ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০ ১৬:১৭ Asia/Dhaka

ক. বন্ধুরা, অনেক অনেক প্রীতি আর শুভেচ্ছা নিন। আশা করছি সবাই ভালো আছেন। আজকের আসর শুরু করব ইমাম মোহাম্মাদ বাকির (আ.)-এর একটি হাদিস শুনিয়ে। তিনি বলেছেন, এমন তিনটি বিষয় আছে যেগুলোর ব্যাপারে মহান আল্লাহ কাউকে ছাড় দেননি।

আর ঐ বিষয়গুলো হচ্ছে: ১. যে কোন ব্যক্তির আমানত তার কাছে পৌঁছে দিতে হবে তা সে সৎ হোক বা অসৎ হোক, ২. কাউকে প্রতিশ্রুতি দিলে তা পালন করতে হবে চাই সে ব্যক্তি সৎ হোক বা অসৎ হোক এবং ৩. পিতা-মাতার প্রতি সদাচরণের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম পালন করতে হবে অর্থাৎ তারা ভালো না খারাপ সে বিচার করা যাবে না।

খ. দেখুন মূল্যবান বাণী শুধু শুনলেই চলবে না। বরং এ বাণী জীবনে বাস্তবায়নের চেষ্টা করতে হবে। এভাবে চেষ্টা অব্যাহত রাখলে একদিন আমরা সঠিক পথে চলতে শুরু করবো। আসুন সবাই সে চেষ্টা করি।  আসরের প্রথমেই হাতে তুলি নিচ্ছি বাংলাদেশ থেকে আসা একটি ইমেইল। গোপালগঞ্জ জেলার ঘোড়াদাইড়ের মধুমতী বেতার সংঘ থেকে এটি পাঠিয়েছেন রেডিও তেহরানের পুরনো শ্রোতাভাই ফয়সাল আহমেদ শিপন।

বহলুল: বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের ওপর আলোকপাত করা হয়েছে এ ইমেইলে।

ক. জ্বি এটি হলো সড়ক দুর্ঘটনা। তিনি লিখেছেন, সড়ক দুর্ঘটনা শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা বিশ্বে নিত্য-নৈমিত্তিক ঘটনা। তবে সভ্যতা ও আইন মানা না মানার মাত্রায় দেশ ভেদে দুর্ঘটনার হার কম বা বেশি হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য মতে, বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিদিন গড়ে ৫৫ব্যক্তির প্রাণহানি হচ্ছে। আর বাংলাদেশ রিসার্চ ইন্সটিটিউটের গবেষণা বলছে, দেশে প্রতি বছর সড়ক দুর্ঘটনায় গড়ে ১২ হাজার মানুষ নিহত ও ৩৫ হাজার আহত হন।  এই পটভূমিতে নতুন সড়ক পরিবহন আইন সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে বড় ধরনের ভূমিকা রাখবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

বহলুল: সড়কে মনে হয় এক ধরণের অঘোষিত যুদ্ধ চলছে আর এর শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। এ রক্তপাত বন্ধ হওয়া দরকার।

খ. সত্যি বহলুল ভাই, চমৎকার একটি পরিভাষা ব্যবহার করেছেন- অঘোষিত যুদ্ধ। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের অনেকেই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হারিয়ে দৈহিক সক্ষমতা হারান এবং সারাজীবনের জন্য অন্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। এ বিষয়গুলো খবরে তেমনভাবে উঠে আসে না। কিংবা এদিকে মনোযোগ দেয়ার মতো সময় যেন নেই সংবাদ মাধ্যমগুলোর।

ক. সত্যিই তাই। কারণ জনমত গড়ে তোলার মতো খবর বা মানবিক গল্প খুবই কম প্রচার করছে সংবাদ মাধ্যম। যাই হোক একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই শিপন।

বহলুল: তাহলে এবারে কথা হবে শ্রোতা বন্ধুদের সঙ্গে। না মানে শ্রোতা বোনের সঙ্গে। বাংলাদেশের খুলনা জেলার শ্রোতা বোন শারমিন রিমা টেলিফোনের ওপাশে রয়েছেন।

খ. হ্যাঁ তিনি বিশ্বে রেডিও তেহরানের ভূমিকা নিয়ে কথা বলেন। তা হলে আসুন শুনি কি বলছেন বোন রিমা...

ক. রেডিও তেহরানের ভূমিকা রীতিমতো কোনো বিপ্লবের চেয়ে কম নয়- আপনার এ উপলব্ধির জন্য একান্ত ধন্যবাদ বোন রীমা। হ্যাঁ এতোক্ষণ বাংলাদেশের শ্রোতাবোন শারমিন রিমার কথা শুনছিলেন। আর হ্যাঁ ভাই বোনেরা আপনাদের কথা শুনতেও কিন্তু আমরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। ....

বহলুল; এ পর্বে কি যেন করবো?! ও হ্যাঁ রেডিও তেহরানের অফিসিয়াল ফেসবুক গ্রুপ এবং রেডিও তেহরানের ওয়েবসাইটের খবরে যে মন্তব্য হয়েছে সে দিকে নজর দেবো।

খ. ভাগ্যিস মনে করতে পেরেছেন। তা যাক, আজ আমি শুরু করছি। হ্যাঁ কনস্যুলেটে হামলা: ইরানকে খারাপ পরিণতির হুমকি দিলেন সৌদি কূটনীতিক শীর্ষক খবরটি প্রকাশিত হয়েছে ২৯ নভেম্বর। এ খবরে বলা হয়েছে, ইরাকের নাজাফ শহরের ইরানি কনস্যুলেট ভবনে মুখোশধারী দুষ্কৃতকারীদের অগ্নিসংযোগের পর তেহরানকে আরো খারাপ পরিণতির হুমকি দিয়েছেন একজন সৌদি কূটনীতিক। ফেসবুকের এ খবরে বেশ কড়া মন্তব্য হয়েছে।

বহলুল: কড়া তো কড়া এক্কেবারে দাঁতভাঙ্গা।

ক. এ্যাই দেখুন, পুরনো পাঠক বন্ধু শাহান মারুফ লিখেছেন, উক্ত সংবাদের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়ে গেল যে, সাম্প্রতিক সময়ে ইরাকে নাশকতামূলক কাজ-কারবারের অন্যতম অংশীদার হচ্ছে সৌদি আরব! এদিকে পাগল সমাচার বলে মন্তব্য করেছেন বন্ধু মাহদি হাসান মাসুম।

বহলুল: দাঁত নয় এক্কেবারে হাড্ডিভাঙ্গা। মানে পাটকেল ছোঁড়া হয়েছে কিন্তুও এতেও কি চোখ খুলবে সৌদিওয়ালাদের?

খ. না মোটেও না। কারণ কারো চোখ-কান বন্ধ থাকলে এবং বুদ্ধি ঘোলাটে হয়ে গেলে সে কখনও কিছু বোঝার চেষ্টা করে না।

 বহলুল: সত্যি বলতে কি পাঠক বন্ধুদের মুখ থেকে পুরাই হক কথাই বের হয়ে এসেছে। এ কথা যে কেউ বুঝতে পারবেন। কিন্তু এদিকে আসরের সময় ফুরিয়ে এসেছে।

ক. হ্যাঁ ভাই বোনেরা আসরের সময় ফুরিয়ে আসায় আজ এখানেই ঝাঁপি বন্ধ করতে হচ্ছে। সবার সুন্দর জীবন কামনা করছি।#

ট্যাগ

মন্তব্য