সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১ ০৭:২৮ Asia/Dhaka
  • মঙ্গলবার রাতে জাতিসংঘে  বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।
    মঙ্গলবার রাতে জাতিসংঘে বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারণ অধিবেশনে দেয়া ভাষণ বলেছেন, তার দেশ ইরানের পরমাণু সমঝোতায় পুরোপুরি ফিরতে প্রস্তুত রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে জাতিসংঘে ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ড. ইব্রাহিম রায়িসির ভাষণের একই দিন বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

এতে তিনি বলেন, ইরানের সঙ্গে আবার কূটনৈতিক আলোচনা শুরু করে পরমাণু সমঝোতায় পুরোপুরি ফেরার লক্ষ্যে তার প্রশাসন ৫+১ গ্রুপের সঙ্গে শলাপরামর্শ চালিয়ে যাচ্ছে। জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানি ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করেছিল এবং এই ছয় দেশ ৫+১ গ্রুপ নামে পরিচিত।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যের অন্যত্র দাবি করেন, ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে না দেয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটন প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে।

বিশ্বের সব সমস্যা সামরিক উপায়ে করা সমাধান করা সম্ভব নয় বলে সরল স্বীকারোক্তি দেন বাইডেন। তিনি বলেন, আমেরিকার সামরিক শক্তিকে আমরা সর্বপ্রথম নয় বরং সবার শেষে ব্যবহার করব। যেকোনো সমস্যা হলেই সামরিক শক্তি ব্যবহারের প্রক্রিয়া থেকে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে।

আফগানিস্তানে দুই দশকের যুদ্ধে আমেরিকার শোচনীয় পরাজয় থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ শিক্ষা গ্রহণ করেছেন বলে পর্যবেক্ষকদের ধারনা।

জাতিসংঘে দেয়া বক্তব্যে বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব থেকে বাঁচতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে আমেরিকা ১০ হাজার কোটি ডলার অনুদান দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা করার জন্য আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল দেশগুলোকে সাহায্য করতে হবে।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায়ও বিশ্বের দেশগুলোকে আমেরিকা সহযোগিতা করছে দাবি করে জো বাইডেন বলেন, তার দেশ এখন পর্যন্ত কোনো পূর্বশর্ত ছাড়াই বিভিন্ন দেশকে  করোনাভাইরাসের ৫০ কোটি ডলার টিকা প্রদান করেছে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ