নভেম্বর ২২, ২০২১ ২১:২৬ Asia/Dhaka

শ্রোতাবন্ধুরা, আপনাদের সবাইকে অনেক অনেক প্রীতি আর শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি চিঠিপত্রের আসর প্রিয়জন। আজকের আসরে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আব্দুর রশীদ, আমি আকতার জাহান এবং আমি আশরাফুর রহমান।

আশরাফুর রহমান: বরাবরের মতোই একটি হাদিস শুনিয়ে আসর শুরু করতে চাই। বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন, "যে ব্যক্তি জ্ঞানার্জনের জন্য কিছু সময় বিনীতভাবে ধৈর্যধারণ করে থাকতে পারে না সে সবসময়ই মূর্খতার লাঞ্ছনার মধ্যে পড়ে থাকবে।"

আকতার জাহান: আমরা সবাই ধৈর্যের সাথে জ্ঞানার্জনের চেষ্টা করব- এ কামনায় নজর দিচ্ছি চিঠিপত্রের দিকে।

আসরের প্রথম মেইলটি এসেছে বরিশালের কাশিপুরের তৃণমূল বেতারশ্রোতা তথ্য ক্লাব থেকে। আর পাঠিয়েছেন ক্লাব সভাপতি জিল্লুর রহমান জিল্লু।

তিনি লিখেছেন, "আপনাদের নিখুঁত কণ্ঠের চমৎকার উপস্থাপনায় প্রিয়জন শুনে আমরা রেডিও তেহরানের ভক্ত শ্রোতারা খুবই মুগ্ধ। রেডিও তেহরান সর্বদা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের জন্য প্রশংসার দাবিদার আল্লাহ আপনাদের মঙ্গল করুন। রাষ্ট্রের সাথে ইসলাম ধর্ম যে ওতোপ্রোতভাবে জড়িত রেডিও তেহরানের বিভিন্ন পরিবেশনার মাধ্যমে তা ফুটে ওঠে।"  

সবশেষে তিনি বাংলাদেশের কুমিল্লায় পবিত্র কুরআন অবমাননা নিয়ে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাসহ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে জড়িতদের কঠোর শাস্তি কামনা করেছেন।

গাজী আব্দুর রশীদ: ভাই জিল্লুর রহমান, চিঠি ও মতামতের জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আশা করি আবারো লিখবেন।

বাংলাদেশের পর এবার ভারতের চিঠি। এটি এসেছে আসামের বড়পেটা জেলার কান্দুলিয়া থেকে। আর পাঠিয়েছেন আমাদের নিয়মিত শ্রোতা ও পত্রলেখক আব্দুস সালাম সিদ্দিক।  

তিনি লিখেছেন, "গত ২৮ অক্টোবরের শিশু-কিশোরদের মনোরঞ্জনের সাপ্তাহিক অনুষ্ঠান রংধনু আসরে আব্বাসীয় খলিফা হারুনুর রশিদ এবং সেই যুগের বিখ্যাত আলেম ওয়াহাব ইবনে আম‌র ওরফে বাহলুল পাগল-এর চমৎকার কাহিনী, তাঁর উপদেশ এবং ইসলামের প্রতি তাঁর পরাকাষ্ঠা শুনে বেশ উৎসাহিত, আনন্দিত, উদ্বেলিত ও উৎফুল্লিত হলাম। অনুষ্ঠান থেকে জানতে পারলাম- বিভিন্ন ইতিহাসবিদগণ আব্বাসীয় খলিফা হারুনুর রশিদকে ন্যায়পরায়ণ শাসক হিসেবে আখ্যায়িত করলেও তিনি নবীবংশ তথা আহলে বাইত-এর সদস্য এবং আলেম ও প্রতিবাদীদের ওপর জুলুম নির্যাতনের স্ট্রিমরোলার চালিয়ে কুখ্যাতি অর্জন করেছিলেন। অনুষ্ঠানের শেষ অংশে ছোট্ট বন্ধু ইরফানুল হকের কণ্ঠে 'রোজ বিহানে একটি পাখি আল্লাহ আল্লাহ ডাকে'- শীর্ষক গানটি আমাকে এতো আকর্ষিত করেছে যে, তা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। মধুর কণ্ঠে গানটি আমাকে যেন আনন্দ সাগরে ভাসিয়ে নিয়েছে।"

আশরাফুর রহমান: ২৮ অক্টোবর প্রচারিত রংধনু আসরটি আপনার ভালো লেগেছে জেনে আমাদেরও ভালো লাগল। মতামতের জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার মল্লিকাদহ বালাপাড়া থেকে হরিদাস রায় লিখেছেন এবারের চিঠিটি।

প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানাবার পর তিনি লিখেছেন, "আপনাদের পরিবেশিত বিশ্বসংবাদ, দৃষ্টিপাত, কথাবার্তা, আদর্শ মানুষ গড়ার কৌশল, দর্পন, আসমাউল হুসনা, প্রিয়জন, গল্প ও প্রবাদের গল্প, স্বাস্থ্যকথা, কুরআনের আলো এবং রংধনু আসর খুবই ভালো লাগে। তাইতো অনুষ্ঠান শুনতে কখনও ভুল করি না। সুন্দর ও মনোজ্ঞ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান উপহার দেওয়ার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই রেডিও তেহরান কর্তৃপক্ষকে।"

আকতার জাহান: অনুষ্ঠান শোনার পাশাপাশি মতামত জানানোর জন্য আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করি চিঠি লেখা অব্যাহত রাখবেন।

আকতার জাহান: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ থেকে মনীষা রায় পাঠিয়েছেন এবারের মেইলটি। একরাশ হৈমন্তী শুভেচ্ছা জানাবার পর তিনি লিখেছেন, "স্বাস্থ্যকথা অনুষ্ঠানে থাইরয়েড নিয়ে চতুর্থ এবং শেষ পর্বের আলোচনায় ডা. সাজু বললেন- থাইরয়েড-এর সমস্যা হলে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া দরকার। এছাড়া, নারিকেল তেল, সরিষার তেল, ফল, ডাল, সব্জি ইত্যাদি খাবার খাওয়া প্রয়োজন এবং সয়াবিন তেল, ফুলকপি, বাধাকপি ইত্যাদি খাওয়া বারণ। একই অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্বের আলোচনায় থাইরয়েড হলে শিশুদের কী কী সমস্যা হতে পারে তা জেনেছিলাম। এভাবে ঘরে বসেই আমার মতো অনেক শ্রোতা স্বাস্থ্য ভালো রাখার সুপরামর্শ পেয়ে উপকৃত হচ্ছেন। তাই রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগকে অশেষ ধন্যবাদ জানাই স্বাস্থ্য সম্পর্কে এরকম সুন্দর সুপরামর্শ দেওয়ার জন্য।"

গাজী আব্দুর রশীদ: স্বাস্থ্যকথা অনুষ্ঠান থেকে উপকৃত হচ্ছেন জেনে আমাদেরও ভালো লাগছে। তো চিঠি লিখার জন্য মনীষা রায় আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

আচ্ছা আশরাফ ভাই, বেশ কয়েকটির চিঠির জবাব তো দেওয়া হলো। এবার একজন শ্রোতার সাথে সরাসরি কথা বললে কেমন হয়?

আশরাফুর রহমান: খুব ভালো কথা মনে করেছেন আপনি। টেলিফোনের অপর প্রান্তে একজন সিনিয়র শ্রোতা আমাদের সাথে কথা বলার জন্য অপেক্ষা করছেন। তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে তার সাথে পরিচিত হওয়া যাক।

আকতার জাহান: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট থেকে বিধান চন্দ্র সান্যাল পাঠিয়েছেন এবারের মেইলটি। তিনি লিখেছেন, "আমি প্রতিদিন রেডিও তেহরানের প্রতিটি অনুষ্ঠান শুনছি। প্রতিদিন অনুষ্ঠান সম্পর্কে মতামত প্রেরণ করছি। অনুষ্ঠানের শ্রবণমান জানিয়ে রিসেপশন রিপোর্ট পাঠাচ্ছি। ফেসবুক পেজের প্রতিটি পোস্ট লাইক করছি, কমেন্ট করছি এবং সাথে সাথে শেয়ারও করছি। দিন দিন রেডিও তেহরান আমার কাছে হয়ে উঠেছে আত্মার আত্মীয়; হয়ে উঠেছে আমার ধ্যান-জ্ঞান সবকিছু।"

গাজী আব্দুর রশীদ: বিধানদা যথার্থ বলেছেন। আশা করি এভাবেই সবসময় আমাদের পাশে থাকবেন।

বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের গুরুদয়াল কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ শাহাদাত হোসেন পাঠিয়েছেন এই মেইলটি। তিনি লিখেছেন, "সম্প্রতি বাংলাদেশ বেতার তাদের কিছু শ্রোতাদের জন্যে ঢাকাস্থ বেতার ভবনে এক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। উক্ত অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে আমি বাংলাদেশ বেতারের একজন উপ-পরিচালক ও দু'জন সহকারী পরিচালকের সাথে এবং উপস্থিত প্রায় ২৫ জন বেতার শ্রোতার সাথে রেডিও তেহরানের বাংলা অনুষ্ঠান সম্পর্কে কথা বলি। তাদেরকে রেডিও তেহরানের অনুষ্ঠানের মান ও সূচি সম্পর্কে ধারণা দিয়ে তা শোনার আহ্বান জানাই। একই সাথে রেডিও তেহরানের শ্রোতা মোঃ সাগর মিয়া ও শাওন হোসাইনের সহযোগিতায় উপস্থিত সকলের কাছে রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগের ব্রুশিয়ার সরবরাহ করি। ব্রুশিয়ার পেয়ে অনেকেই রেডিও তেহরান শোনার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।"

আশরাফুর রহমান: রেডিও তেহরানের প্রচার-প্রসার ও শ্রোতা বৃদ্ধিতে শাহাদত ভাই আপনার ভূমিকা প্রশংসার দাবি রাখে। আশা করি আপনার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবেন।

এবারের মেইলটি এসেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার মহেন্দ্রনগর থেকে। আর পাঠিয়েছেন ভাস্কর পাল। তিনি লিখেছেন, "গত ২৫ অক্টোবর সান্ধ্য অধিবেশনে প্রচারিত 'প্রিয়জন' অনুষ্ঠানটি আমার মন ছুঁয়ে গেছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের বাঙালি শ্রোতাদের চিঠি বা ইমেইল পাঠ, সরাসরি সাক্ষাৎকার গ্রহণ, ক্লাব কার্যক্রমের খবর, ইরান সম্পর্কে জিজ্ঞাসার জবাব, মন ভালো করা গান- সবকিছু নিয়ে এদিনের অনুষ্ঠানটি এক অন্য মাত্রা লাভ করেছে।"

প্রিয়জনের পাশাপাশি পার্সটুডে ডটকমে 'শ্রোতাদের মতামত' বিভাগে প্রকাশিত চিঠিগুলোর প্রশংসা করেছেন তিনি।

আকতার জাহান: চিঠিপত্রের আসর প্রিয়জন ও 'শ্রোতাদের মতামত' বিভাগ সম্পর্কে চিঠি লিখার জন্য ভাস্কর পাল আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

অনুষ্ঠানের এ পর্যায়ে আমরা রেডিও তেহরানের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে 'আইআরআইবি ফ্যান ক্লাব বাংলাদেশ' আয়োজিত প্রবন্ধ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী এক শ্রোতাবন্ধুর লেখার কিছু অংশ তুলে ধরব। আজকের লেখাটি   বাংলাদেশের ঝিনাইদহের শ্রোতাবন্ধু মো: নজরুল ইসলামের

তিনি লিখেছেন, "হলুদ সাংবাদিকতা, প্রতিবেদকের এক পেশে মনোভাব, রাজনৈতিক চাপ ও পরিবেশের প্রভাবের কারণে একটা গণমাধ্যম শ্রোতা তথা বিশ্বকে বিভ্রান্তির ধুম্রজালে নিপতিত করতে পারে। সেই বিচারে রেডিও তেহরান তার ব্যতিক্রম। এটা বিমাতাসুলভ আচরণ ত্যাগ করে, জীবন গড়ার মানসে, কুরআন-হাদীসের তথ্যের সমন্বয় ঘটিয়ে জাতি গঠনে এক অনন্য অবদান রেখে চলেছে।"

গাজী আব্দুর রশীদ: নজরুল ভাই আরও লিখেছেন, "রেডিও তেহরান সমাজ রাষ্ট্র তথা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত উল্লেখযোগ্য গণমাধ্যম হিসেবে সমাদৃত। সমাজ, জাতি তথা বিশ্বকে বাসযোগ্য করার প্রয়াস নিয়ে, বাতিল শক্তির বিরুদ্ধে তার সংগ্রামী কণ্ঠস্বর দিয়ে প্রতিকুল পরিবেশে যেভাবে সঠিকভাবে অনুষ্ঠান করে যাচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে বিজয় পতাকার দিকে। প্রজন্মের পর প্রজন্ম তাদেরকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে বিশ্ববাসী।" 

আশরাফুর রহমান: নজরুল ইসলাম ভাইকে ধন্যবাদ চমৎকার লেখাটির জন্য। আসরের শেষ মেইলটি এসেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার চুপী থেকে আর পাঠিয়েছেন হাফিজুর রহমান।

তিনি লিখেছেন, "ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের নৌবাহিনী নিজ দেশের পানি সীমানা এবং সমুদ্রের প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষায় অতন্দ্র প্রহরী। এ কারণে নৌবাহিনী তাদের শক্তি সামর্থ্য বহুগুণে বৃদ্ধি করেছে। ইরানের নৌবাহিনীর শক্তি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে তারা এখন সমুদ্রের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য আন্তর্জাতিক পানি সীমায়ও পাড়ি জমিয়েছে। আন্তর্জাতিক পানিসীমায় উপস্থিতির মাধ্যমে নৌবাহিনী নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।"

আকতার জাহান: ইরানের নৌবাহিনী সম্পর্কে মূল্যায়নধর্মী লেখাটির জন্য হাফিজুর রহমান ভাই আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

গাজী আব্দুর রশীদ: তো শ্রোতাবন্ধুরা, দেখতে দেখতে আমাদের আজকের আসরের সময় ফুরিয়ে এসেছে। বিদায় নেওয়ার আগে আপনাদের জন্য রয়েছে ইরানি বংশোদ্ভুত ব্রিটিশ সঙ্গীতশিল্পী ও গীতিকার সামি ইউসুফের গাওয়া একটি পাঞ্জাবি ভাষার গান।

আশরাফুর রহমান: আপনারা গানটি শুনতে থাকুন আর আমরা বিদায় নিই প্রিয়জনের আজকের আসর থেকে। 

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন। 

 

 

ট্যাগ