সেপ্টেম্বর ১২, ২০২০ ১৫:৫৮ Asia/Dhaka

প্রিয় শ্রোতা ভাই ও বোনেরা, আপনাদের সবাইকে অনেক অনেক প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি চিঠিপত্রের আসর প্রিয়জন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় রয়েছি যথারীতি আমি নাসির মাহমুদ, আমি আকতার জাহান এবং আমি আশরাফুর রহমান।

আশরাফুর রহমান: প্রত্যেক আসরের মতো আজও আমি একটি হাদিস শুনিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করতে চাই। আহলে বাইতের অন্যতম মহান ব্যক্তিত্ব ইমাম রেজা (আ.) বলেছেন, "জ্ঞান ও প্রজ্ঞা হচ্ছে এমন এক গচ্ছিত সম্পদের মতো যার চাবি হল, প্রশ্ন। আল্লাহর রহমত তোমাদের ওপর বর্ষিত হোক, কারণ প্রশ্নের মাধ্যমে চার গ্রুপ তথা প্রশ্নকারী, শিক্ষার্থী, শ্রবণকারী ও প্রশ্নের উত্তরদাতা সবাই সওয়াব বা পুরস্কার লাভ করেন।"

আকতার জাহান: প্রশ্ন করার পুরস্কার সম্পর্কে চমৎকার একটি বাণী শুনলাম। আমাদের শ্রোতাবন্ধুরাও ইদানীং নিয়মিত প্রশ্ন করছেন আমাদের কাছে। আমরাও সাধ্যমত চেষ্টা করছি তাদের কৌতুহল মেটাতে। আজকের আসরেও একাধিক প্রশ্নের জবাব দেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে। প্রশ্নসহ আসরের প্রথম চিঠিটি পাঠিয়েছেন বগুড়ার চাঁদনী বাজার থেকে আমাদের নিয়মিত শ্রোতা সাইফুল ইসলাম। সালাম ও শুভেচ্ছা জানানোর পর অনুষ্ঠান সম্পর্কে তিনি লিখেছেন-

নাসির মাহমুদ: গত ২৩ জুলাইয়ে প্রচারিত রংধনু আসরটি দারুণভাবে উপভোগ করলাম। এতে হিজরী সপ্তম শতকের বিখ্যাত কবি ও আধ্যাত্ত্বিক ব্যক্তিত্ব মাওলানা জালালুদ্দিন রুমির বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ মসনবী সম্বন্ধে অনেক কথা শুনলাম। দীর্ঘ ১৪ বছরে রচনা করা তাঁর এই অসাধারণ গ্রন্থের তিনটি গল্প শ্রোতাদের উপহার দিলেন আপনারা। এগুলি হলো- শিকারী পাখির প্রতি ৩টি উপদেশ, বাজপাখি ও পেঁচার গল্প এবং দোকানদার ও তোতাপাখি। গল্প তিনটি ভীষণ ভালো লেগেছে আমার।  এইদিন আরো শুনলাম ঢাকার ছোট্ট বন্ধু সাইয়ারা জান্নাত সানিতা'র সাক্ষাৎকার। চমৎকার কবিতা আবৃত্তি তার। ভালো লেগেছে এই দিনের পরিবেশনা।

আকতার জাহান: আগেই বলেছিলাম সাইফুল ভাই একটি প্রশ্ন করছেন। জানতে চেয়েছেন- ইরানে আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সংখ্যা কতো?

আশরাফুর রহমান: ইরানে ছোট-বড় মিলিয়ে মোট বিমানবন্দরের সংখ্যা ৩১৯টি। এরমধ্যে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সংখ্যা ১৮টি। বিমানবন্দরের সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে ইরানের অবস্থান ২২তম।

নাসির মাহমুদ: আসরের পরের মেইলটি পাঠিয়েছেন ফরিদপুর জেলার মধুখালী থানার জগন্নাথদী গ্রাম থেকে এম এম গোলাম সারোয়ার। এ শ্রোতাবন্ধু লিখেছেন-

আকতার জাহান: আমি রেডিও তেহরানের বাংলা অনুষ্ঠানের দীর্ঘ দিনের পুরোনো শ্রোতা। আমি আগের মতো অতোটা লিখতে না পারলেও নিয়মিত শুনি। আপনারা যেভাবে রেডিও তেহরানকে ভালো ভালো অনুষ্ঠান দিয়ে সাজিয়েছেন,

তাতে আমার দৃঢ় বিশ্বাস অল্প সময়ের মধ্যেই শ্রোতা বিপ্লব ঘটবে। বিশেষ করে মাসিক শ্রেষ্ঠ শ্রোতা নির্বাচন সংক্রান্ত ঘোষণা। আমি রেডিও তেহরানকে নিয়ে অনেক আশাবাদী।

নাসির মাহমুদ: গোলাম সারোয়ার ভাই একগুচ্ছ প্রস্তাবও দিয়েছেন। এগুলো হলো,

১. শ্রেষ্ঠ শ্রোতা ক্লাব পুরস্কার চালু করা, ২. প্রতি বছর ঢাকায় শ্রোতা সম্মেলন করা ৩. মাসিক কুইজের পাশাপাশি বাৎসরিক এবং ইসলামী প্রজাতন্ত্রের জাতীয় ও অন্যান্য বিশেষ দিবস উপলক্ষে বিশেষ কুইজের আয়োজন করা ৪. শ্রোতাক্লাব রেজিষ্ট্রেশন এবং ৫. উপহারসামগ্রী প্রদান।

আশরাফুর রহমান: ভাই গোলাম সারোয়ার, আপনার প্রস্তাবগুলো আমাদের বিবেচনায় থাকল। আশা করি নিয়মিত লিখবেন।

আসরের পরের মেইলটি এসেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমান জেলার চুপী থেকে। আর লিখেছেন ইন্টারন্যাশনাল মিতালি লিসনার্স ক্লাবের সভাপতি হাফিজুর রহমান। 

আকতার জাহান: অনেকদিন পর হাফিজুর রহমান ভাইয়ের চিঠি পেলাম। একসময় প্রিয়জনের প্রায় প্রতিটি আসরেই তার চিঠি থাকত। তো কী লিখেছেন এ শ্রোতাবন্ধু?

আশরাফুর রহমান: পবিত্র ঈদে গাদির উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানানোর পর তিনি লিখেছেন, রেডিও তেহরান থেকে প্রচারিত ঈদে গাদির নিয়ে বিশেষ পরিবেশনা মন ছুঁয়ে গেল। হযরত আলীর নানা বৈশিষ্ট্য তুলে ধরা হলো এই পরিবেশনায়।তাঁর আদর্শকে জীবনের সব ক্ষেত্রে অনুসরণ করার মধ্যেই রয়েছে মুসলিম উম্মাহর সার্বিক মুক্তি ও সৌভাগ্যের দিশা। ঈদের গাদির পালন করা তখনই সার্থক হবে যখন আমরা জীবনের সব ক্ষেত্রে আলী (আ)-কে অনুসরণের মাধ্যমে বিশ্বনবীর (সা) আদর্শকেই অনুসরণ করতে পারব। পবিত্র কুরআন ও হাদিসের আলোকে বিশ্বনবী (সা) ও তাঁর পবিত্র আহলে বাইতের আদর্শ অনুসরণ করা ছাড়া প্রকৃত মুসলমান হওয়া ও মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করা সম্ভব নয়। রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগকে আন্তরিক ধন্যবাদ সুন্দর ও তথ্যপূর্ণ অনুষ্ঠান উপহার দেওয়ার জন্য।

নাসির মাহমুদ: ঢাকার তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে ভাবনা খাতুন পাঠিয়েছেন এবারের চিঠিটি। তিনি মিছিল শ্রোতা সংঘের সভাপতি। এ শ্রোতাবোন লিখেছেন,

“রেডিও তেহরানের প্রচার ও প্রসারের জন্য গঠন করেছি ‘মিছিল শ্রোতা সংঘ’। আমরা ক্লাবের সবাই রেডিও তেহরানের বাংলা অনুষ্ঠানের উপর আস্থাশীল। কারণ এই বেতার কেন্দ্র আমাদের সঠিক পথের পথ দেখায়।”

চিঠির শেষাংশে ভাবনা খাতুন একটি প্রশ্ন করেছেন। জানতে চেয়েছেন- ইরানে সাপ্তাহিক ছুটি কোনদিন?

আকতার জাহান: ইরানে সাপ্তাহিক ছুটি একদিন। আর দিনটি হচ্ছে শুক্রবার।

আসরের এবারের চিঠিটি এসেছে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা থানার আলিফ উদ্দিন রোড থেকে। আর লিখেছেন- মোঃ নাজমুল ইসলাম। গত ১ আগস্ট তারিখে প্রচারিত সবগুলো অনুষ্ঠান শোনার পর তিনি এই চিঠিটি লিখেছেন। বিশ্বসংবাদ ও দৃষ্টিপাতের প্রশংসা করার পর এ শ্রোতাবন্ধু লিখেছেন,

আশরাফুর রহমান:  রেডিও তেহরানের অনুষ্ঠানমালার মধ্যে আমার প্রিয় একটি অনুষ্ঠান  ‘ইরান ভ্রমণ’। এটার জন্য আমি সারাটা সপ্তাহ অপেক্ষা করি। গাজী আবদুর রশীদ ভাই ও আকতার জাহান আপার চমৎকার উপস্থাপনায় ইরানের ইয়াজদ প্রদেশের দৌলতাবাদ উদ্যান সম্পর্কে জানতে পেরে সত্যিই আমি মুগ্ধ। আজ থেকে ২৭০ বছর পূর্বে এই মরুভূমির মধ্যে নির্মিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় বায়ু প্রবাহ সিস্টেম যে বিশ্ব ঐতিহ্যের একটি- তা আমার জানা ছিল না।

নাসির মাহমুদ: রাজবাড়ি জেলার পাংশা থানার ধুমপান মুক্ত বেতার শ্রোতা ক্লাব থেকে এই চিঠিটি পাঠিয়েছেন মো. আব্দুর রহমান। তিনি ওই ক্লাবের সভাপতি। আব্দুর রহমান ভাই জানিয়েছেন রেডিও তেহরানে এটাই তার প্রথম চিঠি। অবশ্য চিঠিতে তিনি তেমন কিছু লিখেননি। কেবল জানতে চেয়েছেন- আপনাদের বেতারে কুইজের অনুষ্ঠান কি বারে এবং কয়টায় প্রচার হয়?

আকতার জাহান: ভাই আব্দুর রহমান, প্রথম চিঠির জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আর হ্যাঁ, আপনার অবগতির জন্য বলছি- রেডিও তেহরানে কুইজের জন্য আলাদা কোনো অনুষ্ঠান প্রচার করা হয় না। প্রতিমাসিই কুইজ প্রতিযোগিতার প্রশ্ন আমাদের ওয়েবসাইটেই আপডেট করা হয়। আপনি ইচ্ছে করলে parstoday.com/bn এই ওয়েবসাইটে লগইন করে ‘কুইজ প্রতিযোগিতা’ ক্যাটাগরিতে গিয়ে প্রশ্নগুলো দেখে নিতে পারেন।

আশরাফুর রহমান: আসরের শেষ চিঠিটি এসেছে কিশোরগঞ্জের গুরুদয়াল সরকারি কলেজ থেকে। আর পাঠিয়েছেন মোঃ শাহাদত হোসেন। ইরানের সর্বোচ্চ নেতার হজবাণীর প্রশংসা করে তিনি লিখেছেন, “আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী’র হজবাণীটি আমি গভীর মনোযোগ দিয়ে শুনেছি। চমৎকার একটি ভাষণ। তাঁর প্রতিটি বাক্যই জোড়ালো ও যুক্তিশীল। তিনি কোরআন থেকে অনেক উদ্বৃতি দিয়ে তাঁর বক্তব্যকে আরো মননশীল ও গ্রহণযোগ্য করে তুলেছেন। তাঁর বাণীতে ইসলামের ইতিহাস-ঐতিহ্য যেমন স্থান পেয়েছে, তেমনি বর্তমানে মুসলমানদের করণীয় সম্পর্কেও পথনির্দেশনা রয়েছে। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী তাঁর ভাষণে মুসলিম ঐক্যের জোরদারের আহ্বান জানিয়েছেন। তাঁর সাথে সহমত পোষণ করে আমরাও বিশ্বের সকল মুসলিম নেতাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার অনুরোধ জানাই।”

নাসির মাহমুদ: আমাদের অনুষ্ঠান সম্পর্কে মতামত জানিয়ে আরও যারা চিঠি লিখেছেন আমি তাদের কয়েকজনের নাম-ঠিকানা জানিয়ে দিচ্ছি।

  •  কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে যুবরাজ চৌধুরী
  • গাজীপুরের টঙ্গীর বিসিক শিল্প এলাকার পতাকা শ্রোতা সংঘের সভাপতি লামিয়া খন্দকার
  • ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার নওপাড়া শিমুলিয়া থেকে নিজামুদ্দিন সেখ

আকতার জাহান: আমাদের অনুষ্ঠানের শ্রবণমান জানিয়ে রিপোর্ট পাঠিয়েছেন বেশ কয়েকজন শ্রোতা। আমি তাদের পরিচয় তুলে ধরছি।

  • ভারতের ছত্তিশগড় থেকে আনন্দমোহন বাইন
  • পূর্ব বর্ধমান থেকে হাফিজুর রহমান।
  • পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ থেকে মুহাম্মদ নাজিমউদ্দিন
  • তামিলনাডুর চেন্নাই থেকে এন অরুণ কুমার
  • বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ থেকে মো. শাহাদত হোসেন
  • রাজবাড়ি থেকে শাওন হোসাইন।

আশরাফুর রহমান: তো যারা মতামত ও শ্রবণমান রিপোর্ট জানিয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন তাদের সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়ে গুটিয়ে নিচ্ছি চিঠিপত্রের আজকের আসর

নাসির মাহমুদ: কথা হবে আবারো পরবর্তী আসরে। সে পর্যন্ত ভালো, সুস্থ ও নিরাপদে থাকুন।#

 

 

ট্যাগ

মন্তব্য