নভেম্বর ০৭, ২০২১ ০০:৩২ Asia/Dhaka
  • রাবাদার হ্যাটট্রিকে সান্ত্বনার জয় পেল দ. আফ্রিকা
    রাবাদার হ্যাটট্রিকে সান্ত্বনার জয় পেল দ. আফ্রিকা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ-ওয়ানের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ১০ রানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। হেরেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শেষ চারে জায়গা করে নিয়ে ইংলিশরা। এই গ্রুপ থেকে রান রেটে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অস্ট্রেলিয়াও সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে। সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে ইংল্যান্ডকে ১৩১ বা তার কমে আটকে রাখতে হতো দক্ষিণ আফ্রিকার। তবে সেটি সম্ভব হয়নি।

আজ (শনিবার) শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সুপার টুয়েলভের শেষ ম্যাচে হয়েছে রানবন্যা। রাসি ভ্যান ডার ডুসেন ও এইডেন মার্করামে ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রান করেছে প্রোটিয়ারা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রানে থামে ইংল্যান্ড।

১৯০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইংল্যান্ড ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৭ বলে ৩৭ রান করেন মঈন আলী। এছাড়া ডেভিড মালান ৩৩, লিয়াম লিভিংস্টোন ২৮ ও জস বাটলার ২৬ রান করেন। ওপেনার জেসন রয় ২০ রান করে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন।

রোমাঞ্চ ছড়ানো এই ম্যাচ জিততে শেষ ওভারে ইংল্যান্ডের দরকার ছিল ১৪ রান।  রাবাদার প্রথম বলেই ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন ক্রিস ওকস। পরের বলে একই দশা ওয়েন মরগ্যানের। পরের বলে ক্রিস জর্দান ক্যাচ দিলে হ্যাটট্রিক করে বসেন রাবাদা। ইংল্যান্ডের আর সমীকরণ মেলানো হয়নি।

প্রোটিয়া বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পান কাগিসো রাবাদা। স্পিনার তাবরাইজ শামসি ও ডোয়েন প্রিটোরিয়াস ২টি করে উইকেট দখল করেন।

টস হেরে এর আগে ব্যাট করতে নেমে অবশ্য শুরুটা ভালো করতে পারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা। দলীয় ১৫ রানেই ওপেনার রেজা হেনড্রিক্স বোল্ড হন মঈন আলীর বলে। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে রাসি ভ্যান ডার ডুসেনের সঙ্গে ৫২ বলে ৭১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন আরেক ওপেনার কুইন্টন ডি কক।

অবশেষে এই জুটি ভাঙেন আদিল রশিদ। ২৭ বলে ৩৪ রান করা বাঁহাতি ওপেনার ডি কক এই স্পিনারের বলে জেসন রয়কে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। এ সময় ৪টি বাউন্ডারি হাঁকান তিনি।

ডি কক বিদায় নিলেও উইকেটে অবচিল থাকেন রাসি। তিনি এরপর এইডেন মার্করামকে নিয়ে আরও দ্রুত ব্যাট চালান। তৃতীয় উইকেট জুটিতে তোলে মাত্র ৫২ বলে ১০৩ রান। অবশ্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয় এই ডানহাতির। তিনি শেষ অবধি ৬০ বলে ৫টি চার ও ৬টি ছক্কায় ৯৪ রানে অপরাজিত থাকেন। অপরদিকে দারুণ ব্যাট করা মার্করামও ঝড়ো ব্যাট চালান। তরুণ এই ব্যাটার ২৫ বলে ২টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৫২ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন।

৬০ বলে ৯৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরস্কার পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার রাসি ফন ডার ডুসেন।

গ্রুপ-ওয়ানে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা তিন দলের পয়েন্ট সমান ৮ হলেও শ্রেয়তর রানরেটে গ্রুপ সেরা হয়েছে ইংল্যান্ড, দ্বিতীয় হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। বিদায় নিতে হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/৬

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন। 

ট্যাগ