস্থার কর্মকর্তারা বলেছেন, রকেটটির ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পর তা ভারত মহাসাগরে মালদ্বীপের কাছে পড়েছে।

তবে তা মালদ্বীপের কোনো দ্বীপে পড়েছে কিনা তা স্পষ্ট নয়। মালদ্বীপের রয়েছে বহু দ্বীপ। কোনো কোনো দ্বীপে জনবসতি নেই। চীনা মহাকাশ সংস্থার ভাষ্য, পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের সময় রকেটটির ধ্বংসাবশেষের বেশির ভাগ অংশ ভেঙে যায়। ধ্বংস হয়ে যায়।

পর্যবেক্ষণ সংস্থা স্পেস-ট্র্যাকও নিশ্চিত করেছে, চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করে তা সাগরে পড়েছে। গত ২৯ এপ্রিল চীনের ওয়েনচ্যাং স্পেস সেন্টার থেকে লং মার্চ-৫বি রকেটটি উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল। ভূপৃষ্ঠ থেকে আনুমানিক ১৬০ থেকে ৩৭৫ কিলোমিটার ওপরের একটি কক্ষপথে যাওয়ার পর রকেটটির মূল অংশ নজিরবিহীনভাবে নিচের দিকে নেমে আসে। ১৮ টন ওজনের এ ধ্বংসাবশেষ বায়ুমণ্ডলে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

বলা হচ্ছে, কয়েক দশকের মধ্যে এটি বায়ুমণ্ডলে ছড়িয়ে পড়া সবচেয়ে বড় মহাকাশ বর্জ্যের অন্যতম। রকেটটির ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীতে ঠিক কখন ও কোথায় আছড়ে পড়বে, তা নিয়ে একধরনের শঙ্কা কাজ করছিল। অনেকেই ধারণা করছিল যে, ধ্বংসাবশেষ জনবসতিতেও পড়তে পারে। কারণ এর আগে পশ্চিম আফ্রিকার আইভরি কোস্টের একটি গ্রামে অপর একটি রকেটের ধ্বংসাবশেষ পড়েছিল। এতে সেই দেশের নানা অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কেউ হতাহত হয়নি।

মহাকাশে নতুন একটি স্পেস স্টেশন তৈরির চেষ্টা করছে চীন। এর অংশ হিসেবে গত মাসে প্রথম মডিউল পাঠায় দেশটি। এ মডিউল পাঠাতে লং মার্চ-৫বি নামের ঐ রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল।

চীনের রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীতে পড়তে যাচ্ছে বলে নিশ্চিত হওয়ার পর থেকেই আমেরিকার পক্ষ থেকে বেইজিংয়ের সমালোচনা করা হাচ্ছিল। আমেরিকা বলেছিল, এভাবে রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীতে ফিরে আসার সুযোগ দেওয়া উচিৎ হয়নি।#

পার্সটুডে/এসএ/৯

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ