অক্টোবর ২০, ২০২১ ০৭:৫৯ Asia/Dhaka
  • ইউএসএস কানেক্টিকাট (ফাইল ছবি)
    ইউএসএস কানেক্টিকাট (ফাইল ছবি)

দক্ষিণ চীন সাগরের গভীর তলদেশে একটি মার্কিন সামবেরিনের দুর্ঘটনায় পড়া নিয়ে আমেরিকা রাখঢাক রাখছে বলে কঠোর ভাষায় ওয়াশিংটনের সমালোচনা করেছে বেইজিং।চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ট্যান কেফেই বলেছেন, “আমেরিকা যদি নিজেকে দায়িত্বশীল মনে করে তাহলে সে যেন এই দুর্ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববাসীকে জানায়।”

তিনি এ দুর্ঘটনাকে পূর্ব এশিয়ায় আমেরিকার উসকানিমূলক তৎপরতার ফসল বলেও মন্তব্য করেন। চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, আমেরিকার উসকানিমূলক তৎপরতার কারণে আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও সাগরে জাহাজ চলাচল হুমকির মুখে পড়েছে।

দক্ষিণ চীন সাগরের পানিসীমায় গত সপ্তাহে একটি অজ্ঞাত বস্তুর সঙ্গে মার্কিন সাবমেরিন ‘ইউএসএস কানেক্টিকাট’র ধাক্কা লাগে বলে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো খবর দেয়। এতে বলা হয়, সাবমেরিনটি ছিল পরমাণু শক্তিচালিত এবং এটি ‘আন্তর্জাতিক পানিসীমায়’ চলাচল করছিল।

চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র 

ওই দুর্ঘটনায় আমেরিকার ১১ নাবিক আহত হয়েছে বলে জানায় মার্কিন সেনাবাহিনী।ওই বাহিনী দাবি করে, দুর্ঘটনায় সাবমেরিনটির পরমাণু জ্বালানী ভাণ্ডারের কোনো ক্ষতি হয়নি এবং এটির সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

চীনের বিচ্ছিন্ন দ্বীপ তাইওয়ানকে সমর্থনের অজুহাতে দক্ষিণ চীন সাগরে মাঝেমধ্যেই যুদ্ধজাহাজ ও সাবমেরিন পাঠায় আমেরিকা। তাইপের সঙ্গে দহরম মহরম ও দেশটিকে সমরাস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করার ব্যাপারে ওয়াশিংটনকে বহুবার সতর্ক করে দিয়েছে।#

পার্সটুডে/এমএমআই/২০

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

 

ট্যাগ