জুন ১৫, ২০২১ ১৭:৪২ Asia/Dhaka

সুপ্রিয় পাঠক/শ্রোতা: ১৫ জুন মঙ্গলবারের কথাবার্তার আসরে স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আবদুর রশীদ। আশা করছি আপনারা প্রত্যেকে ভালো আছেন। আসরের শুরুতে ঢাকা ও কোলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বাংলা দৈনিকগুলোর বিশেষ বিশেষ খবরের শিরোনাম তুলে ধরছি।

বাংলাদেশের শিরোনাম :

  • করোনা পরিস্থিতি দেখে এসএসসি ও এইচ এসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত-শিক্ষামন্ত্রী-ইত্তেফাক
  • রোহিঙ্গাদের অজ্ঞাতে ডাটা শেয়ারের অভিযোগ জাতিসংঘের বিরুদ্ধে- মানবজমিন
  • নাসির ইউ মাহমুদ, অমিসহ পাঁচজনকে ১০ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ-প্রথম আলো
  • মতামত-পরীমনির কান্না অথবা নিখোঁজ ইসলামি বক্তা
  • পরীমনির মতো সৌভাগ্য হয়নি আবু ত্ব-হার পরিবারের!-দৈনিক যুগান্তরকোনো প্রকৃত আলেম ও বুজুর্গ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়নি-ধর্ম প্রতিমন্ত্রী- কালের কণ্ঠ
  • তিনটি করে গাছ লাগানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর -বাংলাদেশ প্রতিদিন

ভারতের শিরোনাম:

  • শুভেন্দু-সাক্ষাতের পরই দিল্লি চললেন রাজ্যপাল, বৈঠক হতে পারে মোদী এবং শাহের সঙ্গে-আনন্দবাজার পত্রিকা
  • বাংলাকে পরাধীন করতে দেব না’, বিজেপির ‘বঙ্গভঙ্গ’ ষড়যন্ত্রে গর্জে উঠলেন মমতা -দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন
  • মুকুলের লিস্টে ৩৫, পাল্টা ৫০ জনকে নিয়ে রাজভবনে শুভেন্দু –আজকাল

বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি খবরের বিস্তারিত:

পরীমনি: অভিযুক্ত নাসির

চিত্রনায়িকা পরীমনি ও নিখোঁজ  আবু ত্ব-হার খবর বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে পরিবেশিত হয়েছি বিভিন্ন দৈনিকে। প্রথম আলোর একটি খবরের শিরোনাম-পরীমনির মামলার প্রধান আসামি নাসির ইউ মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ গ্রেপ্তার পাঁচজন। যুগান্তরের খবরে বলা হয়েছে, পরীমনিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টা মামলায় গ্রেফতার নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচ আসামিদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড নিতে আবেদন করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ।

প্রথম আলোর খবরটিতে লেখা হয়েছে, ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে চিত্রনায়িকা পরীমনির করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ৮ জুলাইয়ের মধ্যে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট (সিএমএম) আদালত এই আদেশ দেন।

ঢাকা জেলা পুলিশের পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সাভার থানায় করা চিত্রনায়িকা পরীমনির ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন আদালত। এই মামলার প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনেও মামলা করা হয়েছে।

Image Caption

ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে চিত্রনায়িকা পরীমনি গতকাল ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা করেন। এরপরে প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও আমিসহ মোট পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। তাঁদের কাছ থেকে মাদক ও ইয়াবা জব্দ করা হয়।

পরীমনি গত রোববার রাতে বনানীর নিজ বাসায় সাংবাদিকদের জানান, তিনি ৮ জুন রাতে পারিবারিক বন্ধু অমি ও ব্যক্তিগত রূপসজ্জাশিল্পী জিমির সঙ্গে বাইরে বের হন। বন্ধুটি তাঁদের নিয়ে যান আশুলিয়ার একটি ক্লাবে। সেখানে মদ্যপানরত কয়েকজনের সঙ্গে পরীমনির পরিচয় করিয়ে দেন অমি। ওই ব্যক্তিদের মধ্যে নাসির ইউ মাহমুদ হঠাৎ জোর করে তাঁর মুখে পানীয়র গ্লাস চেপে ধরেন এবং ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় মারধর করা হয় পরীর সঙ্গে থাকা জিমিকেও।

চিত্রনায়িকা পরীমনির অভিযোগ, ঘটনার পরপরই বনানী থানায় অভিযোগ করতে গিয়েছিলেন তিনি। তবে সে সময় দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনো কর্মকর্তা তাঁর অভিযোগ রেকর্ড করেননি; বরং সকালে এসে অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। এ সময় পুলিশের সাহায্যে পরীমনি হাসপাতাল পর্যন্ত গিয়েও আতঙ্কবশত চিকিৎসা না নিয়েই বাড়ি ফিরে যান। এ ঘটনায় মারাত্মক ভেঙে পড়েছেন পরীমনি। ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

রোববার সন্ধ্যার সময় ফেসবুক পোস্টে পরীমনি অভিযোগ করেন, তাঁকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। ফেসবুক পোস্টে এ অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার দাবি করেন পরীমনি।

চিত্রনায়িকা পরীমনি এত রাতে বোট ক্লাবে না গেলেও পারতেন বলে মন্তব্য করেছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর। মঙ্গলবার দুপুরে ডিবি অফিসের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।-যুগান্তর

তরুণ ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান

পরীমনির কান্না অথবা নিখোঁজ ইসলামি বক্তা- সাংবাদিক ও লেখক ফারুক ওয়াসিফ তার মতামত কলামে প্রথম আলো পত্রিকায় লিখেছেন, জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি যখন ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ নিয়ে থানায় গিয়ে হয়রান হচ্ছিলেন, ঠিক তখন রংপুরের এক তরুণ ইসলামি বক্তা তিন সঙ্গীসহ নিখোঁজ হন। তাঁদের স্বজনেরাও থানায় গিয়ে অভিযোগ দাখিল করতে ব্যর্থ হন। ওই একই সময়ে মধুপুরের ক্ষুদ্র জাতিসত্তার এক নারীকে বর্বরভাবে ধর্ষণ করে তিন মদ্যপ। কাছাকাছি সময়ে সাভারে ছুটির দাবিতে আন্দোলন করার সময় পুলিশের ধাওয়া খেয়ে পালাতে গিয়ে ধাক্কা খেয়ে মারা যান দুই সন্তানের জননী জেসমিন। পরীমনির কান্না আমরা দেখেছি, কিন্তু জেসমিনের সন্তানদের কান্নার সামনে ক্যামেরা নিয়ে যাবে কে? কে ক্ষুদ্র জাতিসত্তার ওই নারীকে চিকিৎসা করাবে, সুবিচার দেবে? তরুণ ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের স্ত্রী ও মায়ের কাছে তাঁকে ফিরিয়ে দেওয়ার কি কোনো কর্তৃপক্ষ আছে?

বোট ক্লাবের ঘটনা নিয়ে ফেসবুক সরগরম হয়ে আছে। সুন্দরী নায়িকার জন্য যে আবেগ ও আবেদন জাগে, সেটা কি একজন শ্রমিকের জন্য বা ক্ষুদ্র জাতিসত্তার নারীর জন্য বা নিখোঁজ বক্তার জন্য জাগছে? ওপরে বলা সব কটি ঘটনায় নারীরা ভুক্তভোগী। তাহলেও সবার যন্ত্রণার ওজন মাপার সমান বাটখারা আমাদের নেই। মানুষের আবেগও বাছাই করা, বিচারও বাছাই করা ব্যক্তিরাই পান। আমরা আইন ও প্রশাসনের বৈষম্যের কথা বলি, সরকারি পক্ষপাতের কথা বলি। অথচ নিজেদের হৃদয়ের আদালতে সবার কান্না সমান আলোড়ন তোলে না। আমাদের নৈতিকতার মাপকাঠি নারীর জন্য এক রকম, পুরুষের জন্য আরেক রকম। সহানুভূতির বাতাস ধনী ও মধ্যবিত্তের পালে যতটা লাগে, গরিবের ছেঁড়া পালে ততটা লাগে না।

পক্ষপাত যখন আমাদের মনে, তখন তার সুযোগ নেওয়া হবেই। পরীমনির কান্না দিয়ে ঢেকে দেওয়া হবে আদনানের স্ত্রীর কান্নাকে। এ সুযোগ আমরাই দিচ্ছি বলে পুলিশও বাছাই করা বিষয়ে তৎপর হবে। একজন মানুষ, তিনি যে ধর্মের হোন, যে চিন্তাভাবনা হোন, মানুষকে মানুষ হিসেবে দেখতে না পারার দেশে কিছু মানুষকে কম-মানুষ করে রাখা হয়। সুনামগঞ্জের শাল্লার ঝুমন দাস বিনা বিচারে আটক থাকবেন, রংপুরের তরুণ বক্তা আদনানকে খুঁজে বের করার চেষ্টা থাকবে না, প্রভাবশালীরা দ্রুত জামিন পাবেন, মোদির সফরের প্রতিবাদকারী অজস্র তরুণ জেলের ভেতর আটকা পড়ে থাকবে।

কথায় কথায় আমরা সরকারকে দোষ দিই। কিন্তু আমরা যেমন, তেমন সরকারই আমরা পাই। যে দেশে গণপিটুনির সামাজিক বৈধতা থাকে, সেই দেশে ক্রসফায়ারও সামাজিক সম্মতি পাবে। যে দেশে নারীকে একই সঙ্গে নিষিদ্ধ ও লোভনীয় ভাবাই রেওয়াজ, সেখানে তো যৌন নির্যাতনের ইস্যুকে খাটো করে দেখাই দস্তুর। তখনই দেখা যাবে, পরীমনির অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদ আটক হলেও মুনিয়া হত্যার প্রতিকার হবে না। বিষয়টি ধামাচাপা পড়ে যাবে এবং অভিযুক্ত আসামি স্বমহিমায় খেলার মাঠে বহাল থাকবেন। নিহত মেয়েটি ঠাঁই পাবে তনুর মতো বিচারহীন হত্যার শিকারদের খাতায়। কিছু হত্যা তাই তদন্তের তলায় চাপা পড়বে, কিছু ঘাতক উঠে যাবে আইনের ঊর্ধ্বে।

আবেগকেও তাই প্রশিক্ষিত করতে হয়। তা যেন একচক্ষু হরিণের মতো এক দিকেই না ছোটে। ফেসবুকে যাঁরা পরীমনির পক্ষে, তাঁরা বিপক্ষের যুক্তিবাদীদের সম্ভাব্য ধর্ষক বলছেন। আবার ব্যবসায়ী নাসিরকে যাঁরা ষড়যন্ত্রের শিকার বলে ভাবছেন, যাঁরা তাঁর ব্যাপারে সহানুভূতিশীল, তাঁরা পরীমনির পক্ষের মানুষদের অনৈতিকতার পূজারি গণ্য করবেন কেন? আদালতে দুই পক্ষের উকিলরা যখন সওয়াল-জবাব করেন, তখন কি তাঁরা একে অন্যকে শত্রু ভাবেন? ভাবেন না।

সমাজ কথাটার মধ্যে ‘সম’-এর ধারণা আছে। সব অন্যায়কে সমান চোখে দেখা, সব মানুষের মর্যাদা ও অধিকার সমান বলে ভাবাই সভ্যতা। আমরা পশ্চিমা সমাজের যতই দোষ ধরি না কেন, সেখানে মানুষে মানুষে আইনগত সমতা অন্তত অস্বীকার করা হয় না। সেসব রাষ্ট্রের আইন আগে সমতা আনেনি, মানুষের আন্দোলন ও চেতনা আগে এসেছে, তারপর রাষ্ট্র সেই চেতনাকে আইনের মাধ্যমে স্বীকৃতি দিয়ে বাস্তবায়নে নেমেছে। বাংলাদেশের আইন ও রাষ্ট্রকে মানবিক সাম্যের দিকে নিতে হলে সামাজিক ফ্যাসাদ আগে দূর করা লাগবে।

সমাজের অনাচার ও ভেদ-বৈষম্যের প্রতিবিম্বই আমাদের সরকার ও রাষ্ট্রে দেখা যায়। রাজনীতি এই ভেদের বাজার চাঙা রাখে। তাতে দমনকারী ক্ষমতার মস্ত সুবিধা হয়। এই যেমন মুক্তিযোদ্ধাদের মৃত্যুর পর রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানোর গার্ড অব অনারে নারী ইউএনও রাখার বিরুদ্ধে বলেছে সংসদীয় কমিটি। এর আগে জেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ দুটি পদে একই সঙ্গে দুই নারী যাতে পদায়িত না হন, তার দাবি এসেছে। দেখা যাবে, সমাজে এ ধরনের বৈষম্যের পক্ষে জোরদার সমর্থন আছে।

পরীমনি নারী বলে বাড়তি সুবিধা না পান, আবার নারী বলে কমও যেন না পান। পোশাকশ্রমিক জেসমিন কিংবা ধর্ষণের শিকার ক্ষুদ্র জাতিসত্তার নারীর জন্যও যাতে আইন দাঁড়ায়। নিখোঁজ বক্তা আদনান যেন ‘ইসলামি’ বলে প্রশাসনিক অবজ্ঞার শিকার না হন। আমরা জানি, রাতারাতি পরিস্থিতি বদলাবে না, কিন্তু নিষ্ঠা নিয়ে পরিবর্তনের কাজ করে যাওয়া ছাড়া আমাদের আর উপায় কী? সেটাই বাঁচার পথ।

আবু ত্ব-হা আদনানের সন্ধান চেয়ে অ্যামনেস্টির বিবৃতি-কালের কণ্ঠ

নিখোঁজের পাঁচ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো সন্ধান মেলেনি আলোচিত ধর্মীয় বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দিবাগত রাত থেকে নিখোঁজ রয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার। এদিকে নিখোঁজ আবু ত্ব-হা আদনানের সন্ধান চেয়ে বিবৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

করোনা পরিস্থিতি দেখে এসএসসি ও এইচ এসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত-শিক্ষামন্ত্রী-ইত্তেফাক

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে কি না- জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে কিনা করোনা পরিস্থিতি দেখে বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

এর আগে গতকাল রবিবার (১৩ জুন) চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে নেওয়া সম্ভব না হলে বিকল্প ব্যবস্থার চিন্তাভাবনা চলছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। দীপু মনি আরও বলেন, ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য আমরা চেষ্টা করছি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেয়ার। এখন সেটিও যদি না হয়, আমরা তার বিকল্প নিয়েও চিন্তা করছি। কিন্তু এখন পরীক্ষা আমরা নিতে পারব কিনা, পরীক্ষা নিতে না পারলে বিকল্প কোনো ব্যবস্থা থাকলে- তার সবকিছু নিয়েই কিন্তু আমাদের চিন্তাভাবনা আছে।

দুর্যোগেও চাল উৎপাদন বেশি, দাম কমছে না-দৈনিক প্রথম আলো

গত বছর বর্ষার আগে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় আম্পান। তারপর চার দফা বন্যার আঘাত। আর এ বছর আরেক ঘূর্ণিঝড় ইয়াস বাংলাদেশের নাকের সামনে দিয়ে চলে গেলেও উপকূলজুড়ে রেখে গেছে ক্ষত। এত সব আঘাত আর বিপদের মুখেও দেশের কৃষকেরা আবারও চমকে দিয়েছেন বিশ্বকে। এবারও ইন্দোনেশিয়াকে টপকে বাংলাদেশ বিশ্বের তৃতীয় চাল উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে জায়গা করে নিতে যাচ্ছে। চলতি সপ্তাহে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) থেকে প্রকাশিত ‘গ্লোবাল ফুড আউটলুক-জুন ২০২১’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। কিন্তু দাম কমছে না দেশে।

 এবার ভারতের কয়েকটি খবরের বিস্তারিত:

শুভেন্দু-সাক্ষাতের পরই দিল্লি চললেন রাজ্যপাল, বৈঠক হতে পারে মোদী এবং শাহের সঙ্গে-আনন্দবাজার পত্রিকা

দলবদল নিয়ে সরগরম রাজ্য-রাজনীতি। সোমবারই একাধিক ইস্যু নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী-সহ বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়ক। এই পরিস্থিতিতে আজ  জগদীপ ধনকড়ের দিল্লি যাত্রা।

ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ নিয়ে রাজ্যকে লাগাতার আক্রমণ করেই চলেছেন। তার মধ্যেই তিন দিনের জন্য দিল্লি যাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। রবিবারই রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি নেতাদের সঙ্গে রাজভবনে বৈঠক করেন তিনি। সেখানে ভোট পরবর্তী হিংসা, রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা এবং দলত্যাগ বিরোধী আইন লঙ্ঘন করে মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে তাঁর কাছে অভিযোগ জানান গেরুয়া নেতৃত্ব। তার পরেই মঙ্গলবার সকালে দিল্লি যাচ্ছেন বলে নেটমাধ্যমে ঘোষণা করেন রাজ্যপাল।

বাংলাকে পরাধীন করতে দেব না’, বিজেপির ‘বঙ্গভঙ্গ’ ষড়যন্ত্রে গর্জে উঠলেন মমতা-সংবাদ প্রতিদিন

বঙ্গভঙ্গের যড়যন্ত্র করছে বিজেপি। সোমবার এহেন অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। একইসঙ্গে কেন্দ্রেকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন তিনি। বললেন, “বাংলাকে পরাধীন করতে দেব না। বাংলাকে ভাগ করতে চাওয়ার উপযুক্ত জবাব দেবে বাংলার মানুষ” ভোটের ফলপ্রকাশের পর থেকেই বাংলায় চলতে থাকা হিংসা নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি। এবার তাদের অভিযোগ, বাংলাদেশ, নেপাল-সহ একাধিক দেশ থেকে উত্তরবঙ্গে ঢুকছে দুষ্কৃতীরা। দাবি বিজেপির।

টিকা নিতে চাইছেন না মুসলিমরা, বিতর্কিত মন্তব্য উত্তরাখণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর-সংবাদ প্রতিদিন

দেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা টিকা নিতে চাইছেন না। করোনার (Corona Virus) টিকা নিয়ে তাঁদের মধ্যে ভুল ধারণা ও আশঙ্কা রয়েছে। এমনই মন্তব্য করলেন উত্তরাখণ্ডের বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত।

সোমবার ঋষিকেশের একটি অনুষ্ঠানে বিতর্কিত এই মন্তব্য করেন ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত। তিনি বলেন, “আমাদের দেশে যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন এখন রয়েছেন- আমি ইচ্ছাকৃতভাবেই নাম নিচ্ছি, কারণ তাঁরা টিকা নিতে চাইছেন না। তাঁদের মধ্যে এখনও টিকা নিয়ে দ্বিধা, আশঙ্কা আর ভুল ধারণা রয়েছে।”

‘বিক্ষোভ দেখানোটা সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ নয়’, আদালতে জামিন দিল্লি দাঙ্গায় ধৃত ৩ জনের/ সংবাদ প্রতিদিন ,আনন্দবাজার

দিল্লি হিংসায় অভিযুক্ত ১ ছাত্র এবং ২ গবেষককে জামিন দিল আদালত। হিংসার নেপথ্যে বৃহত্তর ষড়যন্ত্র করার অভিযোগে গতবছর ওই তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছিল দিল্লি পুলিশ। এদিন দিল্লি হাই কোর্ট ওই তিনজনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব নাকচ করে দিয়েছে। সেই সঙ্গে স্পষ্ট ভাষায় দিল্লি পুলিশকে জানিয়ে দিয়েছে, সংবিধান মেনে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো মানেই সেটা সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ নয়।

গতবছর দিল্লি হিংসার প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখানোর সময় ‘পিঞ্জরা তোড়’ নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের দুই সদস্য নাতাশা নারওয়াল এবং দেবাঙ্গনা কলিতাকে গ্রেপ্তার করে দিল্লি পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় জামিয়া মিলিয়ে ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আসিফ ইকবাল তানহাকেও। এই তিনজনের বিরুদ্ধেই UAPA ধারায় মামলা দায়ের করে দিল্লি পুলিশ । তাদের অভিযোগ ছিল, এরা এই হিংসার ঘটনার ষড়যন্ত্রে যুক্ত। আজ সেই মামলার শুনানিতে দিল্লি হাই কোর্ট (Delhi High Court) স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, মানুষকে বিক্ষোভ দেখানোর অধিকার সংবিধান নিশ্চিত করেছে। সেটা কখনও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ হতে পারে না। সেই সঙ্গে ওই তিনজনের জামিন মঞ্জুর করেছে। তবে, শর্ত হিসেবে তাঁদের ৫০ হাজার টাকা করে জমা রাখতে হবে। সেই সঙ্গে নিজেদের পাসপোর্ট জমা রাখতে হবে। এই মামলাকে প্রভাবিত করে, এমন কিছু পদক্ষেপ করা যাবে না।

আদালত জানিয়েছে, সরকারকে বুঝতে হবে কোনটা প্রতিবাদের অধিকার আর কোনটা জঙ্গি কার্যকলাপ। দিল্লিতে হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে ২০২০-তে নাতাশা এবং দেবাঙ্গনাকে গ্রেফতার করা হয়।

মুকুলের লিস্টে ৩৫, পাল্টা ৫০ জনকে নিয়ে রাজভবনে শুভেন্দু-আজকাল

সপুত্র বিজেপি ত্যাগ করেছেন মুকুল রায়। কিন্তু জল্পনা এখানেই শেষ নয়। বরং এখন থেকেই  শুরু হয়েছে। মুকুলের পরে আর কারা ফিরছেন? আপাতত রাজনৈতিক মহলের লাখ টাকার প্রশ্ন এটাই। কারণ, একটি তালিকা। সূত্রের খবর, পুরনো দলে ফিরে এসেই শীর্ষ নেতৃত্বের হাতে একটি তালিকা তুলে দিয়েছেন মুকুল। যেখানে ৩৫ জন বিজেপি বিধায়কের নাম আছে। এর পরেই তৎপরতা বেড়েছে বিরোধী শিবিরে। ভোটে জিতে ৭৭ জন বিধায়ক হলেও আগেই নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকার পদত্যাগ করেছেন। তাঁরা সাংসদই থাকতে চান। চলে গেছেন মুকুলও। ফলে রাজ্য বিধানসভায় এখন বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা ৭৫। নিয়ম অনুযায়ী, ন্যূনতম ৩৪ জন বিধায়ক না থাকলে বিরোধী দলের মর্যাদা ও বিরোধী দলনেতার পদ দুটোই হারাতে হবে তাদের।

পার্সটুডে/গাজী আবদুর রশীদ/‌১৫

ট্যাগ