নভেম্বর ২৪, ২০২২ ১৬:০৮ Asia/Dhaka

সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা: রেডিও তেহরানের প্রাত্যহিক আয়োজন কথাবার্তার আসরে স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আবদুর রশীদ। আশা করছি আপনারা প্রত্যেকে ভালো আছেন। আজ ২৪ নভেম্বর বৃহষ্পতিবারের কথাবার্তার আসরের শুরুতে ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম তুলে ধরছি।

ঢাকার কয়েকটি খবরের শিরোনাম

  • ‘আত্মহত্যা’ বলা হলেও ১০ মাস পর জানা গেল, মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হয়েছিল-প্রথম আলো
  • রিজার্ভের কোনো সমস্যা নাই: প্রধানমন্ত্রী-বাংলাদেশ প্রতিদিন
  • টাকা ছাপিয়েও মেগা প্রকল্পের ঋণ শোধ করা যাবে না: আবুল বারকাত-মানবজমিন
  • খাদ্য পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে-যুগান্তর
  • পরিবারের হাল ধরতে বাড়ছে শিশুশ্রম–ইত্তেফাক
  • জঙ্গি ছিনতাই প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্বে ছিল অমি : সিটিটিসি-কালের কণ্ঠ

কোলকাতার শিরোনাম:

  • ইঁদুরে খেয়েছে ৫০০ কেজি গাঁজা! আদালতে বলল যোগীর পুলিশ-সংবাদ প্রতিদিন
  • ভারত জোড়ো যাত্রায় রাহুলের সঙ্গে পা মেলালেন প্রিয়ঙ্কা, উপস্থিত সচিন পায়লট-আজকাল
  • ১১ বছর আগে কী ছিল?’ রাজ্যের পর্যটনে উন্নয়ন এনেছে তাঁর সরকারই, বিধানসভায় দাবি মমতার-আনন্দবাজার পত্রিকা

এবারে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি খবরের বিস্তারিত

রাজনীতির খবর। মানবজমিন লিখেছে, যশোরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় নেতাকর্মীদের ঢল। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনও নিরাপদ ও গতিশীল। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আরেকবার ক্ষমতায় গেলে বিএনপি গোটা দেশ গিলে খাবে। এদিকে ওলি আহমেদ বলেছেন, দেশর ৯০ শতাংশ মানুষ সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, রাজপথে শক্তি দেখিয়ে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। বরং নির্বাচনের মাঠে এসে কার্যকর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ভারসাম্য তৈরি করতে হবে। এছাড়া সরকারের তরফ থেকে সহযোগিতা না থাকলে নির্বাচন কাক্সিক্ষত মাত্রায় সফল হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের সহযোগিতা পেলে নির্বাচনটা আরও বেশি সফল হবে। বৃহস্পতিবার নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সিইসি এসব কথা বলেন। 

টাকা ছাপিয়েও মেগা প্রকল্পের ঋণ শোধ করা যাবে না: আবুল বারকাত-মানবজমিন

বাংলাদেশের পাঁচটি মেগা প্রকল্পের ঋণ শোধ করা শুরু হবে ২০২৭ সালে। টাকা ছাপিয়েও এই ঋণ শোধ করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন অর্থনীতিবিদ আবুল বারকাত। তিনি বলেছেন, তখন সে পরিমাণ ফরেন কারেন্সিও থাকবে কি-না, যদি না থাকে তাহলে পিছনে ফিরে বলতে হবে ভুল করেছিলাম। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট আয়োজিত 'খাদ্য নিরাপত্তা, ক্ষুদ্র কৃষকদের সংকট ও সমবায়ের গুরুত্ব' শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

আবুল বারকাত বলেন, ক্যান্সার, কিডনি, কার্ডিয়াক ও ডায়াবেটিস রোগে প্রতি বছর ৫০ লাখ মানুষ দরিদ্র হন। এভাবে যদি আগামী ২-১ বছর চলতে থাকে তবে মধ্যবিত্ত স্তর আর থাকবে না। উচ্চ মধ্যবিত্তের তেমন কিছু হবে না। নিম্ন মধ্যবিত্তের ক্ষতি হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ভবিষ্যতে দেশের অবস্থা ভালো হয়ে যাবে, রিজার্ভ ভালো হয়ে যাবে-আমি এরসঙ্গে একমত না। ঝুঁকি পরিমাপ করা যায়, ভবিষৎবাণী করা যায়। কিন্তু অনিশ্চয়তা পরিমাপ বা ভবিষৎবাণী করা যায় না। দ্রব্যমূল্য অনিশ্চয়তার বিষয়।

রিজার্ভের কোনো সমস্যা নাই: প্রধানমন্ত্রী-বাংলাদেশ প্রতিদিন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘রিজার্ভ নিয়ে খুব কথা হচ্ছে। রিজার্ভের কোনো সমস্যা নাই। ব্যাংকে টাকা নাই কথাটা মিথ্যা। প্রত্যেকটি ব্যাংকে যথেষ্ট টাকা আছে’।

যশোরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তৃতায় আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন অর্জনের কথা তুলে ধরেন।

তিনি আরও বলেন, ‘রফতানি বেড়েছে। রেমিট্যান্স আসছে। কর কালেকশন বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্বের অনেক দেশ অর্থনৈতিক মন্দার মুখোমুখি হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনো যথেষ্ট শক্তিশালী আছে’।

২৩ জেলা প্রশাসক পদে রদবদল-প্রথম আলো

ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, রংপুর, কুমিল্লা, কক্সবাজার, ময়মনসিংহ জেলাসহ দেশের ২৩টি জেলায় জেলা প্রশাসক (ডিসি) পদে পরিবর্তন আনল সরকার। এর মধ্যে এবার প্রথমবারের মতো ২৫তম বিসিএসের কর্মকর্তাদের ডিসি করা হয়েছে। জাতীয় নির্বাচনের বছরখানেক আগে একসঙ্গে এতগুলো জেলায় ডিসি পদে পরিবর্তন আনা হলো।বুধবার এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। কয়েকটি জেলায় বদলির মাধ্যমে এবং বাকি জেলায় নতুন কর্মকর্তাদের ডিসি করা হয়েছে। সম্প্রতি ১৩ জন ডিসিকে (উপসচিব) পদোন্নতি দিয়ে যুগ্ম সচিব করা হয়েছে। ফলে ধারণাই করা হচ্ছিল, ডিসি পদে বড় পরিবর্তন হতে যাচ্ছে। উল্লেখ্য, ডিসির পদটি উপসচিব পদমর্যাদার।

‘আত্মহত্যা’ বলা হলেও ১০ মাস পর জানা গেল, মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হয়েছিল-প্রথম আলো

রাজধানীর রামপুরার পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় এক কিশোরী গৃহকর্মীর মৃত্যু হয়েছিল ১০ মাস আগে। তখন রাজিন বলেছিলেন, মেয়েটি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এখন ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, ধর্ষণের শিকার হয়ে ওই কিশোরী গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। এ বিষয়ে ওই কিশোরীর মা মঙ্গলবার রামপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।

রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বুধবার রাতে প্রথম আলোকে বলেন, সাড়ে ১১ বছরের মেয়েটিকে কারা ধর্ষণ করেছে, তার কোনো প্রত্যক্ষদর্শী নেই। এখন তদন্তে ধর্ষককে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা হবে।

কিশোরীর মায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় বলা হয়, তাঁর মেয়ে পূর্ব হাজীপাড়ায় রাজিন আহম্মেদের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত। চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি মেয়ে তার মাকে ফোন করে জানায়, তার ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে, সে আর এই বাসায় কাজ করবে না। পরদিন ২৯ জানুয়ারি বিকেলে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী রিফাত জাহান মেয়ের মাকে ফোন করে বলেন, আপনার মেয়ের সমস্যা হয়েছে। তাঁরা তাকে স্থানীয় বেসরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন। কিশোরীর স্বজনেরা ওই হাসপাতালে গিয়ে জানতে পারেন, মেয়েটি মারা গেছে। তবে রাজিন আহম্মেদ ও তাঁর স্ত্রী তখন দাবি করেন, কিশোরী গৃহকর্মী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়।

মামলায় বলা হয়, মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় রামপুরা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছিল। কিন্তু মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় তার মা রাজিন আহম্মেদ ও রিফাত জাহানের বিরুদ্ধে আদালতে নালিশি মামলা করেন। পরে মেয়ের মা অপমৃত্যু মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তওফিকা ইয়াসমিনের কাছে জানতে পারেন, তাঁর মেয়ে ফাঁসিতে ঝুলে থাকায় শ্বাসরোধ হয়ে মারা গেছে এবং এর আগে সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। রাজিন আহম্মেদের বাড়িতে অনেকেই থাকতেন এবং আসতেন। ধারণা করা হচ্ছে, তাঁদের কেউ মেয়েটিকে ধর্ষণ করেছেন। সম্ভ্রমহানির অপমান সইতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

এদিকে, প্রথম আলোর অপর এক খবরে লেখা হয়েছে, ধর্ষণ মামলার আসামি হিসেবে আগেই সাময়িকভাবে বরখাস্ত হয়েছিলেন উপসচিব এ কে এম রেজাউল করিম। এবার তাঁকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠাল সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ২১ নভেম্বর এক প্রজ্ঞাপনে অসদাচরণের দায়ে রেজাউল করিমকে অবসরে পাঠানোর কথা জানিয়েছে।

 প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, উপসচিব রেজাউল করিম জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রে পরিচালক থাকার সময়ে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়। তদন্ত শেষে আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০–এর ৯(১) ধারায় (ধর্ষণের অভিযোগ) অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

পরিবারের হাল ধরতে বাড়ছে শিশুশ্রম-ইত্তেফাক

অভাব-অনটনের কারণে পরিবারসমূহের হাল ধরতে বাড়ছে শিশুশ্রম। খাবারের রেস্টুরেন্ট, মোটর ওয়ার্কশপ, বস্ত্রবিতান, চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন ধরনের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে শিশুদের কাজ করতে দেখা যায়। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার হাটবাজারসহ জেলার বিভিন্ন হাটবাজারে, মফস্বল এলাকা ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের কিছু ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে শিশুরা কাজ করছে।

এবারে কোলকাতার কয়েকটি খবরের বিস্তারিত:

ইঁদুরে খেয়েছে ৫০০ কেজি গাঁজা! আদালতে বলল যোগীর পুলিশ-সংবাদ প্রতিদিনের এ খবরে লেখা হয়েছে, বই-খাতা-পত্তর ইঁদুরে কাটে বটে। তাই বলে গাঁজা খাবে! যদিও আদালতে যোগীর পুলিশ এমনটাই দাবি করেছে। তাও আবার একটু-আধটু না। মথুরায় নিম্ন আদালতে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ জানিয়েছে, থানার বাজেয়াপ্ত জিনিসের গুদাম থেকে ৫০০ কেজিরও বেশি গাঁজা খেয়ে ফেলেছে ইঁদুর। যদিও একথা পছন্দ হয়নি বিচারকের। ইঁদুরেই যে গাঁজা খেয়েছে তার তথ্যপ্রমাণ দাখিল করতে বলেছেন তিনি।

মথুরার আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি বছরের শুরুতে দুষ্কৃতীদের থেকে কয়েকশো কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছিল পুলিশ। এই বিষয়ের মামলার শুনানিতে বাজেয়াপ্ত গাঁজার খোঁজ পড়ে। তখনই আদালতে পুলিশের তরফে জানানো হয়, বাজেয়াপ্ত হওয়া ৫৮১ কেজি গাঁজা যার বাজার মূল্য ৬০ লক্ষ টাকা, তা ইঁদুরে খেয়ে নিয়েছে। 

ধর্ষকের সঙ্গে বিয়ের জন্য চাপ, গায়ে আগুন দিয়ে আত্মঘাতী নির্যাতিতা! চাঞ্চল্য উত্তরপ্রদেশে-সংবাদ প্রতিদিন

যোগীরাজ্যে আরও এক নির্যাতিতার মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা ফের প্রকাশ্যে এল। ধর্ষকের সঙ্গেই বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী হল এক নাবালিকা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ফারুখাবাদের ফতেগড় থানা এলাকায়।২০২১ সালের ৮ জানুয়ারি ১৬ বছরের ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ (Rape) করে দুই ব্যক্তি। গণধর্ষণের ঘটনায় পুলিশ দুজনকেই গ্রেফতার করে। গত আগস্টে জামিনে দু’জনই জেল থেকে ছাড়া পায়। এরপরই শুরু হয় নির্যাতিতাকে নানা ভাবে চাপ দেওয়া। ধর্ষণে অভিযুক্তরাই তাকে চাপ দেয় এক অভিযুক্তকে বিয়ে করার জন্য। শেষ পর্যন্ত গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয় সে। তখন মাঠে কাজ করছিল তার বাবা। চিৎকার শুনে দৌড়ে ঘরে এসে দেখেন এই কাণ্ড। গুরুতর জখম অবস্থায় তাকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, নাবালিকার দেহের ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল।

নাবালিকার মৃত্যুর পর ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। নড়েচড়ে বসে পুলিশ। অভিযুক্ত দু’জনের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দ্রুত তাদের গ্রেপ্তার করবে পুলিশ। সংবাদ মাধ্যমে নাবালিকার বাবা বলেন, ‘‘ওই দু’জন আমার মেয়েকে শেষ করে দিল। মেয়ের মোবাইলে ওরা মেসেজ পাঠাত। হুমকি দিয়ে বলত, কথা না শুনলে গোটা পরিবারকে শেষ করে দেওয়া হবে। সেই চাপ সহ্য করতে না পেরে মেয়ে গায়ে আগুন দেয়।’’

উল্লেখ্য, বারবার নারী নির্যাতনের ঘটনায় উঠে এসেছে উত্তরপ্রদেশের নাম। হাথরাস থেকে উন্নাও- একের পর এক ধর্ষণের ঘটনায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছে বিরোধীরা। পরিসংখ্যান বলছে, এই মুহূর্তে খুন, নারীদের উপর অত্যাচারে দেশে সবার আগে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য। ফারুখাবাদের ঘটনা ফের সেই দিকেই নির্দেশ করছে।

ভারত জোড়ো যাত্রায় রাহুলের সঙ্গে পা মেলালেন প্রিয়ঙ্কা, উপস্থিত সচিন পায়লট-আজকাল

ভারত জোড়ো যাত্রা, গত মাসখানেক ধরে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী ঘুরছেন খোদ রাহুল। ঘুরছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা যেভাবে হেঁটে ভারত দর্শন করছেন, মানুষের কাছে পৌঁছে যাচ্ছেন, এবং তাতে প্রথম থেকেই রাহুলের উপস্থিতি নজর কেড়ছে সকলের। বৃহস্পতিবার ৭৮ দিনে পড়ল ভারত জোড়ো যাত্রা। গত কয়েকমাসে চর্চায় রয়েছে কংগ্রেস এবং 'ভারত জোড়ো যাত্রা'। সেই যাত্রাতেই এবার বোনকে পাশে পেলেন রাহুল। রাহুলের সঙ্গে পা মেলালেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। ইতিমধ্যে সেই ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে পাশাপাশি হাঁটছেন রাহুল-প্রিয়ঙ্কা। উপস্থিত আছেন প্রিয়ঙ্কার স্বামী রবার্ট বঢরা। রাহুল প্রিয়ঙ্কা ছাড়াও ভারত জোড়োর পদযাত্রায় দেখা গিয়েছে সচিন পায়লটকে। স্বাভাবিক ভাবেই সচিনের উপস্থিতি নিয়ে জোর চর্চা রাজনৈতিক মহলে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে রাহুলের সঙ্গে পদযাত্রায় সচিনের উপস্থিতি এই মুহূর্তে যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ।#

পার্সটুডে/গাজী আবদুর রশীদ/২৪

ট্যাগ