সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ ০৬:৪৮ Asia/Dhaka
  • চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান
    চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান

জাতিসংঘের বার্ষিক সাধারণ অধিবেশনে ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসির ভাষণের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ঘোষণা করেছে চীন। বেইজিং একইসঙ্গে ইরানের ওপর ‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগের নীতি পরিহার এবং তেহরানের ওপর আরোপিত বেআইনি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার জন্যও ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

প্রেসিডেন্ট রায়িসি সম্প্রতি জাতিসংঘের ৭৬তম বার্ষিক সম্মেলনে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে দেয়া ভাষণে বলেন, তার দেশের প্রতিরক্ষা নীতি পরমাণু অস্ত্রের কোনো স্থান নেই। তিনি ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতার ব্যাপারে সত্যনিষ্ঠ আচরণ করার জন্য এতে স্বাক্ষরকারী দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

এ সম্পর্কে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান গতকাল (শুক্রবার) বেইজিং-এ সাংবাদিকদের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বলেন, তার দেশ ইরানের এই বক্তব্যকে সমর্থন করে।বেইজিং মনে করে পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবন ও এ সংক্রান্ত সংলাপে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে ইরান তার সদিচ্ছা প্রদর্শন করেছে।

ইরানের ওপর আমেরিকার কথিত সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতির তীব্র নিন্দা জানিয়ে ঝাও বলেন, পরমাণু সমঝোতাকে তার সঠিক জায়গায় ফিরিয়ে নেয়ার জন্য বেইজিং নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ভিয়েনা সংলাপ যাতে আবার শুরু হয় সেজন্য সবগুলো পক্ষের সঙ্গে কথাবার্তা চালিয়ে যাচ্ছে চীন।

চীনা মুখপাত্র স্পষ্ট করে বলেন, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে যখন নতুন করে টানাপড়েন তৈরি হয়েছে তখন আমেরিকার উচিত ইরানের ব্যাপারে নিজের ভুল নীতি থেকে সরে আসা এবং দেশটির ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা।তিনি বলেন, আমেরিকার পক্ষ থেকে এ ধরনের কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ নেয়া হলেই অবিলম্বে ভিয়েনা সংলাপ শুরু হতে পারে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২৫

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ