মে ০৯, ২০২০ ২০:৫৪ Asia/Dhaka

ক. বন্ধুরা, আপনাদের অনেক অনেক সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আপনাদেরই চিঠিপত্রের আসর প্রিয়জন। আশা করছি সবাই ভালো আছেন। প্রতি আসরের মতো আজও আলোচনা শুরু করবো একটি হাদিস শুনিয়ে। ইমাম আলী ইবনে মুসা রেজা (আ.) বলেছেন, মহান আল্লাহর প্রতি ঈমান আনার পর আকল বা বুদ্ধিবৃত্তির সর্বোচ্চ চূড়া হচ্ছে মানুষের সঙ্গে বন্ধুত্ব এবং ভালো মন্দ নির্বিশেষে সবার সাথে সদাচরণ করা।

খ. মূল্যবান হাদিস শুনলাম। তবে হ্যাঁ আমরা অমিয় বাণী শুনবো এবং তা মেনে চলবো। অবশ্য দিনের পর দিন চেষ্টা এবং অনুশীলন করা ছাড়া এ সব বাণী আমাদের জীবনে বাস্তবায়িত করা সম্ভব হয়ে উঠবে না- সে কথাও আমাদের মনে রাখতে হবে।

ক. হ্যাঁ! শ্রোতাবন্ধুরা আজকের আসরের প্রথমেই হাতে তুলে নিয়েছি যে চিঠি তা এসেছে বাংলাদেশ থেকে।  নওগাঁ জেলার মান্দার সেতু  রেডিও ফ্যান ক্লাব থেকে এটি লিখেছেন এ ক্লাবের সভাপতি সুলতান মাহমুদ সরকার। রেডিও তেহরানের পুরনো এ শ্রোতা ভাই নিজেকে রেডিও তেহরান বাংলা অনুষ্ঠানের নিয়মিত শ্রোতা হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ইরানের ইসলামী বিপ্লবের ৪১তম বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান থেকে ইমাম খোমেনী (রহ)এর নেতৃত্বাধীন ইসলামী বিপ্লবের ইতিহাস শুনে ভালো লাগছে। তদানীন্তন রেজাশাহ পাহলভি সরকারের দমন নিপীড়নের কথা শুনলে গা শিউরে ওঠে।

বহলুল: ধন্যবাদ ভাই সুলতান মাহমুদ। ইরানের ইসলামি বিপ্লব সম্পর্কে আপনার সঠিক উপলব্ধি আমাদের ভালো লেগেছে। ভবিষ্যতে আরও চিঠি দিবেন এবং অনুষ্ঠান সম্পর্কে মতামত জানাবেন।

ক. আজ তা হলে কথা শুনি...

বহলুল: মরণোত্তর চোখ দানের বিষয়টি এখনও মাথায় ঘুরছে। মাথায় ঘুরছে মো সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর কথা। উনি একটা আহ্বান জানিয়েছিলেন এবারে না হয় তাই শুনি।

ক. বুঝেছি, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় অবস্থিত সন্ধানী ইন্টারন্যাশনাল আই ব্যাংকের সমন্বয়কারী বা কো-অর্ডিনেটর মো সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর কথা বলছেন। সত্যিই হৃদয়স্পর্শী কথা বলেছেন উনি।

খ. হ্যাঁ তার কথা আমাদের ভালো লেগেছে আর বিষয়টিও অতি গুরুত্বপূর্ণ। তাই জনাব মো সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর কথাই আবার শুনি ....

বহলুল: সত্যিই হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া এ কথা। আশা করি সবাই এ আহ্বানে সাড়া দিবেন।

ক. ভাই সাইফুল ইসলাম চৌধুরির কথার সঙ্গে সহমত পোষণ করে বলছি, সদকায়ে জারিয়ার এত বড়ো সুযোগ কমই রয়েছে। চোখ দান কর্মসূচিকে সহায়তা করবেন সবাই এ প্রত্যাশা করছি। বন্ধুরা এতোক্ষণ বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় অবস্থিত সন্ধানী ইন্টারন্যাশনাল আই ব্যাংকের সমন্বয়কারী মো সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর কথা শুনছিলেন। ...

খ. বহলুল ভাই রেডিও তেহরানের ফেসবুক গ্রুপে প্রকাশিত একটি খবর দিয়ে শুরু করছি আজকের আসর কি বলেন?

বহলুল: ধন্যবাদ। তা হলে শুরু করুণ।

খ. হ্যাঁ  মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের প্রভাব প্রতিহত করুন: ন্যাটোর প্রতি আমেরিকার আহ্বান- শীর্ষক খবরটি প্রকাশিত হয়েছে ১৩ ফেব্রুয়ারি। এ খবরে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে বিশেষ করে ইরাকে ইরানের কথিত প্রভাব ঠেকানোর জন্য নিজের নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোটের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আমেরিকা।

ক. ফেসবুক গ্রুপে এ খবরে অনেক মন্তব্যের অন্যতম হলো, গোলামকে কি প্রভু নির্দেশ দিয়েছে? ন্যাটোকে কি তারা আজ্ঞাবহ গোলাম মনে করে?

বহলুল: খাইছে আমারে। মানুষ কি করে ভেতরের বিষয় জেনে যায়! থাক! স্ব ঘোষিত মাতব্বররা কি বুঝতে পারছেন যে মানুষ তাদের গোমর ধরে ফেলছে!

খ. এদিকে ইরান ও প্রতিরোধ সংগ্রামের সঙ্গে থাকলে বিজয় নিশ্চিত- শীর্ষক খবরটি প্রকাশিত হয়েছে ১২ ফেব্রুয়ারি। এ খবরে বলা হয়েছে, লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর উপ-মহাসচিব শেখ নাঈম কাসেম বলেছেন, যারাই ইসলামি ইরান ও ইসলামি প্রতিরোধ সংগ্রামের সঙ্গে থাকবে তারাই বিজয়ী হবে। ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ৪১তম বিপ্লব বার্ষিকী উপলক্ষে তিনি একথা বলেন।

ক. ফেসবুক গ্রুপে এ খবরে অন্যতম মন্তব্য হলো, মূল্যায়ন সঠিক। এ মন্তব্য করেছেন বন্ধু ফারুক সিদ্দিক। অন্যদিকে বন্ধু এস এম গোলাম মুরশেদ লিখেছেন, ইনশাআল্লাহ!

বহলুল: আমরা সবাই এ সাথে সুর মিলিয়ে বলতে পারি ইনশাল্লাহ।

খ. ঠিকই বলেছেন বহলুল ভাই। এদিকে ইরান অন্য দেশে হামলা চালাতে শক্তি বাড়াচ্ছে না- শিরোনামের খবরটি প্রকাশিত হয়েছে ১০ ফেব্রুয়ারি। এ খবরে বলা হয়েছে, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিমান বাহিনীর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আজিজ নাসিরযাদেহ বলেছেন, ইরানের সামরিক শক্তি কেবলি প্রতিরক্ষার জন্য। বিশ্বের কোনো দেশে হামলা চালানোর ইচ্ছা তেহরানের নেই।

ক. ফেসবুক গ্রুপে এ খবরে আশিকুল ইসলাম লিখেছেন, অন্যদেশ যে ইরানে হামলার জন্য পাঁয়তারা করছে!

বহলুল: জি ভাই আশিকুল ইসলাম। সেজন্যই ইরান প্রস্তুতি নিচ্ছে।  যাই হোক আপনাকে ধন্যবাদ। এবারে আসর গুটাতে হবে।

খ. হ্যাঁ। এবারে আসর শেষ করার ঘোষণা দেয়া হোক।

ক. জ্বি । শ্রোতাবন্ধুরা এবারে প্রিয়জনের আসর গুটানোর পালা। যারা ইমেইল করেছেন, মন্তব্য করেছেন, প্রিয়জনের আসরে সঙ্গ দিয়েছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ। ভবিষ্যতেও সঙ্গ দেবেন এ কামনা করে আজ এখানেই বিদায় চাইছি।#

ট্যাগ

মন্তব্য