জানুয়ারি ২৩, ২০২২ ১৯:৩৮ Asia/Dhaka

সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা! সালাম ও শুভেচ্ছা নিন। আশা করি আপনারা যে যেখানেই আছেন ভালো ও সুস্থ আছেন। ২৩ জানুয়ারি রোববারের কথাবার্তার আসরে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি আমি নাসির মাহমুদ।

আসরের শুরুতে ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম তুলে ধরছি। তারপর গুরুত্বপূর্ণ দুটি খবরের বিশ্লেষণে যাবো।

বাংলাদেশের শিরোনাম:

  • করোনায় মৃত্যু কমলেও শনাক্ত বেড়েছে: ইত্তেফাক
  • বিএনপির আপত্তির মুখে ইসি গঠনে আইনের খসড়া উঠল সংসদে: প্রথম আলো
  • শাবি ভিসির বাসভবন ঘেরাও করেছেন শিক্ষার্থীরা: মানব জমিন

ভারতের শিরোনাম:

  • বিদ্রোহ-সংক্রমণ নিয়ে ভীত বিজেপি, জয়প্রকাশ ও রীতেশকে চিঠি পাঠিয়ে শুরু বড় দমন প্রক্রিয়া: আনন্দবাজার পত্রিকা
  • মোদির বৈঠকে নেই জেলাশাসকরা, কেন্দ্রকে চিঠি দেবেন ক্ষুব্ধ শুভেন্দু: আজকাল

শ্রোতাবন্ধুরা! শিরোনামের পর এবার দু'টি খবরের বিশ্লেষণে যাচ্ছি। বিশ্লেষণে যথারীতি জনাব সিরাজুল ইসলাম রয়েছেন আমাদের সঙ্গে। জনাব সিরাজুল ইসলাম! কথাবার্তার আসরে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। আপনি জানেন যে বাংলাদেশে তড়িঘড়ি করে ইসি নিয়োগ আইনের ব্যাপারে নাগরিক সমাজের মাঝে সন্দেহ দানা বাঁধছে। এই সন্দেহটা কেন?

২. ‘ইরান-রাশিয়া-চীন যৌথ নৌমহড়া আমেরিকাকে কঠোর বার্তা দিয়েছে’। ওয়াশিংটন টাইমস এই মূল্যায়ন করেছে। আসলে বার্তাটি কী?

জনাব সিরাজুল ইসলাম! ধন্যবাদ আপনাকে।

শ্রোতাবন্ধুরা! বিশ্লেষণের পর এবার বাংলাদেশের আরও কয়েকটি খবর বিস্তারিত জানা যাক।

করোনায় মৃত্যু কমলেও শনাক্ত বেড়েছে:

ইত্তেফাক এই শিরোনামে লিখেছে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত ২৮ হাজার ২২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে ৩৪ হাজার ৮৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১০ হাজার ৯০৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ২৯ শতাংশ। দেশে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছে ১৬ লাখ ৮৫ হাজার ১৩৬ জন। আজ স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও কোভিড ইউনিটের প্রধান ডা. মো. ইউনুস স্বাক্ষরিত বিশেষ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগের দিন শনিবার দেশে ১৭ জনের মৃত্যু ও ৯ হাজার ৬১৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছিল।  সেই তুলনায় আজ করোনায় মৃত্যু কমলেও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে।

করোনার টীকা নিচ্ছেন এক নারী

বিএনপির আপত্তির মুখে ইসি গঠনে আইনের খসড়া উঠল সংসদে

প্রথম আলো আরও লিখেছে: বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশীদের আপত্তির মুখে নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে করা আইনের খসড়া আজ বিল আকারে জাতীয় সংসদে তোলা হয়েছে। এতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের প্রক্রিয়া ও যোগ্যতা-অযোগ্যতা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। সিইসি ও কমিশনার হিসেবে নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রস্তাবিত আইনে তিনটি যোগ্যতা এবং ছয়টি অযোগ্যতার কথা বলা হয়েছে। এর আগে সার্চ (অনুসন্ধান) কমিটির মাধ্যমে গঠন করা সর্বশেষ দুটি কমিশন গঠনেরও বৈধতা দেওয়া হয়েছে এ আইনে। তাতে বলা হয়েছে, এর আগে গঠিত অনুসন্ধান কমিটি, তাদের কাজ এবং তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে সিইসি ও কমিশনার নিয়োগ বৈধ ছিল বলে গণ্য হবে এবং এ বিষয়ে আদালতে কোনো প্রশ্ন উত্থাপন করা যাবে না।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ

শাবি ভিসির বাসভবন ঘেরাও করেছেন শিক্ষার্থীরা: মানব জমিন

পত্রিকাটি লিখেছে, সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ফরিদ উদ্দিন আহমদের বাসভবন ঘেরাও করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বিকেল পৌনে ৪ টার দিকে শিক্ষার্থীরা ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা ঘোষণা দেন- আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী ছাড়া ভিসির বাসভবনের ভেতরে আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করার পর শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন- পরিস্থিতি যেভাবে এগুচ্ছে, এতে আমাদের বাধ্য করা হচ্ছে আরো কঠোর কর্মসূচির দিকে যেতে। তারা বলেন- ভিসির বাসভবনে কেবল পুলিশ ছাড়া কেউ ঢুকতে পারবে না। ভবিষ্যতে তারা ভিসির বাসভবনের জরুরী পরিসেবা বন্ধ করতে বাধ্য হবেন বলে জানান। তবে- বর্তমানে ভিসির বাসভবনের জরুরি পরিসেবা চালু থাকবে।

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবন ঘেরাও

এবারে ভারতের কয়েকটি পত্রিকার খবর বিস্তারিত:

বিদ্রোহ-সংক্রমণ নিয়ে ভীত বিজেপি, জয়প্রকাশ ও রীতেশকে চিঠি পাঠিয়ে শুরু বড় দমন প্রক্রিয়া: আনন্দবাজার পত্রিকা

রাজ্য বিজেপি যখন নেতাজি জয়ন্তী পালনে ব্যস্ত, তারই মধ্যে কিছুটা বেনজির ভাবে দলের দুই নেতাকে শো কজ করল গেরুয়া শিবির। সাধারণভাবে কোনও নেতার বিরুদ্ধে দল ব্যবস্থা নিলে বিজেপি-র পক্ষ থেকে সংবাদমাধ্যমে তা ঘোষণা করা হয়। নিদেনপক্ষে প্রেস বিবৃতি আকারে শো কজের চিঠি প্রকাশ করা হয়। কিন্তু রবিবার যেটা হল, তা রাজ্য বিজেপি-তে বেনজির বলা যেতে পারে। বিজেপি সূত্রে খবর, পরিকল্পনা করেই দলের পক্ষ থেকে ওই দু’টি চিঠি ফাঁস করে দেওয়া হয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত জয়প্রকাশ মজুমদার বা রীতেশ তিওয়ারি চিঠির প্রাপ্তি স্বীকার করেননি।কিন্তু কেন এত তড়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত? রাজ্য বিজেপি-র কোনও নেতা এ ব্যাপারে মুখ খুলতে রাজি হননি। তবে দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় আটকে থাকা বিদ্রোহ যাতে রাজ্যের অন্য জেলায় সংক্রমিত না হয়, তা নিশ্চিত করতে এই পদক্ষেপ।

আনন্দবাজার

মোদির বৈঠকে নেই জেলাশাসকরা, কেন্দ্রকে চিঠি দেবেন ক্ষুব্ধ শুভেন্দু: আজকাল

বিস্তারিত খবরে এসেছে, আমলা নীতি সংশোধন করতে চেয়ে রাজ্যগুলোকে বার্তা দিয়েছে কেন্দ্র। এই নিয়ে তুমুল টানাপোড়েন শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোয় আঘাত হানছে কেন্দ্র বলে অভিযোগ করা হয়েছে। তার মধ্যেই এই বিবাদ পৌঁছল চরমে। প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে যোগ দিলেন না পশ্চিমবঙ্গের জেলাশাসকরা। সেই নিয়ে কেন্দ্রকে চিঠি দেবেন বলে জানালেন বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

মোদি (বামে) শুভেন্দু

শনিবার সব রাজ্যের জেলাশাসকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই এ রাজ্যের জেলাশাসকরা যোগ দেননি। সেই নিয়ে টুইটারে তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। এও লিখেছেন, প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দেবেন তিনি। এদিন এক কর্মসূচিতে গিয়ে বললেন, ‘‌যাঁরা এই বৈঠকে গরহাজির ছিলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো ব্যবস্থা নেওয়া হোক। চিঠিতে এই আবেদন জানাব।’‌

তো শ্রোতাবন্ধুরা! আজ এ পর্যন্তই। সবাই ভালো থাকুন।

পার্সটুডে/নাসির মাহমুদ/২৩

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন। 

ট্যাগ