সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১ ১৫:০৩ Asia/Dhaka

শ্রোতাবন্ধুরা, আপনাদের সবাইকে অনেক অনেক প্রীতি আর শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি চিঠিপত্রের আসর প্রিয়জন। আজকের অনুষ্ঠানে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি আমি গাজী আব্দুর রশীদ, আমি আকতার জাহান এবং আমি আশরাফুর রহমান।

আশরাফুর রহমান: আজও অনুষ্ঠানের শুরুতেই আমি একটি হাদিস শোনাতে চাই। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন : "দুটি জিনিস বিরল বিষয় : নির্বোধের কাছ থেকে প্রজ্ঞাময় কথা, তা গ্রহণ করবে। আর প্রজ্ঞাবানের কাছ থেকে অশালীন কথা, তা মার্জনা করবে।"

আকতার জাহান: সত্যিকার অর্থেই দুটি বিরল উপদেশ শুনলাম! আমরা সবাই এই উপদেশ দুটি মেনে চলার চেষ্টা করব- এ কামনা করে নজর দিচ্ছি চিঠিপত্রের দিকে। আসরের প্রথম মেইলটি এসেছে গোপালগঞ্জ ঘোড়াদাইড় থেকে। আর পাঠিয়েছেন মধুমতি বেতার শ্রোতা সংঘের সভাপতি ফয়সাল আহমেদ সিপন। তিনি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই চিঠিটি পাঠিয়েছেন। সিপন ভাই লিখেছেন, "বিগত কয়েক মাস যাবত পদ্মা সেতুর বিভিন্ন পিলারে ফেরির ধাক্কা দেওয়ার কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। বর্ষাকালে পদ্মায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে এবং স্রোতের কারণে ফেরির চালকরা ফেরির গতিপথ নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণেই পদ্মা সেতুর বিভিন্ন পিলারে আঘাত হানছে বলে অনেকেই মন্তব্য করছেন। তবে এর সঙ্গে অন্য কোনো বিষয় জড়িত থাকার বিষয়টিও একেবারে উড়িয়ে দেওয়া ঠিক নয়। আমাদের গৌরবের পদ্মা সেতুর সুরক্ষা যেমন প্রয়োজন তেমনি ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখাটাও জরুরি।"

গাজী আব্দুর রশীদ: ফয়সাল আহমেদ সিপন ভাইয়ের মতামত তুলে ধরা হলো। আশাকরি সংশ্লিষ্টরা এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেবেন।

আসরের পরের মতামতটি ভারতের আসামের বরপেটার শ্রোতা আব্দুস সালাম সিদ্দিকীর। তিনি সম্প্রতি প্রিয়জনের ফেসবুক গ্রুপে এ মন্তব্যটি করেছেন। আব্দুস সালাম ভাই লিখেছেন, "গত ৬ সেপ্টেম্বর দুই বাংলার নবীন-প্রবীণ শ্রোতাদের চিঠিপত্র ও ইমেইল দিয়ে সাজানো প্রিয়জন অনুষ্ঠানটিটি দারুণভাবে উপভোগ করলাম। এতে বিভিন্ন শ্রোতার গঠনমূলক পরামর্শ, সমালোচনা, অনুষ্ঠান সম্পর্কে ভালো লাগার বিভিন্ন অনুভূতি, চাওয়া-পাওয়া ইত্যাদি বিষয় সংবলিত মতামত আমাকে দারুণভাবে আকৃষ্ট করেছে। সেই সাথে শ্রোতাবন্ধু আব্দুল হাকিম ভাই-এর প্রাণবন্ত সাক্ষাকারটিও ছিল বেশ চমৎকার। রেডিও তেহরান সম্পর্কে তার পরামর্শগুলো ভেবে দেখার মত। সুন্দর উপস্থাপনা ও মনোগ্রাহী এবং আকর্ষণীয় অভিব্যক্তির অসাধারণ অনুষ্ঠানটি উপহার দেবার জন্য রেডিও তেহরানকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন, শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ।"

আশরাফুর রহমান: প্রিয়জন সম্পর্কে আব্দুস সালাম সিদ্দিক ভাইয়ের গভীর পর্যবেক্ষণভিত্তিক মতামতটি খুব ভালো লাগল। আশা করি আমাদের অন্যান্য অনুষ্ঠান সম্পর্কেও মতামত ও পরামর্শ দেবেন।

সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব সিলেট জেলা শাখার সভাপতি মোঃ চাঁন মিয়া পাঠিয়েছেন পরের মেইলটি। নতুন আঙ্গিকে শুরু হওয়া প্রিয়জনে এটাই তার প্রথম চিঠি। ক্লাবের পক্ষ থেকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানানোর পর তিনি লিখেছেন, "ব্যস্ততা আমাকে ঘিরে রাখার কারণে রেডিও তেহরানে লিখা হয়ে ওঠে না। তবে নিয়মিত অনুষ্ঠান শুনছি, থেমে নেই আমাদের ক্লাবের মাধ্যমে সামাজিক উন্নয়নের কার্যক্রমও। সেইসাথে চলছে রেডিও তেহরানের শ্রোতা বৃদ্ধির বিভিন্ন পরিকল্পনা।" 

আকতার জাহান: আমাদের অনুষ্ঠান সম্পর্কে এ শ্রোতাবন্ধু কিছু লিখেছেন কি?

আশরাফুর রহমান: হ্যাঁ, লিখেছেন। চাঁন মিয়া ভাই জানিয়েছেন, "রেডিও তেহরানের অনুষ্ঠান শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত আমাকে মুগ্ধ করে। শুনছি কোরআন-হাদিসের অমূল্য বাণী যা প্রেরণা জাগায় প্রতিটি মানুষকে।"

গাজী আবদুর রশীদ: ক্লাব কার্যক্রম ও অনুষ্ঠান সম্পর্কে লেখা প্রথম চিঠির জন্য মোঃ চাঁন মিয়া ভাই আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশা করি সময় সুযোগ পেলে মাঝেমধ্যে লিখবেন।

আকতার জাহান: আসরের এ পর্যায়ে আমরা রেডিও তেহরানের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে 'আইআরআইবি ফ্যান ক্লাব বাংলাদেশ' আয়োজিত প্রবন্ধ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্য থেকে একজনের লেখার কিছু অংশ তুলে ধরব। আজকের লেখাটি  বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের শ্রোতাবোন শরিফা আক্তার পান্নার। তিনি ওই প্রতিযোগিতায় তৃতীয় পুরস্কার জিতেছেন।

বোন পান্না লিখেছেন, "রেডিও তেহরান ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের একটি গণমাধ্যম। ভারতীয় উপমহাদেশ, মধ্যপ্রাচ্য ও ইসলামী বিশ্বে এ বেতার কেন্দ্রটি খুবই জনপ্রিয়। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভারতে নিরপেক্ষ, তরতাজা ও সর্বশেষ খবরের উৎস হল রেডিও তেহরান। এতদ্বঞ্চলের অনেক সংবাদ মাধ্যম এখন রেডিও তেহরান বা পার্সটুডের খবর সূত্রসহ তাদের প্রচার মাধ্যমে প্রচার করে থাকে।"

আশরাফুর রহমান: শ্রোতাবোন পান্না আরও লিখেছেন, "খবর প্রচারের ক্ষেত্রে রেডিও তেহরান সমসাময়িক বেতার কেন্দ্রগুলোর মধ্যে সেরা। অধিকন্তু যেসব খবর পাশ্চাত্যের মিডিয়াতে প্রকাশ পায় না, সেসব খবর প্রকাশ করে রেডিও তেহরান ইতোমধ্যেই মজলুমের কণ্ঠস্বরে পরিণত হয়েছে। ইসলামী বিশ্বের অর্ধশতাধিক দেশের মধ্যে ইরানের এ বেতার কেন্দ্রটি ইউরোপ-আমেরিকার রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে মুসলমানদেরকে সঠিক খবর দিয়ে যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, অন্যান্য আন্তর্জাতিক বেতার কেন্দ্রের মত নিয়মিতভাবে খবরের ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণের মাধ্যমে শ্রোতাদের চাহিদা পূরণ করছে।"

গাজী আবদুর রশীদ: শ্রোতাবোন শরিফা আক্তার পান্না, আপনার লেখাটি সত্যিই অসাধারণ! প্রতিযোগিতায় তৃতীয় পুরস্কার লাভ করায় আপনাকে শুভ্ছো ও অভিনন্দন।

শ্রোতাবন্ধুরা, অনুষ্ঠানের এ পর্যায়ে আমরা  কথা বলব বাংলাদেশের এক শ্রোতা বোনের সঙ্গে। প্রথমেই তার পরিচয় জানা যাক। (সাক্ষাৎকার)

আকতার জাহান: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট থেকে বিধান চন্দ্র সান্যাল পাঠিয়েছেন এবারের মেইলটি। তিনি  লিখেছেন, "বর্তমান বিশ্বে শিশুরা কঠোর বাস্তববাদী। স্বপ্নলোকে বিচরণ তাদের পছন্দ নয়। পছন্দ ঠিক বলব না যেকোনো কারণেই হোক তাদের তা বিচরণ করবার সময় নেই। রূপকথার তো প্রায় হারিয়ে গেছে। এরকম একটা সময় শিশু-কিশোরদের জন্য রেডিও তেহরানের রংধনু অনুষ্ঠানটি বিশেষ সাড়া ফেলেছে। রংধনুকে আশ্রয় করে শৈশব আবার মেলে ধরেছে তাদের ডানা। শিশুদের তো বটেই এমনকি বড়দের কাছেও আকর্ষণীয় এই অনুষ্ঠানটি।"

সবশেষে অনুষ্ঠানের প্রযোজক ও উপস্থাপকদের ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠিটি শেষ করেছেন এ শ্রোতাবন্ধু।

আশরাফুর রহমান: বিধান চন্দ্র সান্যালকে ধন্যবাদ, রংধনু আসর সম্পর্কে চমৎকার মূল্যায়নের জন্য।

অনুষ্ঠানের এ পর্যায়ে ক্লাব কার্যক্রমের দুটি খবর। প্রথমটি পাঠিয়েছেন সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশের ভাইস চেয়ারম্যান তাছলিমা আক্তার লিমাতিনি জানিয়েছেন, "রেডিও তেহরান বাংলা বিভাগের প্রচারণার অংশ হিসেবে 'করোনা যুদ্ধে জেগে উঠি সকলে' এবং মাস্ক আমার, সুরক্ষা সবার এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকালে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন ও গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম চালু করেছে সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশ। সিলেট নগরীর লাক্কাতুরা চা বাগানে ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান দিদারুল ইকবালের পরিচালনায় কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন ও গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ বেতারের সাবেক পরিচালক ও ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা ড. মির শাহ আলম। 

গাজী আবদুর রশীদ: করোনাভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরির উদ্দেশ্যে আইআরআইবি ফ্যান ক্লাব, কিশোরগঞ্জ শাখাও সম্প্রতি মাস্ক বিতরণ কর্মসূচি পালন করেছে। ৮ সেপ্টেম্বর বুধবার শহরের মুক্তমঞ্চ, গুরুদয়াল কলেজ সড়ক ও খড়মপট্টি এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এসময় তাদেরকে রেডিও তেহরানের পরিচিতিমূলক ব্রুশিয়ারও দেওয়া হয়। গুরুদয়াল সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও আইআরআইবি ফ্যান ক্লাব, কিশোরগঞ্জের সভাপতি মোঃ শাহাদত হোসেনের সভাপতিত্বে উক্ত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জ ডায়াবেটিস হাসাপতালের প্রধান চিকিৎসক ডা. সুশীল কুমার শীল।

আকতার জাহান: করোনাভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরির উদ্দেশ্যে এবং রেডিও তেহরানের শ্রোতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যতিক্রমী কর্মসূচি পালনের জন্য সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব (সার্ক) বাংলাদেশ এবং আইআরআইবি ফ্যান ক্লাব কিশোরগঞ্জকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

আসরের শেষ চিঠিটি এসেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণার জেলার মহেন্দ্রনগর অগ্রগামী ক্লাব থেকে। আর পাঠিয়েছেন ভাস্কর পাল। তিনি লিখেছেন, "গত ৮ সেপ্টেম্বর 'দৃষ্টিপাত' অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পটুয়াখালীর গঙ্গামতি সৈকতে মৃত ডলফিন ভেসে আসা বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যালোচনা পরিবেশন করা হয়। আলোচনাটি শুনে ভীষণভাবে উদ্বিগ্ন হলাম। কারণ এভাবে চলতে থাকলে জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হয়ে সমগ্র প্রাণিকূলকে অস্তিত্বের সংকটে পড়তে হবে। আব্দুর রহমান খানের রিপোর্টে উঠে এসেছে এ সংক্রান্ত নানা তথ্য। এত গুরুত্বপূর্ণ একটি আশঙ্কার খবর তুলে ধরে জনগণকে সচেতন করার জন্য রেডিও তেহরানকে ধন্যবাদ জানাই।"

আশরাফুর রহমান: দৃষ্টিপাত অনুষ্ঠানটি মনোযোগ দিয়ে শোনার পর মতামত জানানোয় আপনাকেও ধন্যবাদ। তো বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের এ পর্যায়ে কয়েকজন শ্রোতার চিঠির প্রাপ্তিস্বীকার করছি, সময়ের অভাবে আজ যাদের চিঠি পড়া সম্ভব হচ্ছে না।

  • বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জের মল্লিকাদহ থেকে হরিদাস রায়
  • গোপালগঞ্জের ঘোড়াদাইড় থেকে আফিয়া খানম জুলী
  • কিশোরগঞ্জের গুরুদয়াল কলেজ থেকে থেকে মোঃ শাহাদত হোসেন
  • রিফাত জামিল ইউসুফজাই ঢাকার উত্তরা থেকে
  • এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমান জেলার চুপী থেকে হাফিজুর রহমান।

গাজী আবদুর রশীদ: চিঠি লিখার জন্য আপনাদের সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তো শ্রোতাবন্ধুরা, দেখতে দেখতে আমাদের আজকের আসরের সময়ও ফুরিয়ে এসেছে। বিদায় নেওয়ার আগে আপনাদের জন্য রয়েছে একটি গান। চিকিৎসা পেশায় নিয়োজিত নার্স বা সেবিকাদের কর্ম ও জীবনকে শ্রদ্ধা জানিয়ে 'সেবিকা' শিরোনামের গানটির কথা লিখেছেন ডা. শেখ মহিউদ্দিন, সুর করেছেন লিটন হাফিজ চৌধুরী। আর গেয়েছেন শিল্পী মশিউর রহমান, গাজী আনাস রওশন, রোকনুজ্জামান, শাহাবুদ্দিন শিহাব, ওবায়দুল্লাহ তারেক, আবু সফিয়ান ও লিটন হাফিজ চৌধুরী।

আকতার জাহান: শ্রোতাবন্ধুরা, আপনার গানটি শুনতে থাকুন আর আমরা বিদায় নিই প্রিয়জনের আজকের আসর থেকে। #

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২৮

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ